Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

ফের বিতর্ক প্রজ্ঞার ‘তুকতাক’ মন্তব্য নিয়ে

সংবাদ সংস্থা
ভোপাল ২৭ অগস্ট ২০১৯ ০৩:৪৪
জেটলি ও গৌড়ের স্মরণসভায় সাধ্বী প্রজ্ঞা। ছবি: পিটিআই

জেটলি ও গৌড়ের স্মরণসভায় সাধ্বী প্রজ্ঞা। ছবি: পিটিআই

বিজেপির ক্ষতি করতে বিরোধীরা ‘মারক শক্তি’(তুকতাক) প্রয়োগ করছে বলে মন্তব্য করলেন ভোপালের বিজেপি সাংসদ সাধ্বী প্রজ্ঞা সিংহ ঠাকুর। তাঁর মতে, অল্প কয়েক দিনের মধ্যে বিজেপির একাধিক নেতার প্রয়াণের পিছনে ওই ‘অশুভ শক্তি’-র প্রভাব রয়েছে। প্রজ্ঞার ওই মন্তব্যে বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

চলতি মাসে প্রয়াত হয়েছেন দুই প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী সুষমা স্বরাজ, অরুণ জেটলি এবং মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বাবুলাল গৌড়। আজ জেটলি ও গৌড়ের স্মরণসভায় তাঁদের প্রয়াণের জন্য বিরোধীদের কাঠগড়ায় তুলেছেন সাধ্বী প্রজ্ঞা। তিনি বলেন, ‘‘লোকসভা নির্বাচনে যখন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলাম, তখন এক মহারাজ বলেছিলেন, আমাদের জন্য খারাপ সময় এসেছে। বিরোধীরা বিজেপির বিরুদ্ধে তুকতাক করছে। ওই কথা ভুলে গিয়েছিলাম। কিন্তু এখন যখন আমাদের একের পর এক নেতা প্রয়াত হচ্ছেন, তখন ভাবতে বাধ্য হচ্ছি, তা হলে কি মহারাজ’জির কথাই ঠিক?’’ একই সঙ্গে ভোপালের সাংসদের মন্তব্য, ‘‘নেতারা অকালে চলে যাচ্ছেন। আপনারা আমার কথা বিশ্বাস করতে পারেন, না-ও করতে পারেন। কিন্তু সত্য পাল্টাবে না।’’

দলের প্রথম সারির নেতানেত্রীদের প্রয়াণের জন্য প্রজ্ঞা যখন বিরোধীদের কাঠগড়ায় তুলছেন, তখন মঞ্চে উপস্থিত বিজেপির সাধারণ সম্পাদক কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মধ্যপ্রদেশ বিধানসভার বিরোধী দলনেতা গোপাল ভার্গবের মতো নেতারা। ভার্গব অবশ্য বিতর্কের ধারকাছ দিয়েও যাননি। ‘‘প্রত্যেকের নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে’’— বলে দায় এড়িয়েছেন তিনি।

Advertisement

প্রজ্ঞার সমালোচনা করে প্রবীণ কংগ্রেস নেতা দিগ্বিজয় সিংহের ছেলে তথা মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রী জয়বর্ধন সিংহ বলেন, ‘‘বিরোধীরা ‘ব্ল্যাক ম্যাজিক’ করছেন এমন অভিযোগ দুর্ভাগ্যজনক। ওই মন্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে।’’

সাধ্বী প্রজ্ঞার এই ধরনের মন্তব্য অবশ্য নতুন নয়। এর আগে গাঁধী- হত্যাকারী নাথুরাম গডসেকে ‘দেশপ্রেমিক’ বলে বিতর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। বলেছিলেন, ‘‘নাথুরাম গডসে দেশপ্রেমিক ছিলেন, দেশপ্রেমিক আছেন এবং দেশপ্রেমিক থাকবেন। যাঁরা তাঁকে সন্ত্রাসবাদী বলেন, তাঁদের নিজেদের নিয়ে ভাবা উচিত।’’ ২৬/১১-র মুম্বই জঙ্গি হামলায় নিহত হয়েছিলেন মুম্বই পুলিশের তৎকালীন অ্যান্টি টেররিস্ট স্কোয়াডের প্রধান হেমন্ত করকরে। মালেগাঁও বিস্ফোরণের তদন্তের দায়িত্বে ছিলেন তিনি, যে নাশকতায় অভিযুক্ত ছিলেন প্রজ্ঞা। সম্প্রতি তিনি বলেন, ‘‘উনি (করকরে) দেশদ্রোহী, ধর্মবিরোধী। আমি বলেছিলাম, তোর সর্বনাশ হবে। তার সোয়া এক মাসের মধ্যেই জঙ্গিরা তাকে হত্যা করেছিল।’’

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement