Advertisement
২৭ জানুয়ারি ২০২৩
Babri Masjid Demolition Case

বাবরি ধ্বংস ‘পরিকল্পিত নয়’, আডবাণী-জোশী-সহ ৩২ জনই খালাস

যথেষ্ট তথ্যপ্রমাণের অভাবে সকলকেই রেহাই দিলেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

সংবাদ সংস্থা
লখনউ শেষ আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০৮:০০
Share: Save:

প্রায় তিন দশক ধরে চলে আসা বাবরি ধ্বংস মামলায় অভিযুক্ত সকলকেই খালাস করল লখনউয়ের বিশেষ সিবিআই আদালত। প্রবীণ বিজেপি নেতা লালকৃষ্ণ আডবাণী, মুরলিমনোহর জোশী, উমা ভারতীর মতো নেতা-নেত্রীদের বিরুদ্ধে মসজিদ ভাঙার ষড়যন্ত্র, পরিকল্পনা ও করসেবকদের উস্কানি দেওয়ার অভিযোগ ছিল। বুধবার লখনউয়ের বিশেষ সিবিআই আদালতে সেই মামলার রায় ঘোষণা করতে গিয়ে বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব জানান, অভিযুক্তদের কারও বিরুদ্ধে উপযুক্ত কোনও প্রমাণ মেলেনি।

Advertisement

বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনা পূর্ব পরিকল্পিত নয় বলেও এ দিন মন্তব্য করেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব। তিনি জানান, মসজিদ ভাঙায় অভিযুক্তদের কারও কোনও হাত ছিল না। উমন্মত্ত জনতাই এই ঘটনা ঘটিয়েছেন। অভিযুক্তরা বরং মসজিদ ভাঙায় বাধা দেওয়ারই চেষ্টা করেছিলেন।

বাবরি ধ্বংস মামলায় আদালতে একাধিক ভিডিয়ো ও ছবি জমা দিয়েছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা (সিবিআই)। কিন্তু সেগুলির সত্যাসত্য নিয়ে প্রশ্ন তোলেন অভিযুক্তদের আইনজীবী মণীশ ত্রিপাঠী। অভিযুক্তদের ফাঁসানোর জন্য সেগুলি বিকৃত করা হয়েছে বলে আদালতে দাবি করেন তিনি। তাঁর সেই দাবিই মেনে নেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার। অরিজিনাল নেগেটিভ জমা না করায় ছবিগুলির সত্যতা নিয়ে ধন্দ প্রকাশ করেন তিনি। শুধু তাই নয়, সিবিআই সাক্ষ্য প্রমাণ আইনের নিয়ম-কানুন মেনে চলেনি বলেও তিনি জানিয়ে দেন।

বাবরি মসজিদ ধ্বংস মামলায় রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ (আরএসএস) এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদ (ভিএইচপি)-কেও এ দিন ক্লিনচিট ধরিয়ে দেয় সিবিআই আদালত। ২ হাজার ৩০০ পাতার রায় পড়ে শোনানোর সময় বিচারক সুরেন্দ্রকুমার বলেন, ‘‘প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ ভাবে এই ঘটনার সঙ্গে আরএসএস এবং ভিএইচপি-র কোনও ভূমিকা ছিল না। মসজিদের পিছন থেকে অজ্ঞাত পরিচয় লোকজনই পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়েন।’’

Advertisement

লাইভ আপডেট—

• সিবিআই আদালতের সিদ্ধান্তকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে উচ্চ আদালতে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিল মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড।

• অভিযুক্তরা মসজিদ ভাঙায় বাধা দিয়েছিলেন বলে মন্তব্য করেন বিচারক।

• প্রমাণের অভাবে সকলকে মুক্তি দিলেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব।

• বাবরি ধ্বংস মামলায় অভিযুক্ত ৩২ জনকেই বেকসুর খালাস করল আদালত।

• বাবরি ধ্বংস পূর্ব পরিকল্পিত নয়, বললেন বিচারক।

• রায় পড়ছেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব।

• ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে আদালতে হাজিরা লালকৃষ্ণ আডবাণী, উমা ভারতীদের। ভিডিয়ো কনফারেন্সে যোগ দেননি মুরলিমনোহর জোশী।

• সওয়া ১১টা পর্যন্ত ২৬ জন অভিযুক্ত আদালতে পৌঁছন।

• আদালতে হাজিরা দেওয়া থেকে অব্যাহতি পেলেন লালকৃষ্ণ আডবাণী, মুরলিমনোহর জোশী, উমা ভারতী, কল্যাণ সিংহ, সতীশ প্রধান এবং রামমন্দির ট্রাস্টের প্রধান নৃত্যগোপাল দাস। ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে আদালতে হাজিরা দেবেন তাঁরা।

• সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ৩২ জন অভিযুক্তের মধ্যে ১৮ জন আদালতে পৌঁছন।

• আজ রায় ঘোষণার পরই অবসর নেবেন বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব।

• রামমন্দির ট্রাস্টের প্রধান নৃত্যগোপাল দাস আদালতে হাজির থাকবেন না।

• সেইসময় কেন্দ্রে কংগ্রেসের সরকার ছিল বলেই বিষয়টি নিয়ে এত হইচই। একটা ইমারতই তো ভেঙেছে! আমি অপরাধী নই। যা হব‌ে দেখা যাবে, বললেন অভিযুক্ত বিনয় কাটিয়ার।

• সাধ্বী ঋতাম্ভরা আদালতে পৌঁছলেন।

• আদালতে পৌঁছলেন সাক্ষী মহারাজ।

• বিচারক সুরেন্দ্রকুমার যাদব আদালতে পৌঁছলেন।

• লখনউ সিবিআই আদালতের বাইরে আঁটোসাটো নিরাপত্তা।

আরও পড়়ুন: শেষ গম্বুজটাও ভেঙে পড়তে দেখলাম ৪টে ৪৯ মিনিটে​

আরও পড়়ুন: এত দিনে বাবরি ধ্বংসের রায়! অক্ষমের উল্লাস ছাড়া আর কী?​

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.