×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

কথা না শুনলে বাঁশপেটা করুন, দাওয়াই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজের

সংবাদ সংস্থা
বেগুসরাই ০৭ মার্চ ২০২১ ১৪:৪৮


ছবি: সংগৃহীত।

সরকারি আধিকারিক বা মন্ত্রী, অভাব-অভিযোগের কথা না শুনলে বাঁশপেটা করুন। বিহারে নিজের রাজ্যের বাসিন্দাদের এই পরামর্শই দিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী গিরিরাজ সিংহ। এই ঘটনায় বিহারের বিজেপি অস্বস্তিতে পড়লেও দলের দাবি, গিরিরাজের কথা আক্ষরিক অর্থে নেওয়া উচিত হবে না। গিরিরাজের এই উক্তি নিয়ে বিশেষ কিছু না বললেও ইঙ্গিতপূর্ণ উক্তি বিহারে বিজেপি-র শরিক সংযুক্ত জনতা দল (আজেডি)-এর নেতা তথা মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের। তিনি বলেছেন, ‘‘এ বিষয়ে ওঁকেই (গিরিরাজ সিংহকে) জিজ্ঞাসা করা উচিত!’’ পরে অবশ্য নীতীশের মন্তব্য, ‘‘পেটানোর মতো কথা বলা কি উচিত? ওঁকেই জিজ্ঞাসা করুন না!’’

শনিবার নিজের লোকসভা কেন্দ্র বেগুসরাইয়ের কাছে একটি অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন কেন্দ্রীয় পশুপালন, ডেয়ারি ও মৎস্যচাষ মন্ত্রী গিরিরাজ। সেখানকার সভামঞ্চে আম জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘‘ছোটখাটো অভিযোগের জন্য আমার কাছে আসা কেন? বিধায়ক, সাংসদ, গ্রামপ্রধান, জেলাশাসক, বিডিও... এঁরা সকলেই আপনাদের সেবা করার জন্য রয়েছেন। তাঁরা যদি আপনাদের কথা না শোনেন, তবে দু’হাতে বাঁশ তুলে নিন, তার পর তাঁদের মাথায় জোরে মারুন।’’ গিরিরাজের গোটা ভাষণই ক্যামেরাবন্দি হচ্ছিল। তবে সে সবেই কোনও পরোয়াই করেননি তিনি।

গিরিরাজের দাবি, তাঁর কাছে এলাকার অনেকেই অভিযোগ করেন যে সরকারি আধিকারিকেরা তাঁদের সমস্যা নিয়ে মাথা ঘামান না। সে কারণেই এই দাওয়াই কি না, তা খোলসা না করলেও গিরিরাজ বলেছেন, ‘‘বাঁশপেটাতে কাজ না হলে গিরিরাজ আপনাদের পাশে থাকবে, এটা মনে রাখবেন।’’

Advertisement

গিরিরাজের এ ধরনের উস্কানিমূলক উক্তির পর তা নিয়ে সমালোচনা শুরু হয়েছে। তবে এই কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর সমর্থনে এগিয়ে এসেছে বিহার বিজেপি। নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক পটনার এক বিজেপি নেতা বলেন, ‘‘গিরিরাজ জননেতা। সাধারণ মানুষের ক্ষোভের জন্য তাঁকে তো কিছু বলতেই হত। তাঁর কথার অন্তর্নিহিত অর্থ বোঝা উচিত। গিরিরাজের মন্তব্যকে আক্ষরিক অর্থে ধরা উচিত নয়।’’

Advertisement