×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ মে ২০২১ ই-পেপার

করোনা: রাজ্য চাইলে পাশে দাঁড়াবে কেন্দ্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
নয়াদিল্লি ০২ অগস্ট ২০২০ ০৩:৩৮
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। ফাইল চিত্র।

কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন। ফাইল চিত্র।

দিল্লি সাহায্য চেয়েছিল, তাই রাজধানীর করোনা পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার কাজে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছিল কেন্দ্র। পশ্চিমবঙ্গ যদি সাহায্য চায়, তা হলে নরেন্দ্র মোদী সরকার তাদেরও সব ধরনের সাহায্য করতে প্রস্তুত বলে রাজ্য বিজেপির প্রতিনিধি দলকে জানালেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন।

রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলতে আজ কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে গিয়েছিলেন বিজেপি সাংসদ সৌমিত্র খান। তিনি কেন্দ্রীয় হস্তক্ষেপের দাবি করলে তাঁকে ওই আশ্বাস দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। গোড়ার দিকে নিয়ন্ত্রণ থাকলেও, গত দেড়-দু'মাস ধরে পশ্চিমবঙ্গের করোনা চিত্র উত্তোরত্তর খারাপ হচ্ছে বলে মনে করছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক। তাদের মতে, ফি-দিন রোগীর সংখ্যা যেমন বাড়ছে, তেমনই বৃদ্ধি পাচ্ছে মৃতের সংখ্যা। রাজ্যে করোনা পরীক্ষা জাতীয় গড়ের তুলনায় কম হচ্ছে বলে পরিসংখ্যান দিয়ে জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক। রাজ্যের পরিস্থিতি নিয়ে দু'দিন আগেই উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব রাজেশ ভূষণ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার পরে সৌমিত্র বলেন, ‘‘রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। তাই স্বাস্থ্যমন্ত্রীর কাছে কেন্দ্রের হস্তক্ষেপ দাবি করেছি।’’ সূত্রের খবর, হর্ষবর্ধন সৌমিত্রকে জানান, স্বাস্থ্য রাজ্যের তালিকাভুক্ত বিষয়। তাই কেন্দ্রের পক্ষ থেকে সরাসরি হস্তক্ষেপ করা সম্ভব নয়। পশ্চিমবঙ্গ যদি সাহায্য চায়, তা হলে কেন্দ্র তা করতে রাজি। অন্যথায় পরামর্শ ও পরিকাঠামোগত খাতে সাহায্য ছাড়া, অন্য কিছু করা মুশকিল।

Advertisement

গত সোমবার কেন্দ্রের পক্ষ থেকে অত্যাধুনিক করোনা পরীক্ষা মেশিন রাজ্যের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছিল। যা প্রতিদিন দশ হাজার করোনা পরীক্ষা করতে সক্ষম। কিন্তু সেই ক্ষমতার অর্ধেকও পরীক্ষা করা হচ্ছে না বলে জেনেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

Advertisement