Advertisement
২৩ জুন ২০২৪
Jammu and Kashmir

ভোটের আবহে কাশ্মীরে একই দিনে জোড়া জঙ্গি হামলা, নিহত এক, আহত দুই

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, জঙ্গিরা অনন্তনাগের ইয়ান্নার এলাকায় এক জন মহিলা ও তাঁর স্বামীকে গুলি করে। আহতদের নাম ফারহা ও তাবরেজ়। তাঁরা রাজস্থানের জয়পুরের বাসিন্দা।

ছবি: পিটিআই।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৯ মে ২০২৪ ০১:২৬
Share: Save:

দু’টি পৃথক জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটল কাশ্মীরে। দক্ষিণ কাশ্মীরের অনন্তনাগে জঙ্গি হামলায় এক পর্যটক দম্পতি গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন। শনিবার ঘটনাটি ঘটেছে পহেলগাঁওয়ের কাছে। একই দিনে, আরও একটি জঙ্গি হামলায় স্থানীয় এক রাজনৈতিক নেতা শোপিয়ানের হুরপোরা এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গিয়েছেন বলে খবর।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, জঙ্গিরা অনন্তনাগের ইয়ান্নার এলাকায় এক জন মহিলা ও তাঁর স্বামীকে গুলি করে। আহতদের নাম ফারহা ও তাবরেজ়। তাঁরা রাজস্থানের জয়পুরের বাসিন্দা। আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নিয়ে যাওয়া হয়।

জঙ্গি হামলায় এক পর্যটক দম্পতি গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন।

জঙ্গি হামলায় এক পর্যটক দম্পতি গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন। ছবি: পিটিআই।

যে জায়গাটিতে ঘটনাটি ঘটেছে সেটি পুলিশ এবং নিরাপত্তা বাহিনী ঘেরাও করে রাখে। পুলিশ সূত্রে খবর, এই হামলার এক ঘণ্টা আগে আরও একটি জঙ্গি হামলায় আজাজ় আহমেদ শেখ নামে এক ব্যক্তি শোপিয়ানের হুরপোরা এলাকায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গিয়েছেন। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে, আজাজ় ছিলেন ওই এলাকার স্থানীয় নেতা এবং তিনি বিজেপির সঙ্গেও যুক্ত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, আগামী ২৫ মে অনন্তনাগ-রাজৌরি আসনে লোকসভা নির্বাচন। তার আগে এই জঙ্গি হামলার ঘটনা নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতর। একই সঙ্গে, কাশ্মীরে পর্যটকদের নিরাপত্তা নিয়েও ফের প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

উল্লেখ্য, ৫ মে শনিবার জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চে বায়ুসেনার গাড়িতে হামলার ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল এক জওয়ানের। হামলায় গুরুতর জখম হয়েছিলেন তিনি। হাসপাতালে চিকিৎসা চলাকালীন তাঁর মৃত্যু হয়। পাশাপাশি, বায়ুসেনার আরও চার জওয়ান ওই হামলায় জখম হন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE