Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৯ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

লাইভ: ছত্তীসগঢ়ে এ বার কী হবে, তীব্র হচ্ছে কৌতূহল

রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অজিত জোগী এ বার মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টির (বিএসপি) সঙ্গে জোট বেঁধে নির্বাচনী ময়দানে নেমেছেন। তাঁর দল ও বিএসপ

নিজস্ব প্রতিবেদন
১১ ডিসেম্বর ২০১৮ ০০:০০
ছত্তীসগঢ় বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের ভাগ্যে কি এ বার শিকে ছিঁড়বে?

ছত্তীসগঢ় বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেসের ভাগ্যে কি এ বার শিকে ছিঁড়বে?

অপেক্ষা আর কিছু ক্ষণের। ৯০ আসনের ছত্তীসগঢ় বিধানসভা নির্বাচনের ফলগণনা শুরু হতে চলেছে। টানা ১৫ বছর ক্ষমতায় রয়েছে বিজেপি। মুখ্যমন্ত্রী রমন সিংহের নেতৃত্বে বিজেপি এ বারেও ফের ক্ষমতায় ফিরতে পারবে কি না তা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে তীব্র কৌতূহলের। পাশাপাশি, দীর্ঘ দিনের খরা কাটিয়ে কংগ্রেসের ভাগ্যে কি এ বার শিকে ছিঁড়বে? উঠছে এই প্রশ্নও। বিভিন্ন বুথফেরত সমীক্ষায় ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে, ছত্তীসগঢ়ে এ বার বিজেপি এবং কংগ্রেসের মধ্যে লড়াই হবে হাড্ডাহাড্ডি।

কিন্তু বহু হিসেব ওলটপালট করে দিতে পারে একদা কংগ্রেসে থাকা অজিত জোগীর নবগঠিত দল ছত্তীসগঢ় জনতা কংগ্রেস। রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী অজিত জোগী এ বার মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টির (বিএসপি) সঙ্গে জোট বেঁধে নির্বাচনী ময়দানে নেমেছেন। তাঁর দল ও বিএসপি এ বার বেশ কয়েকটি আসনে ভোট কেটে ক্ষমতার ভারসাম্যে বিঘ্ন ঘটাতে পারে বলে অনেকেরই আশঙ্কা।

ছত্তীসগঢ়ে ২০১৩-র বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি পেয়েছিল ৪৯টি আসন। কংগ্রেসের দখলে গিয়েছিল ৩৯টি। দু’টি আসন গিয়েছিল অন্যদের দখলে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement