Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪
Uttarkashi Tunnel Collapse

১৭ দিন কী ভাবে কাটিয়েছেন শ্রমিকরা, প্রকাশ্যে এল উত্তরকাশীর সুড়ঙ্গের ভিতরের নতুন ভিডিয়ো

সুড়ঙ্গের ভেঙে পড়া অংশের ও পাশে ৪১ জন শ্রমিক কী ভাবে সময় কাটিয়েছেন, কোথায় শুয়েছেন, কী কী ছিল তাঁদের সঙ্গে, গত ১৭ দিন ধরে সেই ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসেনি। এ বার তা প্রকাশ্যে এসেছে।

ছবি: পিটিআই।

ছবি: পিটিআই।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০১ ডিসেম্বর ২০২৩ ১৮:০৬
Share: Save:

১৭ দিন আটকে থাকার পর গত ২৮ নভেম্বর রাতে উত্তরকাশীর সিল্কিয়ারা সুড়ঙ্গ থেকে ৪১ জন শ্রমিককে উদ্ধার করা হয়। যা গোটা দেশে স্বস্তি এবং আনন্দের বার্তা বয়ে এনেছে। সুড়ঙ্গের ভিতরে শ্রমিকরা কেমন আছেন, তা জানা গেলেও সশরীরে তাঁদের ভিডিয়ো প্রকাশ্যে এসেছিল গত ১০ নভেম্বর। তা-ও আবার একটি পাইপের মধ্যে দিয়ে ক্যামেরা পাঠিয়ে সেই ভিডিয়ো করা হয়েছিল। কিন্তু সুড়ঙ্গের ভেঙে পড়া অংশের ও পাশে ৪১ জন শ্রমিক কী ভাবে সময় কাটিয়েছেন, কোথায় শুয়েছেন, কী কী ছিল তাঁদের সঙ্গে সেই ভিডিয়ো গত ১৭ দিন ধরে প্রকাশ্যে আসেনি। কিন্তু এ বার সেই ভিডিয়োই প্রকাশ্যে এসেছে।

ভিডিয়োটি তুলেছেন আটকে পড়া শ্রমিকদেরই এক জন। ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে, শ্রমিকরা কেউ শুয়ে, কেউ বসে নিজেদের মধ্যে গল্প করছেন। যে শ্রমিক ভিডিয়ো করছিলেন, তাঁর সঙ্গীদের এক জন কে জিজ্ঞাসা করছিলেন, “কী করছ?” উত্তর আসে, “বসে আছি।” আর এক জনকে জিজ্ঞাসা করেন, “কাল রাতে কখন শুতে গিয়েছিলে?” এর পরই ক্যামেরায় দেখান পাথুরে রাস্তার উপর কম্বল বিছানো। সেখানে কোনও শ্রমিক শুয়ে, কেউ বসে। সুড়ঙ্গের ভিতরের ঘুটঘুটে অন্ধকারকে চিরে জ্বলছে বেশ কিছু লাইট।

ওই শ্রমিককে আবার জিজ্ঞাসা করতে শোনা গেল, “রাতে কী করছিলে? সিনেমা দেখছিলে? বাকিরা কোথায় গেল?” উত্তর আসে, “বাথরুমে গিয়েছে।” খাবার ঠিক মতো খাচ্ছেন কি না, তা-ও জিজ্ঞাসা করেন শ্রমিকদের। কোনও টেনশন হচ্ছে কি না, মনখারাপ করছে কি না, শরীর ঠিক লাগছে কি না— ইত্যাদি প্রশ্ন করছিলেন। সুড়ঙ্গের যে অংশে আটকে পড়েছিলেন, সেটির দৈর্ঘ্য প্রায় ২ কিলোমিটার। বেশ কিছু শ্রমিককে আবার হাঁটাচলা করতেও দেখা গেল। একে অপরকে তাঁরা অভয় দিচ্ছিলেন। এক জায়গায় আবার দেখা যাচ্ছে, বাইরে থেকে পাঠানো ফল, জল এবং খাবার রাখা রয়েছে। শ্রমিকেরা আটকে প়ড়া থেকে উদ্ধারের দিন পর্যন্ত এই ভিডিয়ো প্রকাশ্যে আসেনি। সম্প্রতি এই ভিডিয়োটি সমাজমাধ্যমে ঘুরছে। যদিও ভিডিয়োটির সত্যতা যাচাই করেনি আনন্দবাজার অনলাইন।

গত ১২ নভেম্বর সুড়ঙ্গের একটা অংশ ভেঙে পড়ায় তার ভিতরে আটকে পড়েছিলেন ৪১ জন শ্রমিক। তার পর থেকে তাঁদের উদ্ধারের জন্য নিরন্তর চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া হয়েছে। অবশেষে গত ২৮ নভেম্বর শ্রমিকদের উদ্ধার করা হয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE