Advertisement
৩১ জানুয়ারি ২০২৩
Indonesia

Indonesia: পবিত্র গাছের নীচে নগ্ন হয়ে ছবি! সংস্কৃতির অপমানের অভিযোগে বহিষ্কৃত দম্পতি

বালির গভর্নর ওয়ান কস্টার জানিয়েছেন, যেখানে ধর্মীয় আবেগ এবং সংস্কৃতি জড়িয়ে আছে। সেখানে এই ধরনের কাজ কোনও ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। বিষয়টির জন্য অনুতপ্ত আলিনাও। ইনস্টাগ্রামে তাঁর কৃতকর্মের জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি।

আলিনা ফাজলিভা। এই ছবি ঘিরেই বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। ছবি সৌজন্য টুইটার।

আলিনা ফাজলিভা। এই ছবি ঘিরেই বিতর্ক সৃষ্টি হয়েছে। ছবি সৌজন্য টুইটার।

সংবাদ সংস্থা
জাকার্তা শেষ আপডেট: ০৭ মে ২০২২ ১৫:০১
Share: Save:

ইন্দোনেশিয়ার বালিতে ঘুরতে গিয়েছিলেন রুশ দম্পতি। বালির তাবানান জেলায় ৭০০ বছরের পুরনো একটি বটগাছের নীচে নগ্ন হয়ে ছবি তোলার অভিযোগ ওঠে তাঁদের বিরুদ্ধে। সেই ছবি নেটমাধ্যমে ছাড়তেই স্থানীয়দের মধ্যে ক্ষোভ তৈরি হয়। প্রবল চাপের মুখে পড়ে ওই দম্পতিকে শেষমেশ দেশ ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছে প্রশাসন। শুধু তাই নয়, ছ’মাসের জন্য ইন্দোনেশিয়ায় তাঁদের নিষিদ্ধও করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

Advertisement

আলিনা ফাজলিভা নামে ওই রুশ মহিলার ইনস্টাগ্রাম ফলোয়ারের সংখ্যা কয়েক হাজার। স্বামী অ্যান্ড্রিকে নিয়ে বালিতে ঘুরতে গিয়েছিলেন তিনি। ৭০০ বছরের পুরনো বট গাছের নীচে তিনি নগ্ন হয়ে দাঁড়ান। আর সেই ছবি তোলেন তাঁর স্বামী। ওই গাছটিকে স্থানীয়রা ‘পবিত্র’ বলে মনে করেন। শুধু তাই নয়, এই গাছ বালির বেশি কিছু সম্প্রদায়ের সংস্কৃতির সঙ্গে ওতপ্রোত ভাবে জড়িত।

স্বামীর সঙ্গে আলিনা। ছবি: এএফপি।

স্বামীর সঙ্গে আলিনা। ছবি: এএফপি।

অভিযোগ, এই ‘পবিত্র’ গাছের নীচে নগ্ন হয়ে ছবি তুলে সংস্কৃতির অপমান করেছেন ওই দম্পতি। বিষয়টি নিয়ে শোরগোল পড়ে যাওয়ায় তৎপর হয় প্রশাসন। তার পরই ওই দম্পতিকে দেশ ছাড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

বালির গভর্নর ওয়ান কস্টার জানিয়েছেন, যেখানে ধর্মীয় আবেগ এবং সংস্কৃতি জড়িয়ে আছে, সেখানে এই ধরনের কাজ কোনও ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। বিষয়টির জন্য অনুতপ্ত আলিনাও। ইনস্টাগ্রামে তাঁর কৃতকর্মের জন্য ক্ষমাও চেয়েছেন তিনি।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.