Advertisement
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
s jayshankar

Jaishankar: ‘সব দেশই নিজের সুবিধার কথা ভাববে’, রাশিয়া থেকে তেল কেনা নিয়ে ব্যাখ্যা জয়শঙ্করের

‘‘দেশের মানুষের স্বার্থ আগে ভেবে দেখা উচিত’’, রাশিয়া থেকে সস্তায় অশোধিত তেল কেনা নিয়ে আবারও সরব হলেন ভারতের বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

রাশিয়া থেকে তেল কেনা নিয়ে আবারও মুখ খুললেন বিদেশমন্ত্রী।

রাশিয়া থেকে তেল কেনা নিয়ে আবারও মুখ খুললেন বিদেশমন্ত্রী। ফাইল চিত্র।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৮ অগস্ট ২০২২ ১০:২৪
Share: Save:

রাশিয়া থেকে সস্তায় অশোধিত তেল কেনা নিয়ে আবারও নিজের অবস্থান স্পষ্ট করল ভারত। হু হু করে যে ভাবে তেলের দাম বাড়ছে, তাতে দেশের মানুষের স্বার্থ আগে ভেবে দেখা উচিত। রাশিয়া থেকে তেল কেনা নিয়ে পশ্চিমী দেশগুলির সমালোচনার জবাব দিতে এ ভাবেই এ বার মুখ খুললেন বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

ব্যাঙ্ককে অনাবাসী ভারতীয়দের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে বিদেশমন্ত্রী বলেছেন, ‘‘আমরা রক্ষণাত্মক ভাবে সিদ্ধান্ত নিচ্ছি না। দেশের মানুষের স্বার্থ সম্পর্কে আমরা অবগত। আমাদের দেশের মাথাপিছু গড় আয় ২ হাজার ডলার। এখানে অনেক মানুষ রয়েছেন, যাঁদের বেশি দামে জ্বালানি কেনার সামর্থ নেই। এটা আমার বাধ্যবাধকতা, আমার নৈতিক কর্তব্য যে তাঁদের জন্য যেটা সেরা, সেটাই আমি করব।’’

রাশিয়া থেকে তেল কেনা নিয়ে নয়া দিল্লির সিদ্ধান্তের সমালোচনা প্রসঙ্গে জয়শঙ্কর বলেছেন, ‘‘সততার সঙ্গে নিজেদের অবস্থান স্পষ্ট করেছে ভারত। ওরা (পশ্চিমী দেশগুলি) হয়তো প্রথমে প্রশংসা করবে না। কিন্তু তার জন্য চালাকির আশ্রয় নেওয়ার প্রয়োজন নেই। আমার বিশ্বাস বাস্তবটা মেনে নিয়ে বিশ্ব এটাকে মেনে নেবে।’’

পশ্চিমী দেশগুলির ‘আপত্তি’ উড়িয়ে রাশিয়া থেকে তেল কেনা প্রসঙ্গে ব্যাখ্যা দিতে গিয়ে জয়শঙ্কর আরও বলেন, ‘‘এমন একটা সময়ে আমরা দাঁড়িয়ে রয়েছি, যেখানে তেলের দাম আকাশছোঁয়া। দাম বাড়ছে গ্যাসেরও। এশিয়ার অনেক তেল সরবরাহকারী ইউরোপের দিকে ঝুঁকেছে...। পশ্চিম এশিয়া ও অন্যান্য উৎস, যারা ভারতে তেল সরবরাহ করত, তাদের থেকে বেশি পরিমাণে কিনছে ইউরোপ। এমন একটা পরিস্থিতি, যেখানে সব দেশেই নিজেদের নাগরিকদের জন্য সেরাটা দেখবে। আমরাও সেটা করছি।’’

প্রসঙ্গত, রাশিয়া-ইউক্রেনের যুদ্ধের আবহে রাশিয়াকে নানা ভাবে কোণঠাসা করতে শুরু করেছে পশ্চিমী দেশগুলি। এই পরিস্থিতিতে রাশিয়া থেকে সস্তায় অশোধিত তেল কেনায় নয়া দিল্লির সমালোচনায় সরব হয় আমেরিকা-সহ পশ্চিমী দেশগুলি। এর আগেও এ নিয়ে মুখ খুলেছিলেন বিদেশমন্ত্রী। তিনি বলেছিলেন, ইউরোপ এক সন্ধ্যায় যতটা অশোধিত তেল রাশিয়া থেকে আমদানি করে, গোটা মাসে ভারত করে তার থেকে কম।

অন্য দিকে, ব্যাঙ্ককে জয়শঙ্করের মন্তব্যের পর ইউক্রেনের বিদেশমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা বলেছেন, ভারতের থেকে বেশি পরিমাণ সমর্থন আশা করেছিল তার দেশ। তিনি বলেছেন, ‘‘রাশিয়ার অশোধিত তেল কিনছে ভারত। আমরা এ ব্যাপারে অবগত। আমরা এতে অবাক হইনি...। বেশি ছাড়ে ভারত যে রাশিয়ার অশোধিত তেল কিনছে, তাতে ওদের বোঝা উচিত যে, এই ছাড়গুলির মূল্য চুকিয়েছে ইউক্রেনিয়ানদের রক্ত।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.