Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
National News

দেশের কোনও মুসলমানকে তাড়াতে এই আইন নয়, বললেন মোদী

এই আইনে অনুপ্রবেশকারীরা ভয় পাচ্ছে, দিল্লির জনসভায় দাবি মোদীর।

ছবি: টুইটার।

ছবি: টুইটার।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২২ ডিসেম্বর ২০১৯ ১৩:২৯
Share: Save:

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ)-এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ-হিংসায় উত্তপ্ত দরিয়াগঞ্জের থেকে মাত্র এক কিলোমিটার দূরে রামলীলা ময়দান। রবিরার দুপুরে সেখান থেকেই দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রচার শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তবে বিজেপির জনসভার সেই মঞ্চ কার্যত হয়ে উঠল সিএএ এবং এনআরসি নিয়ে দেশবাসীর উদ্দেশে মোদীর ভাষণ। দেশবাসীকে ওই দুই আইন নিয়ে আশ্বস্ত করার পাশাপাশি বিরোধীদের আক্রমণ করলেন প্রধানমন্ত্রী।

Advertisement

এক নজরে কী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বক্তব্য:

Advertisement

• যত আমাকে ঘৃণা করবেন, ভারতবাসী তত আমাকে ভালবাসবেন।

• বিরোধীদের টেপ রেকর্ড শুনবেন না, তাদের ট্র্যাক রেকর্ড দেখুন।

• মুসলিম দেশগুলির সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের উন্নতি কংগ্রেস আর তার শরিকেরা হজম করতে পারছে না।

• বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্কের উন্নতি হয়েছে।

• ইসলামিক বিশ্বে এখনও বাত্য পাকিস্তান।

• শরণার্থীদের সাহায্যের কথা বলতেন প্রকাশ কারাট।

• কিছু মানুষ বলছেন, তাঁদের রাজ্যে এই আইন চালু করবেন না। আপনারা তো মুখ্যমন্ত্রী, আইন জানা মানুষদের সঙ্গে কথাবার্তা বলে এ কথা বলুন।

• আপনি কাদের বিরোধিতা করছেন, কাদের সমর্থন করছেন, সেটা গোটা দেশ দেখছে মমতা দিদি? হঠাৎ বদলে গেলেন কেন?

• শরণার্থীদের নাগরিকত্বের কথা বলতেন মমতা দিদি।

• মমতা দিদি, বাংলার নাগরিকদের উপর থেকে আপনার ভরসা উঠে গিয়েছে?

• মমতা দিদি, আপনার হঠাৎ কী হল?

• মমতা দিদি এখন সোজা কলকাতা থেকে রাষ্ট্রপুঞ্জে পৌঁছে গিয়েছেন।

• মমতা দিদি কয়েক দিন আগেই সংসদে বলতেন, অনুপ্রবেশকারীদের আটকানোর কথা বলতেন।

• এই আইনে অনুপ্রবেশকারীরা ভয় পাচ্ছে।

• এই আইন সেই শরণার্থীদের জন্য যাঁরা বহু বছর এ দেশে রয়েছেন।

• সিএএ কারও নাগরিকত্ব ছিনিয়ে নেওয়ার জন্য নয়।

• শরণার্থীরা পাকিস্তান, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান ছাড়তে বাধ্য হয়েছেন।

• আমরা শরণার্থীদের সাহায্য় করছি।

• বিরোধীদের বলছি, দলিতদের জন্য মোদী যখন কাজ করে, আপনার তখন কষ্ট পাচ্ছেন?

• পড়শি দেশে যাঁরা ধর্মের কারণে পীড়িত, তাঁদের সাহায্য করা হবে।

• মিথ্যার কারবারীদের চিনে নিতে হবে।

• বিরোধীদের রাজনীতি কেমন, তা দেশ বুঝে গিয়েছে।

• যে মানুষেরা আফগানিস্তান, বাংলাদেশ ও পাকিস্তানে ধর্মের কারণে প্রতারিত, সেই শরণার্থীদের জন্য সিএএ।

• কিছু মানুষ সিএএ-কে গরিবের বিরুদ্ধে তৈরি করা আইন বলছেন।

• দেশের কোনও মুসলমানকে ডিটেনশন শিবিরে পাঠানো হচ্ছে না।

• আমরা তো এনআরসি তৈরিই করিনি।

• সকলকে অনুরোধ করব, কংগ্রেস আর শহুরে নকশালরা ডিটেনশন শিবির নিয়ে যা বলছেন, তা মিথ্যে কথা।

• কিছু শিক্ষিত শহুরে নকশাল ভুল বোঝাচ্ছেন, সকলকে ডিটেনশন শিবিরে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

• এনআরসি হওয়ার সময় কংগ্রেস ঘুমোচ্ছিল।

• সিএএ ভারতের কোনও নাগরিক, তা তিনি হিন্দু হোক বা মুসলমান, তাঁদের জন্য নয়। এতে দেশের ১৩০ কোটির কোনও নাগরিকের উপর প্রভাব পড়বে না।

• কংগ্রেসের মতো বিভাজনের রাজনীতি করিনি।

• মোদীর মূর্তি পোড়ান, দেশের সম্পত্তি নষ্ট করবেন না।

• মানুষ এই মিথ্যা মেনে নেবে না।

• কিছু রাজনৈতিক দল গুজব ছড়াচ্ছে।

• সিএএ পাশের পর থেকে গুজব ছড়ানো হচ্ছে।

• আমরা সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন পাশ করেছি। এর জন্য উঠে দাঁড়িয়ে সংসদকে সম্মান করুন।

• মিথ্যা ভিডিয়ো ছড়িয়ে দিল্লিতে গন্ডগোল ছড়ানোর চেষ্টা হয়েছে।

• দিল্লিবাসীকে মিথ্যে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল।

• আমরা দিল্লিবাসীর প্রতিশ্রুতি পূরণ করেছি।

• দিল্লি মেট্রোর চতুর্থ পর্যায়ের কাজ অকারণে আটকে রাখা হয়েছে।

• দিল্লি মেট্রোর জন্য আগের সরকার কিছু করেনি।

• বাধা সত্ত্বেও আমরা দিল্লি মেট্রোর নেটওয়ার্কের সম্প্রসারণ হয়েছে।

• ওঁরা ভিভিআইপি-দের কথা ভেবেছে, আমার ভিভিআইপি তো আপনারাই।

• দিল্লিবাসীর জীবনে বাধা দূর হোক, এটা কেন্দ্র সরকারের প্রধান লক্ষ্য।

• ওই বিল পাশ হওয়ায় দিল্লির ১৭৩১ কলোনির মানুষ জমির মালিকানা পেয়েছেন।

• লোকসভা ও রাজ্যসভা— দুই কক্ষেই দিল্লির কলোনি নিয়ে বিল পাশ হয়েছে।

• ভুয়ো প্রতিশ্রুতির ফলে স্বাধীনতার বহু বছর পরে ভুগতে হয়েছে দিল্লিবাসীকে।

• দিল্লির ৪০ লক্ষের বেশি মানুষকে জমির মালিকানা দেওয়া হয়েছে।

• দিল্লির ৪০ লক্ষের বেশি মানুষের জীবনে এক নতুন অধ্যায় এসেছে।

• মঞ্চে উপস্থিত হলেন নরেন্দ্র মোদী।

জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) এবং সিএএ নিয়ে দেশ জুড়ে বিক্ষোভের মুখে পড়েছে মোদী সরকার। বিক্ষোভ-মিছিল ঘিরে হিংসায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে উত্তরপ্রদেশ থেকে দিল্লি দরিয়াগঞ্জ। উত্তরপ্রদেশে হিংসার জেরে নিহত হয়েছেন ১৬ জন। এই আবহে এ দিনের নির্বাচনী জনসভায় প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের দিকে নজর রয়েছে রাজনৈতিক মহলের।

রাজনৈতিক মহলের মতে, নির্বাচনী জনসভা হলেও একে ঘিরে মোদী সরকারের পক্ষে জনশক্তির প্রদর্শন করাই বিজেপি শিবিরের লক্ষ্য। বিশেষ করে এনআরসি এবং সিএএ নিয়ে যে ভাবে দেশজোড়া বিক্ষোভের মুখে পড়েছে বিজেপি সরকার, তাতে প্রধানমন্ত্রীর এই জনসভা আলাদা গুরুত্ব পাচ্ছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.