Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সীমান্তে শান্তি চায় ভারত, চিনকে ১ ইঞ্চি জমি না ছাড়ারও বার্তা রাজনাথের

চিনের প্রতি শান্তির হাত বাড়ালেও লালফৌজের আগ্রাসী মনোভাবের বিরুদ্ধে কার্যত হুঁশিয়ারির সুর শুনিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি ২৫ অক্টোবর ২০২০ ১৬:২৫
Save
Something isn't right! Please refresh.
‘শস্ত্র পূজা’ করছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। ছবি: পিটিআই।

‘শস্ত্র পূজা’ করছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ। ছবি: পিটিআই।

Popup Close

চিনের সঙ্গে সীমান্ত বরাবর এলাকায় শান্তি চায় ভারত। তবে শি চিনফিং সরকারকে শান্তির বার্তা দিলেও চিনা সেনার কোনও ধরনের আগ্রাসনই যে ভারত বরদাস্ত করবে না, তা-ও স্পষ্ট করেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। দশেরা উপলক্ষে রবিবার সিকিমে গিয়ে প্রথামাফিক ‘শস্ত্র পূজা’ করার পর চিনের প্রতি শান্তির হাত বাড়ালেও লালফৌজের আগ্রাসী মনোভাবের বিরুদ্ধে কার্যত হুঁশিয়ারির সুর শুনিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ

এ দিন রাজনাথ বলেন, ‘‘ভারতের বীর সেনানিরা (দেশের সুরক্ষার জন্য) নিজেদের জীবন বলিদান করেছেন। সীমান্তে ভারত-চিন উত্তেজনা প্রশমিত হওয়া উচিত এবং শান্তি রক্ষিত হোক। তবে অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটতেই থাকছে। যদিও আমি আত্মবিশ্বাসী যে আমাদের সেনানিরা কারওকেই ১ ইঞ্চি জমি কেড়ে নিতে দেবেন না... ভারতীয় সেনার সাহসিকতার কথা ইতিহাস মনে রাখবে।’’

চলতি বছরের মে মাসে পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা (লাইন অব অ্যাকচ্যুয়াল কন্ট্রোল বা এলএসি) বরাবর এলাকায় চিনা আগ্রাসনের জেরে তাদের সেনার সঙ্গে একাধিক বার সংঘর্ষে জড়িয়েছে ভারতীয় সেনা। লাদাখ ছাড়াও সিকিম বা অরুণাচল প্রদেশেও চিন এবং ভারতের সেনার মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়েছে। সীমান্ত বরাবর এলাকায় এই উত্তপ্ত পরিস্থিতি প্রশমনের জন্য দু’দেশের মধ্যে দফায় দফায় সেনাকর্তাদের পাশাপাশি কূটনৈতিক স্তরেও আলোচনা হয়েছে। তবে সাময়িক ভাবে তাতে সুরাহা মিললেও কোনও স্থায়ী সমাধানসূত্র বার হয়নি। এই আবহে চিনের প্রতি এক দিকে শান্তির বার্তা এবং অন্য দিকে কার্যত প্রচ্ছন্ন হুঁশিয়ারি শোনা গিয়েছে রাজনাথের কণ্ঠে। এতে সেনার মনোবল বাড়ানোর পাশাপাশি চিনা-নীতি নিয়ে বিরোধীদের সমালোচনার জবাব দেওয়া যাবে বলে মনে করছেন প্রতিরক্ষা মহলের একাংশ।

Advertisement

দু’দিনের পশ্চিমবঙ্গ তথা সিকিম সফরের অঙ্গ হিসাবে চিনা সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায় এ দিন পৌঁছন রাজনাথ। দার্জিলিঙের সুকনায় যুদ্ধ স্মৃতিসৌধের উদ্বোধনও করেন তিনি। রাজনাথের সঙ্গে ছিলেন ভারতীয় সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নরবণে। ওই অনুষ্ঠানে সংস্কৃত মন্ত্রোচ্চারণের মাধ্যমে ‘শস্ত্র পূজা’ অংশগ্রহণ করেন রাজনাথ। এ ছাড়া, সুকনায় ভারতীয় সেনার ৩৩ কোরের সদর দফতর থেকে ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে গ্যাংটক-নাথুলা রোডের বিকল্প পথেও উদ্বোধন করেন। প্রসঙ্গত, সিকিম সেক্টরে চিনা সীমান্ত বরাবর এলাকায় নজরদারির কাজে মোতায়েন রয়েছেন ৩৩ কোরের জওয়ানেরা। ওই রাস্তা উদ্বোধনের পাশাপাশি সীমান্তে ভারতীয় সেনার প্রস্তুতিও খতিয়ে দেখেন রাজনাথ এবং নরবণে।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement