×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জুন ২০২১ ই-পেপার

বিহার ভোটে শরিকি সঙ্ঘাত, যোগীর সিএএ মন্তব্যের বিরোধিতায় নীতীশ

সংবাদ সংস্থা
পটনা ০৫ নভেম্বর ২০২০ ১১:৪৩
নীতীশ কুমার এবং যোগী আদিত্যনাথ। ফাইল চিত্র।

নীতীশ কুমার এবং যোগী আদিত্যনাথ। ফাইল চিত্র।

বিহারে ভোটপর্ব শেষের আগেই ক্ষমতাসীন এনডিএ জোটে ফাটলের ছায়া। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা যোগী আদিত্যনাথ বুধবার বিহারের ভোটপ্রচারে এসে জানিয়েছিলেন, অনুপ্রবেশকারীদের দেশ থেকে বার করে দেওয়া হবে। বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার জনসভায় দাঁড়িয়ে যোগীর নাম না করে বিঁধলেন তাঁকে।

বুধবার বিকেলে অরারিয়ায় নির্বাচনী সভায় জেডি(ইউ) সভাপতি নীতীশ বলেন, ‘‘কারা এ সব বিদ্বেষমূলক প্রচার করছে? কে এমন মিথ্যা কথা বলছে? তাড়িয়ে দেওয়ার ক্ষমতা কার আছে? এমন সাহস কারও হতে পারে না। এখানে সকলেই ভারতের নাগরিক।’’

ঘটনাচক্রে তার কয়েক ঘণ্টা আগেই কাটিহারের একটি জনসভায় আদিত্যনাথ বলেছিলেন, ‘‘মোদীজি (প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী) অনুপ্রবেশ সমস্যার সমাধান করেছেন। সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের মাধ্যমে তিনি পাকিস্তান, আফগানিস্তান, বাংলাদেশ থেকে আসা নির্যাতিত হিন্দুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছেন। আর যারা অনুপ্রবেশ করে দেশের সুরক্ষা বিঘ্নিত করছে তাদের বার করে দেওয়ার ব্যবস্থা করেছে কেন্দ্র।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘সেই যে অমিত শাহ এসে খেয়ে গেলেন, তার পর আর কেউ এল না’

আদিত্যনাথের মন্তব্যের কয়েক ঘণ্টা পরেই নীতীশ বলেন, ‘‘আমাদের সংস্কৃতি বহুত্ববাদের। সম্প্রীতিক, ঐক্য এবং সৌভ্রাতৃত্বের মাধ্যমেই বিহারের উন্নয়ন সম্ভব।’’

আরও পড়ুন: জঙ্গল-রাজ কার আমলে, বিহার ভোটে তরজা

প্রসঙ্গত, বিহারে এনআরসি কার্যকর হবে না বলে একাধিক বার প্রকাশ্যে জানিয়েছেন নীতীশ। জানিয়েছেন, অসমে চালু হওয়া ওি পদ্ধতি দেশের অন্য কোনও রাজ্যে কার্যকরের চেষ্টা হলে তিনি বিরোধিতা করবেন। এমনকি, সংসদে তাঁর দলের সাংসদেরা নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল সমর্থন করলেও পরে বিষয়টি নিয়ে ‘ধীরে চলো’র ইঙ্গিত দেন তিনি।

Advertisement