Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

কংগ্রেসকে ব্রাত্য রেখেই উত্তরপ্রদেশে প্রার্থী ঘোষণা মায়া-অখিলেশের

সংবাদ সংস্থা
লখনউ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ ১৯:৫০
মায়াবতী ও অখিলেশ যাদব।—ফাইল চিত্র।

মায়াবতী ও অখিলেশ যাদব।—ফাইল চিত্র।

সমঝোতা হয়ে গিয়েছিল আগেই। এতদিনে প্রার্থী ঘোষণা করল উত্তরপ্রদেশের ‘বুয়া -বাবুয়া জোট’। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের ৮০টি লোকসভা কেন্দ্রের ৩৮টি আসনে প্রার্থী দাঁড় করাবে মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি। অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টি প্রার্থী দেবে ৩৭টি আসনে। জোটের আর এক শরিক রাষ্ট্রীয় লোকদলকে দেওয়া হয়েছে ৩টি আসন। কংগ্রেসের সঙ্গে জোটে যাবেন না বলে আগেই ঘোষণা করেছিলেন মায়াবতী। তবে কথা মতো তাদের রায়বরেলি ও অমেঠি ছেড়ে দিয়েছেন বসপা নেত্রী।

যে ৩৭টি আসনে প্রার্থী দাঁড় করাচ্ছে সমাজবাদী পার্টি, তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল-কৈরানা, মোরাদাবাদ, সম্ভল, কনৌজ, মইনপুরি, ফিরোজাবাদ, বদায়ুঁ, বরেলি, লখনউ, ইটাওয়া, কানপুর, রামপুর, ঝাঁসি, বান্দা, ইলাহাবাদ, কৌসম্বি, ফুলপুর, ফৈজাবাদ, গোণ্ডা, গোরক্ষপুর, আজমগড়, বারাণসী এবং মির্জাপুর। মেরঠ, সাহরানপুর, বিজনৌর, নাগিনা, আলিগড়, আগ্রা, ফতেপুর সিক্রি, ধৌরহরা, সীতাপুর, প্রতাপগড়, কৈসরগঞ্জ, বাস্তি, সালেমপুর, জৌনপুর, ভাদোহি এবং দেওরিয়া গিয়েছে বসপার কাছে।

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে কোণঠাসা করতে, একজোট হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিরোধী দলগুলি। কেন্দ্রে কংগ্রেস নেতৃত্বাধীন বিজেপি বিরোধী জোটে সামিল হতে আপত্তি না থাকলেও, রাজ্যে রাহুল গাঁধীর হাত ধরায় শুরু থেকে আপত্তি তুলেছিলেন বসপা নেত্রী মায়াবতী। পুরনো তিক্ততা ভুলে গতমাসে অখিলেশ যাদবের সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে হাত মেলান বসপা নেত্রী তিনি। তবে সেই জোটে কংগ্রেসের স্থান নেই, এ কথা শুরুতেই জানিয়ে দিয়েছিলেন তিনি। তার পর থেকে সংবাদ মাধ্যমের সামনে একাধিকবার কংগ্রেসের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। সাম্প্রতিক গোহত্যা কাণ্ডে মধ্যপ্রদেশে কমলনাথ সরকারকেও তুলোধোনা করেছেন তিনি। বিজেপি ও কংগ্রেস কেউ কারও চেয়ে কম যায় না, এমনও বলতে শোনা গিয়েছে তাঁকে।

Advertisement

আরও পড়ুন: নির্বাচনের আগে চমক, প্রভিডেন্ট ফান্ডে বাড়ল সুদের হার​

আরও পড়ুন: রাজীব সরলেও বহাল সিবিআই বনাম কলকাতা পুলিশ ‘লড়াই’, ফের সমন​

তবে কংগ্রেসের তরফে এখনও পর্যন্ত মায়াবতীর বিরুদ্ধে কোনও মন্তব্য করা হয়নি। মায়াবতী-অখিলেশ তাদের জোটে সামিল না করায় আসন্ন নির্বাচনে ত্রিমুখী লড়াই হতে চলেছে উত্তরপ্রদেশে। তবে মায়া-অখিলেশ জুটির সঙ্গে তাদের কোনও বিরোধ নেই, বরং বিজেপিকে হারানোই প্রধান লক্ষ্য বলে জানিয়েছে কংগ্রেস। তাদের উচ্চবর্ণের ভোটে ভাগ বসাতে ভোটের ময়দানে নামানো হয়েছে প্রিয়ঙ্কা গাঁধীকে। পূর্ব উত্তরপ্রদেশের দায়িত্ব তুলে দেওয়া হয়েছে তাঁর হাতে, যার মধ্যে রয়েছে উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের গড় গোরক্ষপুর এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী কেন্দ্র বারাণসীও সামিল। রাজ্যের পশ্চিমে যুদ্ধ সাজাতে মধ্যপ্রদেশ থেকে আনা হয়েছে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াকে।

(ভোটের খবর, জোটের খবর, নোটের খবর, লুটের খবর- দেশে যা ঘটছে তার সেরা বাছাই পেতে নজর রাখুন আমাদের দেশ বিভাগে।)

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement