Advertisement
০১ মার্চ ২০২৪
Ayodhya dispute

৫ বিচারপতির বেঞ্চে বৃহস্পতিবার অযোধ্যা মামলার প্রথম শুনানি

ষোড়শ শতকে অযোধ্যায় ২.৭ একর জমির উপর নির্মিত বাবরি মসজিদ গুঁড়িয়ে তার জায়গায় রামমন্দির গড়ার দাবি জানিয়ে আসছে দক্ষিণপন্থী হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি।

—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৮ জানুয়ারি ২০১৯ ২০:০৩
Share: Save:

অযোধ্যা মামলার শুনানি হবে সুপ্রিম কোর্টে। তার জন্য গঠিত হল পাঁচ বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চ। তাতে রয়েছেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ,বিচারপতি এসএ বোবড়ে,বিচারপতি এনভি রমণ,বিচারপতি ইউইউ ললিত এবং বিচারপতিডিওয়াই চন্দ্রচূড়। বৃহস্পতিবার বিতর্কিত মামলার প্রথম শুনানি।

এর আগে, গত শুক্রবার শীর্ষ আদালতে বিষয়টি উঠলে জানিয়ে দেওয়া হয়, রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ মামলার শুনানি কবে থেকে শুরু হবে, তা ঠিক হবে ১০ জানুয়ারি। তার পর, মঙ্গলবার শীর্ষ আদালতের ওয়েবসাইটে বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানানো হয়, মামলা সংক্রান্ত কোন আবেদনগুলির শুনানি হবে, বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় সেই বিষয়টি নিয়ে বসবেন প্রধান বিচারপতি-সহ বাকিরা। সেখানে মামলা সংক্রান্ত আবেদনগুলিকে তালিকাভুক্ত করার কাজ শুরু হবে। স্থির হবে মামলার শুনানির দিনক্ষণ।

রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ বিতর্ক গত প্রায় ছয় দশক পুরনো। ষোড়শ শতকে অযোধ্যায় ২.৭ একর জমির উপর নির্মিত বাবরি মসজিদ গুঁড়িয়ে তার জায়গায় রামমন্দির গড়ার দাবি জানিয়ে আসছে দক্ষিণপন্থী হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলি। সেই দাবিতেই ১৯৯২ সালের ৬ ডিসেম্বর বাবরি মসজিদ ধ্বংস করে দেওয়া দেওয়া হয়। তার পর থেকে মামলা ঝুলে রয়েছে কোর্টে। ২০১০-এবিতর্কিত ওই এলাকা রামলাল্লা বিরাজমান, নিমরোহি আখড়া ও সুন্নি ওয়াকফ বোর্ডের মধ্যে ভাগ করে দিতে নির্দেশ দেয় ইলাহাবাদ হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন: অমুসলিম শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দিতে বিল পাশ লোকসভায়, উত্তেজনা উত্তর-পূর্বে​

আরও পড়ুন: বিজেপির কুম্ভ কৌশল! মতুয়া মহাসঙ্ঘকে প্রয়াগে আমন্ত্রণ আদিত্যনাথের​

ইলাহাবাদ হাইকোর্টের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে শীর্ষ আদালতে প্রায় ১৪টি আবেদন জমা পড়ে। ২০১৯-এর জানুয়ারিতে সেগুলির শুনানি হবে বলে গতবছর অক্টোবরে জানিয়ে দেয় শীর্ষ আদালত। অখিল ভারত হিন্দু মহাসভার তরফে শুনানির দিন এগিয়ে আনার আবেদন জানানো হলে তা খারিজ করে দেওয়া হয়। তবে লোকসভা নির্বাচনে মাস কয়েক বাকি থাকতে নতুন করে ফের রামমন্দির বিতর্ক মাথাচাড়া দিয়েছে। আদালতের রায়ের অপেক্ষা না করে মোদী সরকারকে সংসদে অর্ডিন্যান্স জারি করতে হবে বলে দাবি তুলেছে শিবসেনা-সহ বিভিন্ন হিন্দুত্ববাদী সংগঠন, যাতে বিতর্কিত ওই জায়গায় মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করে দেওয়া যায়। তবে আদালতের রায়ের পরেই এগনো সম্ভব বলে সম্প্রতি এক সাক্ষাত্কারে জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE