Advertisement
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Twitter

‘এই মাত্র চাকরি গেল’, টুইটার থেকে ছাঁটাই হওয়ার পর আবেগঘন টুইট সদ্য প্রাক্তন কর্মীর

শুক্রবার সকাল থেকেই টুইটারে কর্মী ছাঁটাইয়ের প্রক্রিয়া শুরু করেছেন নয়া কর্তা ইলন মাস্ক। এরই মধ্যে একটি টুইট করলেন সেখান থেকে সদ্য চাকরি হারানো এক যুবক। তা মন ছুঁয়ে গেল অনেকের।

জনসংযোগ বিভাগে কাজ করতেন তিনি।

জনসংযোগ বিভাগে কাজ করতেন তিনি। ছবি: সংগৃহীত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৪ নভেম্বর ২০২২ ১৮:৩০
Share: Save:

সদ্য চাকরি গিয়েছে ‘টুইটার’ থেকে। ছাঁটাই হওয়ার পর দুঃখ প্রকাশ নয়, বরং একটি আবেগঘন টুইট করলেন ২৫ বছর বয়সি টুইটারের এক প্রাক্তন কর্মী যশ আগরওয়াল। জনসংযোগ বিভাগে কাজ করতেন তিনি। শুক্রবার যশ জানতে পারেন, তিনি আর টুইটারের কর্মী থাকছেন না।

দিন কয়েক আগে ইলন মাস্ক টুইটারের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই চাকরি নিয়ে কর্মীদের মনে অনিশ্চয়তার কালো মেঘ জমা হচ্ছিল। টুইটারে প্রায় সাড়ে সাত হাজার কর্মী আছেন। তাঁদের অর্ধেকেরও বেশির চাকরি যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে বলে সূত্রের খবর। শুক্রবার সকাল থেকেই ইমেল মারফত চাকরি থেকে বরখাস্ত হওয়ার সংবাদ পৌঁছতে শুরু করেছে টুইটারের কর্মীদের কাছে। সপ্তাহখানেকের অনিশ্চয়তার পর শুক্রবার সকাল ৯টা (ভারতীয় সময় অনুযায়ী রাত সাড়ে ৯টা) থেকে এই ছাঁটাই-প্রক্রিয়া শুরু করেছেন ইলন।

ইতিমধ্যে অনেক কর্মীই তাঁদের ছাঁটাই সংক্রান্ত মেল পেয়ে গিয়েছেন। চাকরি থেকে ছাঁটাই হওয়ার পর অনেকেই মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েছেন। ছাঁটাই হওয়া কর্মীদের মধ্যে এমন অনেকেই আছেন, যাঁরা অনেক দিন ধরে টুইটারে চাকরি করছেন। চাকরি হারানোর শোকে বিধ্বস্ত তাঁদের অনেকেই। এত কিছুর মধ্যেও নেটাগরিকদের মন জয় করে নিল চাকরি থেকে ছাঁটাই হওয়া ওই যুবকের করা টুইট।

নিজের একটি ছবি-সহ টুইটটি করেছেন যশ। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, টুইটারের লোগা আঁকা কালো টি-শার্ট পরে দু’হাতে টুইটারের লোগো লাগানো কুশন নিয়ে হাসি মুখে দাঁড়িয়ে আছেন যুবক। ছবিটি সম্ভবত টুইটারের অফিসেই তোলা। ছবির সঙ্গে ওই যুবক লিখেছেন, ‘‘এই মাত্র আমাকে ছাঁটাই করা হয়েছে। টুইটারে কাজ করা আমার কাছে পরম সম্মানের। এখনও পর্যন্ত আমার জীবনে পাওয়া সবচেয়ে বড় সুযোগ।’’ সঙ্গে হ্যাশট্যাগ লাভ টুইটার।

প্রকাশ্যে আসতেই কয়েক মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায় যশের টুইটি। ঘণ্টাখানেকের মধ্যে প্রায় সাড়ে তিন হাজার মানুষের পছন্দ চিহ্ন পড়ে তাতে। অনেকেই যশকে ভবিষ্যতের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। চাকরি চলে যাওয়ার পর এমন হাসিমুখে ছবি দিয়ে সংস্থার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানোর এই ইতিবাচকে প্রয়াসকে কুর্নিশ জানিয়েছেন অনেকে। কারও কারও মতে, ভেঙে না পড়ে নতুন করে উঠে দাঁড়ানোর এই উদ্যম যশকে অনেক দূর নিয়ে যাবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE