Advertisement
২৮ জানুয়ারি ২০২৩
National News

ফের সংঘর্ষবিরতি লঙ্ঘন পাক সেনার, কুপওয়ারায় নিহত ২ জওয়ান, এক গ্রামবাসী

সেনার তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘‘তাংধার সেক্টরে দুই জওয়ান ও এক সাধারণ নাগরিকের মৃত্যুর পর ভারতীয় সেনার জবাবি গোলাবর্ষণে পাকিস্তানেরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।’’

পাক গোলায় ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি। —ফাইল চিত্র

পাক গোলায় ক্ষতিগ্রস্ত বাড়ি। —ফাইল চিত্র

সংবাদ সংস্থা
শ্রীনগর শেষ আপডেট: ২০ অক্টোবর ২০১৯ ১১:৩০
Share: Save:

ফের উপত্যকায় অস্ত্রবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করে নিয়ন্ত্রণরেখায় ব্যাপক গোলাবর্ষণ করল পাক সেনা। জম্মুর কুপওয়ারা জেলার টংধর সেক্টরে রবিবার ভোর রাতে থেকে পাক গোলাগুলিতে নিহত দুই সেনা জওয়ান ও একজন সাধারণ নাগরিক। আহত আরও তিন জওয়ান ও ৫ গ্রামবাসী। পাক গোলায় ক্ষতিগ্রস্ত অন্তত ৬টি বাড়ি। পাল্টা জবাব দিয়েছে ভারতীয় সেনাও।

Advertisement

সেনা সূত্রে খবর, রবিবার ভোর রাত থেকে টংধর সেক্টরে বিনা প্ররোচনায় গোলাবর্ষণ শুরু করে পাক সেনা। তাতে দুই সেনা জওয়ান এবং এক গ্রামবাসীর মৃত্যু হয়। আহত হন আরও আট জন। এ ছাড়া একটি বাড়ি, একটি চালের গোডাউন। দু’টি গাড়ি ও একটি গোশালা ধ্বংস হয়ে যায়।ওই গোশালায় ১৯টি গরু ও একাধিক ভেড়ার মৃত্যু হয়েছে। স্থানীয় সূত্রে খবর, সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে চিত্রকূট গ্রামে। পাক গোলায় কয়েকটি বাড়ি কার্যত ধুলিসাৎ হয়ে গিয়েছে। শেল-মর্টারে সব মিলিয়ে মোট ক্ষতিগ্রস্ত ছ’টি বাড়ি। ঘটনার পর থেকেই আতঙ্কিত এলাকাবাসী।

এর পরই পাল্টা জবাব দিতে শুরু করে ভারতীয় সেনা। সেনার তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ‘‘টংধর সেক্টরে দুই জওয়ান ও এক সাধারণ নাগরিকের মৃত্যুর পর ভারতীয় সেনার জবাবি গোলাবর্ষণে পাকিস্তানেরও ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।’’

টংধরের পাশাপশি কাঠুয়ার হীরানগর সেক্টরেও পাক সেনা গোলাবর্ষণ চালায় বলে জানিয়েছে ভারতীয় সেনা। তাতেও কয়েকটি বাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে প্রাণহানির খবর নেই। গ্রামবাসীদের বক্তব্য, ‘‘ব্যাপক গোলাবর্ষণে বাড়িঘরের ক্ষতি হয়েছে। তবে আমরা ভাগ্যবান যে সেই সময় প্রায় সবাই ঘুমোচ্ছিলাম। বাড়ির বাইরে কেউ না থাকায় প্রাণহানি হয়নি।’’

Advertisement

আরও পডু়ন: এখনও বিক্ষোভ-ধর্না নিষিদ্ধই, জানালেন জম্মু ও কাশ্মীরের ডিজি

আরও পড়ুন: বন্ধু হলেও অর্থনীতির ঝিমুনি কাটাতে নির্মলার নীতি ভুল, জেএনইউ-এ গিয়ে সাফ কথা অভিজিতের

গত সপ্তাহেও বারামুলা ও রাজৌরি সেক্টরে দু’টি পৃথক অস্ত্রবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনায় পাক সেনার গুলিতে দুই সেনা জওয়ানের মৃত্যু হয়েছিল। ৫ অগস্ট জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপ করে বিশেষ মর্যাদা তুলে নেওয়ার পর থেকেই নিয়ন্ত্রণরেখায় অস্ত্রবিরতি চুক্তি লঙ্ঘনের ঘটনা বাড়িয়ে চলেছে পাক সেনা। বিশেষ করে বেড়ে গিয়েছে সাধারণ নাগরিকদের লক্ষ্য করে গোলাবর্ষণ।

সংবাদ সংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, এ বছর জুলাই মাসে ২৯৬ বারসংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করেছিল পাকিস্তান। অগস্টে সেই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ায় ৩০৭। সেপ্টেম্বরে ঘটেছে ২৯২টি অস্ত্রবিরতি লঙ্ঘনের ঘটনা। গত মাসেই কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছিল, শুধুমাত্র এই বছরেই সেপ্টম্বর পর্যন্ত বিনা প্ররোচনায় মোট ২০৫০ বার অস্ত্রবিরতি লঙ্ঘন করে গোলাগুলি ছুড়েছে পাক সেনা।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.