Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

বৃদ্ধি প্রায় ২৮৬ শতাংশ, সুইস ব্যাঙ্কে জমা অর্থ কালো নয়, চাপের মুখে জানাল কেন্দ্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ২০ জুন ২০২১ ০৬:৩৬


প্রতীকী চিত্র।

সুইস ব্যাঙ্কে ভারতীয়দের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ বাড়তেই পারে। কিন্তু এ দেশ থেকে সুইস ব্যাঙ্কে কালো টাকা জমার পরিমাণ বৃদ্ধির কোনও কারণ নেই বলে এ বার দাবি করল নরেন্দ্র মোদী সরকার। সুইস ন্যাশনাল ব্যাঙ্কের তথ্য জানিয়েছে, সুইস ব্যাঙ্কে ভারতীয়দের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ ২০২০-তে ২০,৭০০ কোটি টাকায় পৌঁছে গিয়েছে। গত ১৩ বছরে যা সর্বোচ্চ। বিদেশে গচ্ছিত কালো টাকা দেশে ফেরত আনার প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় আসা মোদী সরকার এ নিয়ে বিরোধীদের প্রশ্নের মুখে পড়েছে। চাপের মুখে আজ কেন্দ্রীয় অর্থ মন্ত্রক জানিয়েছে, সুইৎজারল্যান্ড কর্তৃপক্ষের কাছে এ বিষয়ে বিশদ তথ্য চাওয়া হয়েছে।

২০১৮, ২০১৯— পর পর দু’বছর সুইস ব্যাঙ্কে ভারতীয়দের গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ কমছিল। কিন্তু ২০২০-তে তা এক লাফে আগের বছরের তুলনায় ২৮৬ শতাংশ বেড়ে গিয়েছে। অর্থ মন্ত্রকের যুক্তি, গচ্ছিত অর্থের পরিমাণ বাড়লেও কালো টাকা জমার পরিমাণ বাড়ার কোনও যুক্তি নেই। কারণ ভারত-সুইৎজারল্যান্ডের মধ্যে কর ফাঁকি সংক্রান্ত বিষয়ে পারস্পরিক সহযোগিতার চুক্তি হয়েছে। প্রতি বছর আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত তথ্য আদানপ্রদানেরও চুক্তি হয়েছে। ২০১৯ ও ২০২০, দুই বছরই ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট সংক্রান্ত তথ্য আদানপ্রদান হয়েছে। এই আইনি চুক্তি কর ফাঁকির কালো টাকা সুইস ব্যাঙ্কে জমা রাখার সম্ভাবনা অনেকখানিই কমিয়ে দেয়। ফলে গচ্ছিত অর্থ বাড়লেও কালো টাকা জমার সম্ভাবনা নেই।

অর্থ মন্ত্রকের ব্যাখ্যা, ব্যবসায়িক কারণে ভারতীয় সংস্থাগুলির সুইৎজারল্যান্ডের ব্যাঙ্কে জমা অর্থের পরিমাণ বাড়তে পারে। সুইস ব্যাঙ্কগুলির ভারতীয় শাখাতেও জমানো অর্থের পরিমাণ বৃদ্ধি হতে পারে। ভারতীয় ও সুইস ব্যাঙ্কের মধ্যে লেনদেন বৃদ্ধির মতো নানা কারণও থাকতে পারে। আসল কারণ জানতেই সুইস কর্তৃপক্ষের কাছে বিশদ তথ্য চাওয়া হয়েছে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement