Advertisement
২০ জুলাই ২০২৪
Child Marriage

বাল্যবিবাহ আইন ভাঙার অভিযোগে ১৮০০ জন গ্রেফতার অসমে

বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মা জানান, পনেরো দিনেরও কম সময়ে রাজ্য জুড়ে ৪ হাজারেরও বেশি বাল্যবিবাহের অভিযোগ দায়ের হয়েছে। যার তদন্ত ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে।

Assam govt takes action on violation of child marriage act

বাল্যবিবাহ নিয়ে কড়া পদক্ষেপ অসম সরকারের। প্রতীকী ছবি।

সংবাদ সংস্থা
গুয়াহাটি শেষ আপডেট: ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১২:৫৫
Share: Save:

বাল্যবিবাহ বরদাস্ত করা হবে না। যাঁরা এই আইন ভাঙবেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অসমের মুখ্যমন্ত্রী হিমন্ত বিশ্ব শর্মার এই হুঁশিয়ারির পরই রাজ্য জুড়ে বাল্যবিবাহ আইন ভাঙার অভিযোগে ১৮০০ জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

মুখ্যমন্ত্রী অসম পুলিশকে এ বিষয়ে পুরোদস্তুর ক্ষমতা দেওয়ার পরই রাজ্য জুড়ে অভিযানে নামে তারা। বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী জানান, পনেরো দিনেরও কম সময়ে রাজ্য জুড়ে ৪ হাজারেরও বেশি বাল্যবিবাহের অভিযোগ দায়ের হয়েছে। যার তদন্ত ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গিয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে শুক্রবার থেকেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মুখ্যমন্ত্রীর সেই ঘোষণার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই রাজ্য জুড়ে ১৮০০ জনের বেশি অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মুখ্যমন্ত্রী এ প্রসঙ্গে একটি টুইটও করেছেন। তিনি লিখেছেন, “বাল্যবিবাহ আইন ভাঙার অভিযোগে রাজ্য জুড়ে ধরপাকড়ের কাজ চলছে। ১৮০০ জনের বেশি অভিযুক্তকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রাজ্য পুলিশকে বলেছি, এ বিষয়ে যেন অভিযুক্তদের কোনও রকম ছাড় না দেওয়া হয়। এই কাজ ক্ষমার যোগ্য নয়।”

১৪ বছর বয়সের নীচে কোনও মেয়েকে বিয়ে করলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু করা হবে। এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য মন্ত্রিসভা। আবার যে পুরুষরা ১৪-১৮ বছর বয়সি মেয়েদের বিয়ে করবে, তাদের বিরুদ্ধে ২০০৬-এর বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ আইনে মামলা দায়ের করা হবে। শুধু তাই-ই নয়, এই বিবাহের সঙ্গে যে সব ধর্মগুরু বা পুরোহিত যুক্ত থাকবেন, তাঁদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Child Marriage Assam arrest
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE