Advertisement
২৪ এপ্রিল ২০২৪
India China Conflict

ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করবে ভারত! খবর পেয়েই ভারত মহাসাগরে গুপ্তচর জাহাজ ভাসাল উদ্বিগ্ন চিন

উয়ান ওয়াং-৬ মূলত ভারতের ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ এবং উপগ্রহের গতিবিধির উপর নজরদারি চালানোর দায়িত্ব নিয়ে জলে ভেসেছে। জাহাজটি বালি উপকূলের আশপাশে পৌঁছে গিয়েছে।

ভারত মহাসাগরে চিনের গুপ্তচর জাহাজ।

ভারত মহাসাগরে চিনের গুপ্তচর জাহাজ। — টুইটার থেকে নেওয়া।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৪ নভেম্বর ২০২২ ১৯:২২
Share: Save:

ভারতীয় ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণের খবর বেজিং পৌঁছতেই গুপ্তচর জাহাজ নামিয়ে দিল চিন। কেমন ক্ষেপণাস্ত্র, পাল্লা কতদূর, মারণক্ষমতা কতটা, নিশানায় কতটা পটু— সবই জানতে চায় উদ্বিগ্ন বেজিং। সেই লক্ষ্যেই ‘উয়ান ওয়াং-৬’ ভারত মহাসাগরে ভেসেছে বলে প্রতিবেদনে দাবি করেছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

মাস তিনেক আগে প্রায় একই উদ্দেশে শ্রীলঙ্কার হাম্বনটোটা বন্দরে নোঙর করেছিল একই গোত্রের একটি জাহাজ। যা নিয়ে সেই সময় কলম্বোকে হুঁশিয়ারিও দিয়েছিল নয়াদিল্লি। যদিও নয়াদিল্লির আপত্তি কার্যত অগ্রাহ্য করেই হামবনটোটায় নোঙর করেছিল চিনা গুপ্তচর জাহাজ ‘উয়ান ওয়াং পাঁচ’। এ বার আবার একই ঘটনা।

সূত্রের খবর, উয়ান ওয়াং-৬ মূলত ভারতের ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ এবং উপগ্রহের গতিবিধির উপর নজরদারি চালানোর দায়িত্ব নিয়ে জলে ভেসেছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত চিনের গুপ্তচর জাহাজ বালি উপকূলের আশপাশে পৌঁছে গিয়েছে।

কিন্তু, এখন প্রশ্ন হল, কী এমন হল যে আবার চিনকে গুপ্তচর জাহাজ নামাতে হল? সূত্রের খবর, ভারত নোটাম জারি করেছে। এর অর্থ হল, একটি নির্দিষ্ট সময়ে ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করা হবে, এই খবর দেওয়া।

এক বিশেষজ্ঞকে উদ্ধৃত করে এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আগামী ১০ অথবা ১১ নভেম্বর ওড়িশা উপকূলের কাছে আব্দুল কালাম দ্বীপ থেকে ২,২০০ কিলোমিটার পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করতে চলেছে ভারত। তাতেই উদ্বেগে পড়ে গিয়েছে শি জিনপিংয়ের দেশ।

সেই প্রতিবেদনেই দাবি করা হয়েছে, আব্দুল কালাম দ্বীপ থেকে সেই ক্ষেপণাস্ত্রের ছুটে যাওয়ার কথা, শ্রীলঙ্কা ও ইন্দোনেশিয়ার মাঝখান দিয়ে ভারত মহাসাগরে। এই প্রসঙ্গে ভারতের উদ্বেগের জায়গা অন্য। চিন এ বার চেষ্টা করতে পারে, ক্ষেপণাস্ত্রটির যাত্রাপথ নিরীক্ষণের পাশাপাশি ক্ষেপণাস্ত্রের বিশেষ গতিবিধি, ক্ষমতা এবং পাল্লা মাপার। প্রসঙ্গত, হুইলার দ্বীপ থেকে ভারত প্রায়শই ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করে থাকে।

এ বছর অগস্টেই একই গোত্রের একটি জাহাজ দক্ষিণ চিন সাগরে ফেরার আগে শ্রীলঙ্কার হাম্বনটোটা বন্দরে নোঙর করে। সেই সময়ও ভারতের দাবি ছিল, এই জাহাজ পাঠানোর মূল উদ্দেশ্য ভারতের ক্ষেপণাস্ত্রের উপর নজরদারি চালানো। পাশাপাশি ভারত প্রেরিত উপগ্রহের গতিবিধির উপরও নজর রাখা। যদিও বেজিং কখনওই নয়াদিল্লির এই দাবি মানেনি। কার্যত ভারতের আপত্তি অগ্রাহ্য করেই শ্রীলঙ্কার বন্দরে নোঙর করে চিনের গুপ্তচর জাহাজ। সেই ঘটনার রেশ মিটতে না মিটতেই আবার ভারত মহাসাগরে ভাসছে চিনের গুপ্তচর জাহাজ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

India China Conflict Spy Indian Ocean
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE