Advertisement
২২ মে ২০২৪
Bijapur

কাঁকেরের পর এ বার বিজাপুর, ছত্তীসগঢ়ে নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে গুলির লড়াই, হত এক মাওবাদী

পুলিশ জানিয়েছে, বৈরামগড় থানার অন্তর্গত কেশকুতুল গ্রামের কাছে একটি জঙ্গলে জড়ো হয়েছিল মাওবাদীদের একটি দল। গোপন সূত্রে বৈরামগড় থানা খবর পায়।

প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি।

প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ এপ্রিল ২০২৪ ১২:৩৯
Share: Save:

রবিবার ভোর থেকেই নিরাপত্তাকর্মীদের সঙ্গে মাওবাদীদের গুলির লড়াই শুরু হয়েছে ছত্তীসগঢ়ের বিজাপুরে। সেই গুলির লড়াইয়ে এক মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর।

পুলিশ জানিয়েছে, বৈরামগড় থানার অন্তর্গত কেশকুতুল গ্রামের কাছে একটি জঙ্গলে জড়ো হয়েছিল মাওবাদীদের একটি দল। গোপন সূত্রে বৈরামগড় থানা খবর পায়। তার পরই পুলিশের একটি দল এবং ডিস্ট্রিক্ট রিজ়ার্ভ গার্ড (ডিআরজি) রাতের অন্ধকার থাকতেই ওই জঙ্গলে পৌঁছয়। নিরাপত্তাবাহিনীর উপস্থিতি টের পেতেই তাদের লক্ষ্য করে গুলি চালাতে শুরু করেন মাওবাদীরা। পাল্টা নিরাপত্তাবাহিনীও গুলি চালায়। ভোর সাড়ে ৫টা থেকে গুলির লড়াই শুরু হয়। দু’পক্ষের সংঘর্ষে এক মাওবাদীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শীর্ষ এক পুলিশ আধিকারিক জানিয়েছেন, তাঁদের কাছে খবর আসে যে, কেশকুতুল-কুশমন্ডির জঙ্গলে মাওবাদী কমান্ডার কাওয়াসি পান্ডারু এবং আরও ১৫-২০ জন সদস্য জড়ো হয়েছেন। সেই খবর পাওয়ার পরই পুলিশ এবং ডিআরজির যৌথবাহিনী সেই জঙ্গলে অভিযান চালায়। দু’পক্ষের গুলির লড়াই থামলে এক মাওবাদীর দেহ উদ্ধার করে যৌথবাহিনী।

গত ১৬ এপ্রিল কাঁকেরে মাওবাদীদের নিরাপত্তাবাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে ২৯ জন মাওবাদী নিহত হয়েছিলেন। সেই সংঘর্ষে উত্তর বস্তারের মাওবাদী কমান্ডার শঙ্কর রাওয়ের মৃত্যু হয়। রাজ্য প্রশাসন সূত্রে খবর, এ বছরে এখনও পর্যন্ত আলাদা আলাদা সংঘর্ষের ঘটনায় শুধুমাত্র বস্তার অঞ্চলেই ৮০ জন মাওবাদী নিহত হয়েছেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

bijapur Chattisgarh Maoists
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE