×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

সাধু ছাড়া ৫৫ বছরের বেশি বয়সিদের জন্য আপাতত বন্ধ অমরনাথ যাত্রা

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি০৬ জুন ২০২০ ১৮:৪৮
পহলগাঁওয়ের বদলে বালতাল হয়ে অমরনাথ গুহায় পৌঁছবেন যাত্রীরা। ছবি: সংগৃহীত।

পহলগাঁওয়ের বদলে বালতাল হয়ে অমরনাথ গুহায় পৌঁছবেন যাত্রীরা। ছবি: সংগৃহীত।

অমরনাথ যাত্রায় শামিল হতে পারবেন না ৫৫ বছরের বেশি বয়সি কোনও পুণ্যার্থী। তবে এতে ছাড় পাবেন একমাত্র সাধুরা। যাত্রীদের প্রত্যেকে দাখিল করতে হবে কোভিড-নেগেটিভ হওয়ার প্রমাণও। চলতি বছরে এমনতর নানা নিয়মেই বেঁধে ফেলে হচ্ছে অমরনাথ যাত্রায় ইচ্ছুকদের।

সরকারি ভাবে এ নিয়ে ঘোষণা করা না হলেও করোনাভাইরাসের মতো অতিমারির থেকে বাঁচতে সতর্কতামূলক একগুচ্ছ ব্যবস্থা নিয়েছে অমরনাথ মন্দির কর্তৃপক্ষ। যাত্রাপথ সংক্ষিপ্ত করার পাশাপাশি রয়েছে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশনের ব্যবস্থাও। করোনা-আতঙ্কে যাঁরা চলতি বছরের যাত্রায় শামিল হতে পারবেন না তাঁদের জন্য মন্দির আরতি অনলাইনে সরাসরি সম্প্রচারেরও চেষ্টা করছেন মন্দির কর্তৃপক্ষ।

অতিমারির ছড়ানোর আগে স্থির ছিল, আগামী ২৩ জুন অমরনাথ যাত্রা শুরু হবে। তা শেষ হবে ৩ অগস্ট। তবে সেই সূচিতে বদল ঘটিয়ে তা আরও সংক্ষিপ্ত করা হয়েছে। চলতি বছরে যাত্রা শুরু হবে ২১ জুলাই এবং শেষ হবে ৩ অগস্ট, শ্রাবণ পূর্ণিমার দিন। সময়সূচির পাশাপাশি যাত্রাপথেও পরিবর্তন করা হয়েছে। আগে ঠিক করা হয়েছিল, অনন্তনাগ জেলার পহলগাঁও এবং গাঁদরবল জেলার বালতাল— এই দুই পথ ধরেই অমরনাথ যাত্রা শুরু হবে। তবে এখন পহলগাঁওয়ের বদলে বালতাল হয়ে অমরনাথ গুহায় পৌঁছবেন যাত্রীরা। গত সপ্তাহে এই  সিদ্ধান্ত নেন জম্মু ও কাশ্মীরের লেফ্টেন্যান্ট গভর্নর জি সি মুর্মু।

Advertisement

আরও পড়ুন: কোভিড রোগীদের ফেরাতে পারবে না দিল্লির হাসপাতাল, কড়া বার্তা কেজরীবালের

আরও পড়ুন: ২৪ ঘণ্টা জ্বলছে চুল্লি-চিতা, তবুও লাশের স্তূপ জমছে দিল্লির শ্মশানে​

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মন্দিরের এক বোর্ড সদস্য জানিয়েছেন, চলতি বছরে সমস্ত পুণ্যার্থীকে কোভিড-১৯ নেগেটিভ শংসাপত্র দাখিল করতে হবে। তাঁর কথায়, ‘‘অতিমারি আবহে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জম্মু-কাশ্মীরে ঢোকার সময়ই ওই শংসাপত্র খতিয়ে দেখা হবে। তার পর যাত্রীরা অমরনাথের উদ্দেশে রওনা দিতে পারবেন।’’ এর বাইরে, সাধু ছাড়া সমস্ত যাত্রীই অনলাইনে রেজিস্টি করতে পারবেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, এই প্রথম অমরনাথ মন্দিরের আরতি সকাল-সন্ধ্যায় অনলাইনে দেখানোর চেষ্টা করবেন সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। যদিও এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন লেফ্টেন্যান্ট গভর্নর জি সি মুর্মুর মুখ্যসচিব তথা মন্দিরের সিইও বিপুল পাঠক। 

Advertisement