×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ জুন ২০২১ ই-পেপার

হোয়াটসঅ্যাপের নতুন নিরাপত্তা বিধি নিয়ে স্বতঃপ্রণোদিত তদন্তের পথে প্রতিযোগিতা কমিশন

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৫ মার্চ ২০২১ ১০:৪২
কমিশন জানায় , নিরাপত্তাবিধি গ্রহণ না করার কোনও সুযোগ নেই, যেটি মূল আপত্তির কারণ। আপত্তি জানিয়েছিল কেন্দ্রের তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক।

কমিশন জানায় , নিরাপত্তাবিধি গ্রহণ না করার কোনও সুযোগ নেই, যেটি মূল আপত্তির কারণ। আপত্তি জানিয়েছিল কেন্দ্রের তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক।
প্রতীকী ছবি

হোয়াটসঅ্যাপের নতুন আপডেট নিয়ে আগেই আপত্তি জানিয়ে রেখেছিল কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক। এ বার সেই আপত্তির ভিত্তিতেই স্বতঃপ্রণোদিত তদন্ত শুরু করতে চলেছে ভারতের প্রতিযোগিতা কমিশন (কম্পিটিশন কমিশন অব ইন্ডিয়া)। কমিশনের তরফ থেকে বলা হয়েছে, হোয়াটসঅ্যাপের নতুন নিরপত্তা বিধি (প্রাইভেসি পলিসি) সাধারণ গ্রাহককে নিজের স্বার্থে ব্যবহার করছে ও অন্য ক্ষেত্রে গ্রাহকের অংশগ্রহণের পথ বন্ধ করছে। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই তদন্ত হবে। কমিশনের ডিরেক্টর জেনারেলকে তদন্তের রিপোর্ট আগামী ৬০ দিনের মধ্যে জমা দিতে বলা হয়েছে।

হোয়াটসঅ্যাপের নিরাপত্তা বিধিতে পরিবর্তনের সময় গ্রাহকদের কাছে শর্ত আসে, তাঁদের কিছু ব্যক্তিগত তথ্য ফেসবুকের সঙ্গে ভাগ করে নিতে হবে। নতুন নিরাপত্তাবিধি গ্রহণ না করার কোনও সুযোগও দেওয়া ছিল না গ্রাহকদের। এই পুরো বিষয়টি নিয়েই আপত্তি তুলেছিল কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রক। তারপরেই তদন্তের সিদ্ধান্ত নেয় কমিশন।

কমিশনের তরফে পরে জানানো হয়, এই নিরাপত্তাবিধি গ্রহণ না করার কোনও সুযোগ দেওয়া হয়নি, যেটি মূল আপত্তির কারণ। হোয়াটসঅ্যাপ ভারতীয় বাজারে তার একচেটিয়া উপস্থিতির সুযোগ নিয়ে এই সিদ্ধান্ত গ্রাহকদের উপর চাপিয়ে দিয়েছে। কমিশন জানিয়েছে, ‘‘ভারতীয় বাজারে কোনও প্রতিযোগিতার মুখে না পড়ার কারণে হোয়াটসঅ্যাপ তার গ্রাহকদের নিরাপত্তাবিধিকে যথেষ্ট গুরুত্ব দিচ্ছে না। গ্রাহকের সংখ্যা কমে যেতে পারে এমন ভয়ও কাজ করেনি হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষের। সেই কারণে এই শর্ত গ্রহণ না করারও কোনও সুযোগ দেননি তাঁরা।’’

Advertisement

এই প্রেক্ষিতে উঠে এসেছে আরও একটি বিষয়। কমিশনের প্রশ্ন, ‘‘ফেসবুকের সঙ্গে গ্রাহকদের ব্যক্তিগত তথ্য ভাগ করে নেওয়ার বিষয়ে কী নিরাপত্তা বিধি অবলম্বন করা হচ্ছে? তা স্পষ্ট করেনি হোয়াট্যাসঅ্যাপ। পাশাপাশি, এই তথ্য ভাগ করে নেওয়ার বিষয়টি গ্রাহকরা বাধ্য হয়ে করছেন না ইচ্ছা থেকে করছেন তা বোঝার উপায় নেই কারণ, এই আপডেট এড়িয়ে যাওয়ার কোনও সুযোগই দেয়নি সংস্থা।’’

হোয়াটসঅ্যাপের মুখপাত্র জানিয়েছেন, ‘‘কমিশনের সঙ্গে বিস্তারিত আলোচনায় আমরা আগ্রহী। হোয়াটসঅ্যাপ মানুষের নিরাপত্তার বিষয়টি রক্ষা করতে সর্বদা বদ্ধপরিকর। নতুন ‘বিজনেস ফিচার’ কী ভাবে কাজ করে, সে বিষয়েও গ্রাহকদের স্পষ্ট সব তথ্য দিতে আগ্রহী।’’

Advertisement