Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
Madhya Pradesh

পড়ুয়াদের বিনামূল্যে রেশনে কোটি টাকার দুর্নীতি! অভিযুক্ত মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজের অধীন দফতর

উপভোক্তাদের তথ্য বিকৃতি থেকে শুরু করে উৎপাদন, সরবরাহ-সহ গোটা ব্যবস্থাপনার কার্যত সব স্তরেই দুর্নীতির প্রমাণ রাজ্যের অডিট দফতরের ‘গোপন’ রিপোর্টেই ধরা পড়েছে বলে দাবি করল এক সংবাদমাধ্যম।

শিবরাজ সিংহ চৌহান

শিবরাজ সিংহ চৌহান

সংবাদ সংস্থা
ভোপাল শেষ আপডেট: ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২২ ২২:১৭
Share: Save:

Advertisement

স্কুল পড়ুয়াদের জন্য বিনামূল্যে রেশন প্রকল্পে কোটি কোটি টাকার দুর্নীতির অভিযোগ উঠল বিজেপশাসিত মধ্যপ্রদেশে। উপভোক্তাদের তথ্য বিকৃতি থেকে শুরু করে উৎপাদন, সরবরাহ-সহ গোটা ব্যবস্থাপনার কার্যত সব স্তরেই দুর্নীতির প্রমাণ রাজ্যের অডিট দফতরের ‘গোপন’ রিপোর্টেই ধরা পড়েছে বলে দাবি করল সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি। সব চেয়ে বড় ব্যাপার, ওই রেশন প্রকল্পের কাজকর্ম দেখার দায়িত্ব সরকারের যে দফতরের, সেই নারী ও শিশুকল্যাণ দফতর এখন মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহানেরই হাতে। সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে দাবি, ওই রেশন প্রকল্পের আওতাভুক্ত স্কুলছুট মেয়েদের সংখ্যায় বিস্তর গন্ডগোল রয়েছে। শুধু তাই নয়, খাদ্যপণ্য পরিবহণের জন্য ব্যবহৃত ট্রাকও নাকি মোটরসাইকেল, অটো হিসাবে নথিভুক্ত রয়েছে সরকারের খাতায়! যে সব কারখানায় পণ্য প্রক্রিয়াকরণের কাজ হয়, সেখানেও বিপুল পরিমাণ অর্থ নয়ছয় হয়েছে বলে দাবি করা হয়েছে সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে। ওই সংবাদমাধ্যমেরই দাবি, মধ্যপ্রদেশ সরকার এ নিয়ে এখনও কোনও মন্তব্য করেনি।

এনডিটিভির দাবি, মধ্যপ্রদেশের অ্যাকাউন্ট্যান্ট জেনারেলের তৈরি করা ৩৬ পৃষ্ঠার ওই গোপন রিপোর্ট তাদের হাতে এসেছে। সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, স্কুল পড়ুয়াদের জন্য বিনামূল্যে রেশন প্রকল্প চালু করা হয়েছে রাজ্যে। লক্ষ্য— রাজ্যের ৪৯.৫৮ শিশু ও মহিলাকে রেশন দেওয়া। এর মধ্যে রয়েছে ছ’মাস থেকে তিন বছর বয়সি শিশু, যাদের সংখ্যা ৩৪.৬৯ লক্ষ। ১৪.২৫ লক্ষ প্রসূতি এবং সদ্য-মায়েরা এব‌ং ৬৪ হাজার স্কুলছুট মেয়ে। দাবি, এই স্কুলছুটের সংখ্যা অনেক বাড়িয়ে দেখানো হয়েছে। ২০১৮-’১৯ সালে স্কুলশিক্ষা দফতরের রিপোর্টে স্কুলছুট মেয়ের সংখ্যা যেখানে ন’হাজার, সেখানে কোনও সমীক্ষা ছাড়াই নারী ও শিশু কল্যাণ দফতরের রিপোর্টে সেই সংখ্যা ছুঁয়েছে ৩৮.০৮ লক্ষ। সংবাদমাধ্যমের দাবি, এই তথ্য বিকৃতিতেই অন্তত ১১০.৮৩ কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে। প্রসঙ্গত, ২০২০ সালে ইমারতী দেবীর পদত্যাগের পর রাজ্যের নারী ও শিশুকল্যাণ দফতর মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহানেরই হাতে রয়েছে।

শুধু তাই নয়, সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে আরও দাবি, ক্ষমতায় বাইরে গিয়েও বহু কারখানায় খাদ্যপণ্য প্রক্রিয়াকরণের কাজ হয়েছে। অন্তত ৫৮ কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে। মাত্রাতিরিক্ত উৎপাদনের পরেও খাদ্যপণ্যের চাহিদা যেখানে ৯৭ হাজার মেট্রিক টন, সেখানে অঙ্গনওয়াড়িগুলিতে সব মিলিয়ে পৌঁছেছে ৮৬ হাজার মেট্রিক টনের রেশন। বাকি রেশন সামগ্রি, যাঁর আনুমানিক মূল্য প্রায় ৬৩ কোটি টাকা, তার কী হল, উত্তর অজানা।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.