×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৩ জুন ২০২১ ই-পেপার

ছিনতাই হওয়া পুলিশের একে-৪৭ উদ্ধার হল বিকাশ দুবের বাড়ি থেকে, গ্রেফতার আরও এক

সংবাদ সংস্থা
কানপুর ১৪ জুলাই ২০২০ ১৬:৫৬
নিহত গ্যাং‌স্টারের বাড়ি থেকে উদ্ধার একে-৪৭। —ফাইল চিত্র।

নিহত গ্যাং‌স্টারের বাড়ি থেকে উদ্ধার একে-৪৭। —ফাইল চিত্র।

পুলিশি সংঘর্ষে নিহত গ্যাংস্টার বিকাশ দুবের বাড়িতে হানা দিয়ে এ বার একে-৪৭ রাইফেল উদ্ধার করল পুলিশ। গত ৩ জুলাই বিকাশ ও তাঁর সঙ্গীরা মিলে ৮ পুলিশকর্মীকে খুন করে একে-৪৭ রাইফেলটি হাতিয়ে নিয়েছিল বলে জানা গিয়েছে। মঙ্গলবার বিকরু গ্রামে বিকাশের বাড়ি থেকেই সেটি উদ্ধার হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। বিকাশের এক সহযোগীকেও এ দিন গ্রেফতার করেছে পুলিশ

গত ১০ জুলাই পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে মৃত্যু হয় বিকাশ দুবের। তার সহযোগী শশীকান্তের খোঁজে এ দিন ফের বিকরু গ্রামে হানা দেয় রাজ্য পুলিশের একটি বাহিনী। তল্লাশি চালানোর পর বিকাশের বাড়ির ধ্বংসস্তূপ থেকে একে-৪৭টি উদ্ধার করে তারা। বিকাশের বাড়ি থেকে অনতিদূরে নিজের বাড়িতে ঘাপটি মেরে ছিল শশীকান্ত। তাকেও গ্রেফতার করে পুলিশ। তার কাছ থেকে একটি ইনসাস রাইফেল উদ্ধার হয়।

পুলিশকর্মীর খুনে যে বিকাশ ছাড়াও ২১ জনের নাম উঠে এসেছিল তার মধ্যে অন্যতম শশীকান্ত। তার মাথার দাম রাখা হয়েছিল ৫৫ হাজার টাকা। উত্তরপ্রদেশ পুলিশের এডিজি প্রশান্তকুমার এ দিন সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, ‘‘গ্যাংস্টার বিকাশের বাড়ি থেকে একে-৪৭টি উদ্ধার হয়েছে। তার সহযোগীর বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে একটি ইনসাস রাইফেল। জেরায় পুলিশ খুনের ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে সে।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: প্রদেশ সভাপতি ও উপমুখ্যমন্ত্রীর পদ থেকে সচিন পাইলটকে সরিয়ে দিল কংগ্রেস​

আরও পড়ুন: বিধায়ক আত্মঘাতী, ইঙ্গিত পোস্টমর্টেমে, জানালেন স্বরাষ্ট্রসচিব​

এর আগে, গত সপ্তাহে বিকাশ দুবের বাড়িটি ভেঙে দেয় রাজ্য পুলিশ। সেইসময়ও প্রচুর অস্ত্রশস্ত্র উদ্ধার হয়েছিল সেখান থেকে। নিহত পুলিশকর্মীদের কাছ থেকে লুঠ করা অস্ত্রশস্ত্রও পাওয়া গিয়েছিল। নিহতদের ময়নাতদন্ত করে জানা যায়, ধারাল অস্ত্র এবং বন্দুকের সাহায্যেই ওই ৮ পুলিশকর্মীকে খুন করে বিকাশের লোকজন। এলাকার সার্কল অফিসার দেবেন্দ্র মিশ্রকে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করা হয়েছিল। মোট চার বার গুলি করা হয়েছিল তাঁকে।

পুলিশকর্মী খুনের ঘটনায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে বিকাশ দুবে ও তাঁর পাঁচ সহযোগীর মৃত্যু হয়েছে। আরও পাঁচ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। অভিযুক্তদের মধ্যে এখনও ১১ জনের নাগাল পাওয়া যায়নি।

Advertisement