×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৪ অগস্ট ২০২১ ই-পেপার

মোদী-শাহ যেন ‘কৃষ্ণার্জুন’, কাশ্মীর-সিদ্ধান্ত নিয়ে মন্তব্য রজনীকান্তের

সংবাদ সংস্থা
চেন্নাই ১১ অগস্ট ২০১৯ ২০:১৪
কাশ্মীর নিয়ে মোদী-শাহের প্রশংসা করলেন রজনী। —ফাইল চিত্র।

কাশ্মীর নিয়ে মোদী-শাহের প্রশংসা করলেন রজনী। —ফাইল চিত্র।

জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা খর্ব করা নিয়ে রাজনৈতিক টানাপড়েন অব্যাহত। তার মধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানালেন দক্ষিণী তারকা রজনীকান্তনরেন্দ্র মোদী-অমিত শাহ জুটিকেই এর পুরো কৃতিত্ব দিয়েছেন তিনি। শুধু তাই নয়, মহাভারতের তুলনা টেনে মোদী-শাহকে ‘কৃষ্ণার্জুন’ বলেও উল্লেখ করেছেন অভিনেতা। তবে মোদী-শাহের মধ্যে কে অর্জুন এবং কে কৃষ্ণ, সেই জটিলতা তিনি এড়িয়ে গিয়েছেন।

রবিবার চেন্নাইয়ে একটি বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন রজনীকান্ত। জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে প্রশ্ন করলে সেখানেই এমন মন্তব্য করেন তিনি। রজনীকান্ত বলেন, ‘‘মিশন কাশ্মীর সফল হওয়ায় অমিত শাহকে হার্দিক শুভেচ্ছা জানাই। সুষ্ঠু ভাবে গোটা ব্যাপারটা সামলেছেন। সংসদেও অসাধারণ বক্তৃতা করেছেন উনি। ওঁকে কুর্নিশ।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘মোদীজি এবং অমিত শাহজির জুটি ঠিক মহাভারতের অর্জুনের মতো। তবে কে অর্জুন এবং কে কৃষ্ণ, তা বলতে পারব না। ওঁরা নিজেরাই সেটা ভাল জানেন।’’

তবে রজনীকান্ত মোদী-শাহের সমর্থনে এগিয়ে এলেও, এ ব্যাপারে সম্পূর্ণ উল্টো অবস্থান নিয়েছেন তাঁর সতীর্থ কমল হাসন। গত বছর নিজের রাজনৈতিক দল ‘মক্কল নিধি মইয়ম’-এর সূচনা করেন তিনি। শুরু থেকেই গেরুয়া শিবিরের সমালোচক হিসাবে পরিচিত তিনি। জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা খর্ব এবং কাশ্মীর ও লাদাখ, দু’টি পৃথক কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল গঠনের বিরুদ্ধেও সম্প্রতি মুখ খোলেন। কমল হাসন বলেন, ‘‘একেবারে পশ্চাদমুখী এবং স্বৈরতন্ত্রী সিদ্ধান্ত। ৩৭০ এবং ৩৫-ক ধারা আনার পিছনে যথেষ্ট কারণ ছিল। তাতে কোনওরকম পরিবর্তন ঘটানোর আগে আলাপ আলোচনা করা উচিত ছিল সরকারের।’’

Advertisement

আরও পড়ুন: কংগ্রেসের সভাপতিত্ব নিয়ে মিউজিক্যাল চেয়ার খেলছে গাঁধী পরিবার, তোপ বিজেপির​

আরও পড়ুন: পুজো কমিটির দরজায় আয়কর, টুইটারে তোপ দাগলেন মমতা, ধর্নায় বসার নির্দেশ​

এর আগে, রজনীকান্তকে একাধিক বার গেরুয়া শিবির ঘেঁষা বলে উল্লেখ করেছেন কমল হাসন। তবে এ নিয়ে কখনও কোনও প্রতিক্রিয়া দেননি রজনী। কমল হাসনের অভিযোগ খারিজও করেননি, আবার নিজেকে গেরুয়াপন্থী হিসাবে মেনেও নেননি। ২০২১ তামিলনাড়ু বিধানসভা নির্বাচনের আগে নিজের রাজনৈতিক দলের ঘোষণা করার কথা তাঁর। যদিও এ ব্যাপারেও মুখে কুলপ এঁটে রয়েছেন তিনি।



Tags:

Advertisement