Advertisement
১৫ জুলাই ২০২৪
Uttar Pradesh

বিয়ে ভেঙে গিয়েছে বলে হবু শাশুড়িকে খুন, পলাতক অভিযুক্ত তরুণ

পুলিশ সূত্রে খবর, মীনার কন্যার সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয়েছিল সঞ্জীবের। কিন্তু পাকাকথা হয়ে যাওয়ার পর সঞ্জীবের সঙ্গে বিয়ে ভেঙে দেন পাত্রীর পরিবারের সদস্যেরা।

—প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ জানুয়ারি ২০২৪ ১১:৩৮
Share: Save:

বিয়ের কথা পাকা হয়ে গিয়েছে। সমস্ত আয়োজন সেরে শুধু বিয়ের পিঁড়িতে বসার অপেক্ষা। কিন্তু তার আগেই বিয়ে ভেঙে গেল তরুণের। রাগের বশে হবু শাশুড়ি এবং শ্যালককে খুন করে বসলেন তরুণ। ঘটনাটি শুক্রবার রাতে উত্তরপ্রদেশের ইজ্জতনগর থানার কাছে ঘটেছে। অভিযু্ক্তের নাম সঞ্জীব কুমার। উত্তরপ্রদেশের আসিহাবাদ এলাকার বাসিন্দা তিনি। বর্তমানে পলাতক অভিযুক্তকে গ্রেফতারির জন্য তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। ৫৫ বছর বয়সি মীনা এবং তাঁর পুত্র নেত্রাপালকে (২১) খুন করার অভিযোগ উঠেছে সঞ্জীবের বিরুদ্ধে।

পুলিশ সূত্রে খবর, মীনার কন্যার সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয়েছিল সঞ্জীবের। কিন্তু পাকাকথা হয়ে যাওয়ার পর সঞ্জীবের সঙ্গে বিয়ে ভেঙে দেন পাত্রীর পরিবারের সদস্যেরা। অভিযোগ, রাগের বশে মীনা এবং নেত্রাপালকে গুলি করে খুন করেন সঞ্জীব। পুলিশ জানিয়েছে, আহ্লাদপুর পুলিশ পোস্ট থেকে ৫০০ মিটার দূরত্বে দু’জনকে খুন করেন সঞ্জীব।

খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ। কিন্তু খুনের পর ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান সঞ্জীব। মীনার স্বামী ভুপরাম পুলিশের কাছে সঞ্জীবের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। তাঁর অভিযোগের ভিত্তিতে পলাতক অভিযুক্তকে গ্রেফতারির জন্য তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদের সময় ভুপরাম পুলিশকে জানান, সঞ্জীবের সঙ্গে ভুপরাম এবং মীনা তাঁদের কন্যার বিয়ে ঠিক করেছিলেন। কিন্তু সঞ্জীবের আচরণ যে ভাল নয় সে খোঁজ পাওয়ায় তাঁর সঙ্গে নিজেদের কন্যার বিয়ে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন তাঁরা। বিয়ে ভেঙে যাওয়ার খবর পেলে রাগের বশে পাত্রীর মা এবং ভাইকে খুন করে পালিয়ে যান অভিযুক্ত।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Uttar Pradesh Marriage police UP Police
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE