×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৬ মে ২০২১ ই-পেপার

মেয়েদেরই কেন এটা বার বার শুনতে হয়! প্রশ্ন রায়বরেলীর বিধায়কের

সংবাদ সংস্থা
লখনউ ১৯ নভেম্বর ২০১৯ ১৮:৫০
অদিতি সিংহ। ফাইল চিত্র।

অদিতি সিংহ। ফাইল চিত্র।

অদিতি সিংহ। উত্তরপ্রদেশের রায়বরেলীর কংগ্রেস বিধায়ক। আগামী বৃহস্পতিবার বিয়ের পিঁড়িতে বসবেন অদিতি। পাত্রও বিধায়ক। তবে তিনি পঞ্জাব বিধানসভার সদস্য।অদিতির বিয়ের খবর প্রকাশ্যে আসতেই অনেকে প্রশ্ন তুলছিলেন, এর পর বিধায়ক কী ভাবে সামলাবেন তাঁর দায়-দায়িত্ব? মঙ্গলবার তারই জবাব বেশ সপাটেই দিয়েছেন তিনি। পাল্টা প্রশ্নও তুললেন, কেন মেয়েদের বার বার এমন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়?

বিয়ের অনুষ্ঠান হবে নয়াদিল্লিতে। পাত্র অঙ্গদ সিংহ সাইনি পঞ্জাবের নওয়ানশহর বিধায়ক। প্রশ্ন ওঠে, রায়বরেলী থেকে নওয়ানশহরের দূরত্ব সড়ক পথে প্রায় ৯৫০ কিলোমিটার। বিয়ের পর কী ভাবে তিনি দু’দিক একসঙ্গে সামলাবেন? এ দিন অদিতি বলেন, ‘‘মেয়েদেরই বার বার এমন প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়। যাঁরা এ প্রশ্ন করেন, তাঁরা জানেন না, মেয়েরা সংসার আর কর্মক্ষেত্র, দুই-ই একসঙ্গে সামলাতে দক্ষ।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘পঞ্জাবে শ্বশুরবাড়ি হলেও আমি কিন্তু রায়বরেলীর মেয়ে। দায়িত্ব আমি ঠিক ভাবেই পালন করব। মেয়েদের এমন প্রশ্ন বার বার করাটা বন্ধ হওয়া উচিত।’’

ভবিষ্যতৎ জীবন নিয়ে অদিতির বক্তব্য, “আমরা পরস্পরকে আগে থেকেই চিনি এবং দু’জনেই যেহেতু একই রাজনৈতিক দলের, তাই কোথাও কোনও সমস্যা হবে না। অঙ্গদ খুবই ভাল মানুষ। আমাকে তো বটেই, আমার কাজকেওও সম্মান করে।”

Advertisement

আরও পড়ুন: ছেলে হয়নি বলে তিন তালাক! স্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের মহিলার

অদিতির বয়স ৩১। উত্তরপ্রদেশ বিধানসভায় কনিষ্ঠতম বিধায়কদের মধ্যে তিনি অন্যতম। ২০১৭-রবিধানসভা নির্বাচনে তিনি প্রায় ৯০ হাজার ভোটে জিতে ছিলেন।

আরও পড়ুন: টোম্যাটোর গয়না পরে বিয়ের সাজে পাকিস্তানি যুবতী!

Advertisement