Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Facebook

ফেসবুককে তলব সংসদীয় স্থায়ী কমিটির

মার্কিন সংবাদপত্রের তোলা অভিযোগের ভিত্তিতে জবাবদিহি চাইতে ফেসবুকের ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে সেখানে ডাকা হবে। 

প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ২১ অগস্ট ২০২০ ০২:৪৯
Share: Save:

ব্যবসায়িক স্বার্থে ভারতে বিজেপি নেতাদের হিংসাত্মক ও উস্কানিমূলক পোস্ট নিয়ে হাত গুটিয়ে থাকায় ফেসবুকের ভারতীয় শাখার জবাবদিহি চাইল তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। এ জন্য তাঁদের তলব করেছে শশী তারুররে নেতৃত্বে কমিটি। লোকসভার সচিবালয় বৃহস্পতিবার জানিয়েছে, ২ সেপ্টেম্বর বৈঠকে বসছে এই স্থায়ী কমিটি।

মার্কিন সংবাদপত্রের তোলা অভিযোগের ভিত্তিতে জবাবদিহি চাইতে ফেসবুকের ভারতীয় কর্তৃপক্ষকে সেখানে ডাকা হবে।

একটি প্রতিবেদনে মার্কিন সংবাদপত্র ‘ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল’ দেখিয়েছিল, ফেসবুকের এক ভারতীয় কর্মকর্তা আঁখি দাস কী ভাবে পোস্টের উপরে নজরদারি করা কর্মীদের বলেছিলেন একটি সম্প্রদায়কে খুনের হুমকি দেওয়া ও তাদের উপাসনালয় জ্বালিয়ে দেওয়ার উস্কানিমূলক পোস্টও না-সরাতে। এক বিজেপি নেতা সেই পোস্ট দিয়েছিলেন। এই নির্দেশের কারণ হিসেবে ওই কর্মকর্তা ভারতে ফেসবুকের ব্যবসায়িক স্বার্থ ক্ষুণ্ণ হওয়ার আশঙ্কার যুক্তি দিয়েছিলেন। সংবাদটি প্রকাশের পরে রাহুল গাঁধী ও অন্য বিরোধী নেতারা বিজেপিকে কোণঠাসা করে ফেলে। যৌথ সংসদীয় দলের তদন্ত দাবি করে সিপিএম। তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান শশী তারুর একটি প্রশ্নের উত্তরে জানান, এ বিষয়ে জবাবদিহির জন্য তাঁরা ফেসবুককে তলব করতে পারেন।

কিন্তু তাঁর এই মন্তব্যকে হাতিয়ার করেই বিজেপি পাল্টা আক্রমণে গিয়ে নিশানা করে ফেলেছে কংগ্রেস সাংসদ তারুরকে। বুধবার তাঁর বিরুদ্ধে অধিকার ভঙ্গের প্রস্তাব এনেছিলেন স্থায়ী কমিটির বিজেপি সদস্য নিশিকান্ত দুবে। তাঁর অভিযোগ, সংসদীয় কমিটির সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা না-করে কোনও সিদ্ধান্তের কথা চেয়ারম্যান জানালে তা সংসদের স্পষ্ট অবমাননা। তারুরের কঠিন কঠিন ইংরেজি শব্দ প্রয়োগের অভ্যাস, তাঁর ‘সাহেবি’ বাচনভঙ্গি নিয়ে ব্যক্তিগত আক্রমণও করেন। অভিযোগ করেন, রাহুলকে তুষ্ট করতেই সংসদীয় স্থায়ী কমিটিকে ব্যবহার করতে চাইছেন তিনি। এর পরে এ দিন ‘অন্যায্য আক্রমণ করে ফেসবুকে পোস্ট দেওয়া’-য় নিশিকান্তের বিরুদ্ধে অধিকার ভঙ্গের প্রস্তাব আনেন তারুরও। বিজেপি বুঝে যায়, মূল বিষয় থেকে নজর সরানোর কৌশল কাজে লেগেছে। এর পরে তাই ‘সংসদের মর্যাদা লঙ্ঘন’-এর অভিযোগে কংগ্রেসের বিরুদ্ধে সমবেত আক্রমণের পাশাপাশি নিশিকান্ত দ্বারস্থ হলেন স্পিকার ওম বিড়লার। তাঁকে চিঠি লিখে দাবি করলেন, এখনই স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যানের পদ থেকে তারুরকে সরানো হোক। কারণ, তিনি নিয়ম ভেঙে কমিটিতে আলোচনা ছাড়াই সিন্ধান্ত ঘোষণা করেছেন। তাঁর সমর্থনে স্পিকারকে চিঠি দেন আর এক বিজেপি সাংসদ রাজ্যবর্ধন রাঠৌরও। তাঁরও দাবি— তারুর নিয়ম ভেঙে কমিটির সিদ্ধান্তের কথা বাইরে ঘোষণা করায় তাঁকে সংসদীয় কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব থেকে সরানো হোক। এ সবের মধ্যেই রাতে লোকসভা সচিবালয়ের ঘোষণা, ২ তারিখে ফেসবুক কর্তৃপক্ষকে তলব করেছে স্থায়ী কমিটি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE