Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

Murder: স্বামীর চাকরি হাতিয়ে প্রেমিকের সঙ্গে জীবন কাটানোর পরিকল্পনা, খুনের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার স্ত্রী

সংবাদ সংস্থা
নাগপুর ০৩ অগস্ট ২০২১ ১৫:১২
গ্রাফিক— শৌভিক দেবনাথ।

গ্রাফিক— শৌভিক দেবনাথ।

মা এবং প্রেমিকের সাহায্যে স্বামীকে খুন করার অভিযোগ উঠল এক যুবতীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্তের স্বামী ওয়েস্টার্ন কোলফিল্ড লিমিটেডের কর্মী ছিলেন। যুবতীকে জেরা করে পুলিশ জানতে পেরেছে, স্বামীকে খুন করে তাঁর চাকরি হাতিয়ে প্রেমিকের সঙ্গে জীবন কাটানোর পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি। খুনের অভিযোগে ওই যুবতী, তাঁর প্রেমিক এবং আরও চার জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ঘটনাটি ঘটেছে মহারাষ্ট্রের চন্দ্রপুর জেলায়।

সম্প্রতি বর্ধা নদীর কাছে সাসতি রোডে এক ব্যক্তির দেহ উদ্ধার হয়। পুলিশ জানতে পারে, মৃত ব্যক্তির নাম মারোতি কাকরে (৩৪)। মৃতের দেহে একাধিক আঘাতের চিহ্ন সন্দেহ বাড়িয়েছিল পুলিশের মনে। তদন্তে নেমে ওই ব্যক্তির মোবাইল ফোনের কল রেকর্ড খতিয়ে দেখে পুলিশ। তার পর কাকরের স্ত্রী এবং অন্য সন্দেহভাজনদের জেরার জন্য তলব করে। জিজ্ঞাসাবাদের সময়ই খুনের বিষয়টি স্পষ্ট হয় পুলিশের কাছে।

Advertisement

পুলিশ জানিয়েছে, কাকরের স্ত্রী প্রজক্তার (২৫) সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল সঞ্জয় টিকলে নামের এক যুবকের। সঞ্জয় প্রজক্তার বোনের দেওর। কাকরে সুরাসক্ত ছিলেন। এ নিয়ে প্রজক্তার সঙ্গে তাঁর ঝগড়াও হত। তাই কাকরকে ছেড়ে সঞ্জয়ের সঙ্গে থাকার পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি। পাশাপাশি তাঁর নজর ছিল কাকরের চাকরির দিকে। সেই উদ্দেশ্যেই প্রেমিক সঞ্জয়ের সাহায্যে নিজের স্বামীকে খুনের পরিকল্পনা করেছিলেন তিনি। এই পরিকল্পনার কথা প্রজক্তার মাও জানতেন বলে অভিযোগ।

পুলিশ জানিয়েছে, কাকরেকে খুনের জন্য সঞ্জয় তাঁর বন্ধু বিকাশ নাগরালের সাহায্য নেন। সম্প্রতি নাগরালে কাকরে ফোন করে মদ খাওয়ার আমন্ত্রণ জানান। কাকরে মত্ত হয়ে গেলে তাঁকে শুনশান জায়গায় নিয়ে যান নাগরালে। সেখানে গিয়ে গলায় ফাঁস লাগানোর পাশাপাশি কাকরের গলায় ব্লেডো চালান নাগরালে। ওই সময়ই সেখানে এক বন্ধুর সঙ্গে এসে পৌঁছন সঞ্জয়। তার পর কাকরের দেহ বর্ধা নদীর কাছে ফেলে দেন। ঘটনার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে অভিযুক্তদের। তাঁদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন ধারায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ।

আরও পড়ুন

Advertisement