Advertisement
০৬ অক্টোবর ২০২২
Jharkhand

International Tribal Day: মঙ্গল-বুধে ‘জনজাতি মহোৎসব’ পালিত হবে ঝাড়খণ্ডে, রাঁচীর মাঠে জমকালো আয়োজন

৯ অগস্ট অর্থাৎ মঙ্গলবার উৎসবের সূচনা করবেন ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার প্রধান এবং রাজ্যসভার সদস্য শিবু সরেন।

মোরাবাদি মাঠে তৎপরতা তুঙ্গে

মোরাবাদি মাঠে তৎপরতা তুঙ্গে

নিজস্ব সংবাদদাতা
রাঁচী শেষ আপডেট: ০৮ অগস্ট ২০২২ ২৩:০৮
Share: Save:

চলতি বছর বড় করেই বিশ্ব আদিবাসী দিবস পালনের পরিকল্পনা করেছে ঝাড়খণ্ড সরকার। আগামী মঙ্গল ও বুধবার দু’দিন ধরে পালিত হবে ‘জনজাতি মহোৎসব’। সেই মতো রাঁচীর মোরাবাদি মাঠে শেষ পর্যায়ের কাজে জোর তৎপরতা।

৯ অগস্ট অর্থাৎ মঙ্গলবার উৎসবের সূচনা করবেন ঝাড়খণ্ড মুক্তি মোর্চার প্রধান এবং রাজ্যসভার সাংসদ শিবু সরেন। বুধবার সমাপ্তি অনুষ্ঠানে থাকবেন ছত্তীসঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী ভুপেশ বঘেল। দু’দিনব্যাপী ওই অনুষ্ঠানে আদিবাসী সমাজের হয়ে প্রতিনিধিত্ব করা খেলাধুলো, সঙ্গীতশিল্পী মহলের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আদিবাসী শিল্প ও সংস্কৃতিকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে ফ্যাশন শো এবং প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে মোরাবাদি মাঠে। অনুষ্ঠানে বিহু নৃত্য পরিবেশ করবেন অসমের শিল্পী পিন্টু বড়ুয়া ও তাঁর দল। ওড়িশার লোকনৃত্য দারুয়া পরিবেশ করবেন শিল্পী পল্লবী দারুয়া এবং ঈশ্বর দারুয়া। ভিল নাচ পরিবেশন করতে মধ্যপ্রদেশ থেকে আসবে একটি দল। ছত্তীসগঢ়ের কর্ম লোকনৃত্য, অন্ধ্রপ্রদেশের কুম্মুকোয়াও পরিবেশিত হবে অনুষ্ঠানে।

গত বৃহস্পতিবার উৎসবের ‘লোগো’ উন্মোচন করতে এসে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত সরেন বলেন, ‘‘নয়া রাজ্য গঠনের পর এই প্রথম বার বিশ্ব আদিবাসী দিবস উপলক্ষে ৯-১০ অগস্ট একটি জমকালো ঝাড়খণ্ড জনজাতি উৎসবের আয়োজন করা হচ্ছে। ঝাড়খণ্ড ছাড়াও অন্য রাজ্যের আদিবাসী সমাজের প্রতিনিধিরা এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করবেন। আগামী দিনেও এই ধরনের অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে আদিবাসী সমাজকে আরও শক্তিশালী করার চেষ্টা করবে সরকার।’’

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পাশাপাশি ‘রামদয়াল মুণ্ডা ট্রাইবাল ওয়েলফেয়ার রিসার্চ ইনস্টিটিউট’ (যা ট্রাইবাল রিসার্চ ইনস্টিটিউট নামে বেশি পরিচিত)-এ আদিবাসী সমাজের ইতিহাস ও সংস্কৃতি সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে একটি আলোচনাসভারও আয়োজন করা হয়েছে। ‘ট্রাইবাল রিসার্চ ইনস্টিটিউট’-এর ডিরেক্টর রণেন্দ্র কুমার জানান, মঙ্গলবার ও বুধবার মিলিয়ে মোট চারটি আলোচনাসভার আয়োজন করা হয়েছে। ওই আলোচনাসভাগুলিতে বিভিন্ন ক্ষেত্রের সব মিলিয়ে ৪০ জনেরও বেশি বিশেষজ্ঞ বক্তৃতা করবেন। মুখ্যমন্ত্রী হেমন্ত বলেন, ‘‘আদিবাসী সমাজের ইতিহাসের নানা দিকের অন্বেষণ করতে আলোচনাসভারও আয়োজন করা হয়েছে। আদিবাসী সভ্যতা ও সংস্কৃতিকে জাতীয় স্তরে তুলে ধরার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঝাড়খণ্ড সরকার।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.