Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

বারাণসীতে মোদীর গড়ে ধাক্কা বিজেপির, বিধান পরিষদের ২ আসনেই এসপি-র জয়

সংবাদ সংস্থা
লখনউ ০৬ ডিসেম্বর ২০২০ ১২:৩৫
জয়ের পর সমাজবাদী পার্টির কর্মী-সমর্থকদের উচ্ছ্বাস। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

জয়ের পর সমাজবাদী পার্টির কর্মী-সমর্থকদের উচ্ছ্বাস। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া

নরেন্দ্র মোদীর গড়ে ধাক্কা বিরোধীদের। উত্তরপ্রদেশের বিধান পরিষদের নির্বাচনে বারাণসীতে দু’টি আসনেই হারল বিজেপি। দু’টি আসনেই জয় পেয়েছেন অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টি (এসপি) প্রার্থীরা। গত ১০ বছর ধরে এই আসন দু’টি ছিল বিজেপির দখলে। বিজেপির শক্ত ঘাঁটিতে বিরোধীদের এই জয় তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা।

উত্তরপ্রদেশের বিধান পরিষদের ১১টি আসন খালি হয় গত ৬ মে কিন্তু করোনার জন্য নির্বাচন পিছিয়ে হয়েছে ৩ ডিসেম্বর। ১১টি আসনের মধ্যে ৬টি শিক্ষকদের জন্য এবং ৫টি ছিল স্নাতকদের জন্য সংরক্ষিত। মোট প্রার্থী ছিলেন ১৯৯ জন। ১১টির মধ্যে ২টি আসনের ফল ঘোষণা হয়নি এখনও। ঘোষিত ৯টি আসনের মধ্যে বিজেপি ৪টি, সমাজবাদীর পার্টি ৩টি এবং নির্দল প্রার্থীরা ২টি আসনে জিতেছেন।

শনিবার বারণসীর একটি আসনে ফল ঘোষণা হতেই দেখা যায়, এসপি-র প্রার্থী আশুতোষ সিংহ জিতেছেন। রবিবার জয় নির্ধারিত হয় লালবিহারী যাদবের। আর তার পরেই সমাজবাদী পার্টি শিবিরে উচ্ছ্বাস। মোটের উপর পিছিয়ে থাকলেও বারাণসীর এই ফলকে বিরাট জয় বলেই মনে করছে অখিলেশের দল। রবিবার লালবিহারী বলেন, ‘‘এটা বিরাট জয়। এই ফলে আমি খুব খুশি।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: ভারতে জরুরি ভিত্তিতে ছাড়পত্রের জন্য আবেদন ফাইজারের, ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের উপর ছাড়ের দাবি

দেশের মধ্যে যে ছ’টি রাজ্যে আইনসভার নিম্নকক্ষ (বিধানসভা) ও বিধানসভার উচ্চকক্ষ (বিধান পরিষদ) রয়েছে, উত্তরপ্রদেশ তার মধ্যে অন্যতম। গোবলয়ের এই রাজ্যে বিধান পরিষদের আসন সংখ্যা ১০০।

আরও পড়ুন: ৩ বছর পর শিলিগুড়িতে গুরুংয়ের সভা, দার্জিলিং থেকে সমর্থকরা নেমে এলেন সমতলে

উত্তরপ্রদেশের বারাণসী কেন্দ্র বরাবরই বিজেপির অভেদ্য দুর্গ। ২০১৪ এবং ২০১৯ দু’বারই এই লোকসভা কেন্দ্র থেকে জিতেই প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন নরেন্দ্র মোদী। তার আগে এই কেন্দ্র থেকে দীর্ঘদিন জিতেছেন মুরলি মনোহর যোশী। ফলে বারাণসী বরাবরই বিজেপির ‘প্রেস্টিজ ফাইট’। সেই লড়াইয়ে দীর্ঘদিন বাদে বারাণসীতে বিধান পরিষদে হারের পর কিছুটা হলেও হতাশ বিজেপি শিবির।

আরও পড়ুন

Advertisement