×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৮ জুন ২০২১ ই-পেপার

দেশ জুড়ে টিকার সঙ্কট, দ্রুত প্রতিষেধক পেতে দুই সংস্থাকে ৪,৫০০ কোটির ঋণ কেন্দ্রের

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ১৯ এপ্রিল ২০২১ ১৮:১৬


নিজস্ব চিত্র

করোনা টিকার উৎপাদন প্রক্রিয়ায় গতি আনতে সেরাম ইনস্টিটিউট ও ভারত বায়োটেককে ৪ হাজার ৫০০ কোটি টাকার ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্তে ছাড়পত্র দিয়েছে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক। বলা হয়েছে, করোনা পরিস্থিতি সামলানোর দায়িত্বে থাকা কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর মাধ্যমে এই ঋণের অর্থ পৌঁছে দেওয়া হবে দুই সংস্থাকে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ যখন আছড়ে পড়েছে, অন্য দিকে তখনই দেশে টিকার সঙ্কট চিন্তা বাড়িয়েছে। একাধিক রাজ্যের তরফে কেন্দ্রকে বলা হয়েছে, টিকা না পাওয়ায় বন্ধ রাখতে হয়েছে বহু টিকাকরণ কেন্দ্র। সেই সময়ে এই ঋণ টিকার উৎপাদন বৃদ্ধি করতে অনেকটাই সাহায্য করবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এর মধ্যে ৩ হাজার কোটি টাকার ঋণ দেওয়া হয়েছে সেরাম ইনস্টিটিউটকে ও ১ হাজার ৫০০ কোটির ঋণ পেয়েছে ভারত বায়োটেক। সূত্রের খবর, যত দ্রুত সম্ভব এই অর্থ দুই সংস্থার হাতে পৌঁছতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে কেন্দ্র।

সেরাম ইনস্টিটিউটের প্রধান আদর পুনাওয়ালা আগেই কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে তিন হাজার কোটির ঋণ চেয়ে আবেদন জানিয়েছিলেন। তিনি বলেছিলেন, যদি টিকা উৎপাদনের ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হয়, তাহলে বিপুল পরিমাণ অর্থের প্রয়োজন। কেন্দ্র যদি সেই অর্থ সাহায্য করে, তাহলে সেরাম এককালীন ওই অর্থ হাতে পেয়ে উৎপাদনের পরিকাঠামো তৈরি করতে পারে। তাহলেই ১০ কোটির বেশি টিকা উৎপাদন করা সম্ভব হবে। একটি জাতীয় সংবাদমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পুনাওয়ালা জানিয়েছিলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে প্রতিনিয়ত আলোচনার মাধ্যমে কাজ করছে সেরাম ইনস্টিটিউট। সরকারকে আর্থিক সাহায্যের বিষয়ে জানানো হয়েছে।

Advertisement
Advertisement