Advertisement
২১ জুলাই ২০২৪
EVM Hacking

লোকসভা ভোট মেটার পরে ফের বিতর্কে ইভিএম, মাস্কের টুইটের পরেই মুখ খুলল বিজেপি, কংগ্রেস

রবিবার নিজের এক্স হ্যান্ডলে টেসলা কর্তা মাস্ক লেখেন, “আমাদের ইভিএম ত্যাগ করা উচিত। কারণ মানুষ কিংবা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই)-র দ্বারা এটিকে প্রভাবিত (হ্যাক) করার সম্ভাবনা বেশি।”

Rahul Gandhi and Akhilesh Yadav joins EVM debate after Elon Musk flags hacking risk

(বাঁ দিক থেকে) রাজীব চন্দ্রশেখর, ইলন মাস্ক এবং রাহুল গান্ধী। গ্রাফিক: সনৎ সিংহ।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৬ জুন ২০২৪ ১৭:২১
Share: Save:

লোকসভা ভোট মেটার দু’সপ্তাহ পরেও ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনস বা ইভিএম নিয়ে বিতর্ক অব্যাহত রইল। সৌজন্যে টেসলা কর্তা ইলন মাস্কের একটি টুইট। আর এই টুইটকে কেন্দ্র করেই বিতর্কে জড়িয়ে পড়ল শাসক বিজেপি এবং বিরোধী কংগ্রেস এবং সমাজবাদী পার্টি (এসপি)।

রবিবার সকালে নিজের এক্স (সাবেক টুইটার) হ্যান্ডলে একটি টুইট করেন মাস্ক। সেখানে এক্স-কর্তা মাস্ক লেখেন, “আমাদের ইভিএম ত্যাগ করা উচিত। কারণ মানুষ কিংবা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা (এআই)-র দ্বারা এটিকে প্রভাবিত (হ্যাক) করার সম্ভাবনা বেশি।” মাস্কের এই পোস্টের প্রেক্ষাপটে রয়েছে অবশ্য উত্তর আমেরিকা মহাদেশের একটি দেশ পুয়ের্তো রিকোয় ভোটপ্রক্রিয়ায় কারচুপির অভিযোগ সংক্রান্ত বিতর্ক। সংবাদ সংস্থা এপির প্রতিবেদন অনুযায়ী, সে দেশে ইভিএমের মাধ্যমে হওয়া ভোটে একশোর বেশি কারচুপি ধরা পড়েছে। পরে নাকি ব্যালটে ভোটগ্রহণের মাধ্যমে সেই অনিয়ম সংশোধন করা হয়। আর এই ঘটনাটির প্রসঙ্গ উল্লেখ করে এবং স্বচ্ছ নির্বাচনের প্রতিশ্রুতি দিয়ে এক্সে পোস্ট করেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নির্দল প্রার্থী রবার্ট এফ কেনেডি জুনিয়র।

কেনেডির সেই পোস্ট শেয়ার করেই ওই মন্তব্য করেন মাস্ক। কিন্তু মাস্কের ইভিএম-বিরোধী পোস্টের বিরোধিতা করে পাল্টা টুইট করেন বিজেপি নেতা তথা প্রাক্তন ইলেকট্রনিক এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী রাজীব চন্দ্রশেখর। তাঁর বক্তব্য, মাস্ক সরলীকৃত ধারণার উপরে ভিত্তি করে বক্তব্য রেখেছেন। চন্দ্রশেখরের কথায়, “একটা সরলীকৃত ধারণা রয়েছে যে, কেউ সুরক্ষিত ডিজিটাল হার্ডঅয়্যার বানাতে পারবে না। ভুল। আমেরিকা কিংবা অন্য জায়গায় যে ইন্টারনেট নিয়ন্ত্রিত ভোটিং মেশিনে সাধারণ যন্ত্রাংশ ব্যবহার করা হয়, সেখানে মাস্কের ওই বক্তব্য প্রযোজ্য হতে পারে।” মাস্কের টুইটটি শেয়ার করে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দাবি করেন, ব্লু টুথ, ইন্টারনেট, ওয়াইফাই কোনও কিছু দিয়েই ইভিএমকে হ্যাক করা যায় না। চন্দ্রশেখরের টুইটের নীচে মাস্কের মন্তব্য, “যে কোনও কিছুই হ্যাক করা যেতে পারে।”

ইভিএমের মাধ্যমে হওয়া ভোটপ্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা নিয়ে আগেও প্রশ্ন তুলেছে দেশের বিরোধী দলগুলি। রবিবার মাস্কের পোস্টের পরেই এই নিয়ে নিজের এক্স হ্যান্ডলে একটি পোস্ট করেন রাহুল গান্ধী। তিনি লেখেন, “ইভিএম ভারতের ব্ল্যাক বক্স। কেউ সেটিকে পরীক্ষা করে দেখতে পারে না। আমাদের নির্বাচনী প্রক্রিয়া নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু প্রশ্ন উঠেছে।” মুম্বই উত্তর-পশ্চিম লোকসভা কেন্দ্রের জয়ী প্রার্থী বিজেপির রবীন্দ্র ওয়েইকরের শ্যালক মঙ্গেশ পান্ডিলকরের বিরুদ্ধে নিয়ম ভেঙে ফোন নিয়ে গণনাকেন্দ্রে ঢোকার অভিযোগ রয়েছে। তা-ও যে সে ফোন নয়! অভিযোগ, ইভিএমকে ‘আনলক’ করার জন্য যে ওটিপি লাগে, তা তৈরি করতে পারে এমন ফোন নিয়ে ঢুকেছিলেন মঙ্গেশ। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে। রাহুল অবশ্য নিজের টুইটে এই সংক্রান্ত খবরের একটি অংশ পোস্ট করেছেন। বিরোধী জোট ‘ইন্ডিয়া’র দ্বিতীয় বৃহত্তম শরিক দল এসপি-র প্রধান অখিলেশ যাদব বিতর্কে মুখ খুলে বলেছেন, “আমরা আবারও আমাদের পুরনো দাবিটা প্রকাশ্যে আনছি। তা হল ভবিষ্যতের সমস্ত নির্বাচন ব্যালট পেপারের মাধ্যমে করতে হবে।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE