Advertisement
৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২
meghalaya

Congress: সাংমার তৃণমূলে যাওয়া রুখলেন সনিয়া-রাহুল

তৃণমূল ও টিম পিকে-র কৌশলে এআইসিসি এখন কার্যত সিঁদুরে মেঘ দেখছে।

ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
গুয়াহাটি শেষ আপডেট: ০৫ অক্টোবর ২০২১ ০৫:৪৮
Share: Save:

মেঘালয় কংগ্রেসে ভাঙন রুখতে নিজেরাই মাঠে নামলেন রাহুল ও সনিয়া গাঁধী। অন্য সময় যাঁদের সঙ্গে সরাসরি বৈঠক করতে চেয়েও সুযোগ মেলে না বলে বারবার অভিযোগ করেছেন উত্তর-পূর্বের তাবড় নেতারা, তাঁরাই জরুরি ভিত্তিতে বৈঠকে বসলেন মেঘালয়ের বিরোধী দলনেতা মুকুল সাংমা ও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি ভিনসেন্ট পালাকে নিয়ে। এবং আপাতত ঠেকালেন সাংমার তৃণমূল গমন।
তাঁর সঙ্গে কথা না বলেই রাজ্য সভাপতি হিসেবে ভিনসেন্ট পালার নিযুক্তি এবং এআইসিসির তরফে তাঁকে যথেষ্ট গুরুত্ব না দেওয়ায় অভিমানী সাংমা তৃণমূলে যোগ দেওয়ার পরিকল্পনা করছিলেন। সাংমা-পন্থী আরও অন্তত ১১ বিধায়ক সঙ্গে থাকায় মেঘালয়ে হঠাৎ করেই বিনা ভোটে প্রধান বিরোধী দল হতে চলেছিল তৃণমূল। যে ভাবে গোয়ায় কংগ্রেসের মূল অংশকেই তৃণমূলে টেনে নিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রশান্ত কিশোররা একই কাণ্ড মেঘালয়েও ঘটার আগে সক্রিয় হন রাহুল-সনিয়া।
তৃণমূল ও টিম পিকে-র কৌশলে এআইসিসি এখন কার্যত সিঁদুরে মেঘ দেখছে। যেখানেই কংগ্রেস ও বিজেপির প্রত্যক্ষ লড়াই ছিল, এখন সেই সব রাজ্যেই কংগ্রেসের ঘর ভাঙতে সিঁদ কাটছে তৃণমূল। অসমে সুস্মিতা দেবকে দলে টেনেছে। গোয়ায় কংগ্রেসের কোমর ভেঙেছে। ভোট-কুশলী প্রশান্ত এক দিকে রাহুল-সনিয়াদের সঙ্গে বৈঠক করছেন, আবার একের পর এক রাজ্যে কংগ্রেসের ঘর ভাঙছেন।
অসমে হিমন্তবিশ্ব শর্মার ক্ষোভকে গুরুত্ব না দিয়ে অতীতে যে ভুল করেছিল এআইসিসি তার পুনরাবৃত্তি একেবারেই চাইছেন না রাহুল-সনিয়া। মেঘালয়ের ভাঙন ঠেকাতে ও উত্তর-পূর্বের আরও এক রাজ্যে তৃণমূলের ঘাঁটি তৈরি রুখতে রবিবার রাতেই সাংমা ও পালার সঙ্গে আলোচনায় বসেন রাহুল। সঙ্গে ছিলেন এআইসিসির সাধারণ সম্পাদক কে সি বেণুগোপাল ও মেঘালয়ের ভারপ্রাপ্ত নেতা মণীশ চত্রথ। এর পর সোমবার সনিয়াও দেখা করেন তাঁদের সঙ্গে।

দলীয় সূত্রে খবর, আলোচনার পরে বরফ অনেকটাই গলেছে। আপাতত হয়তো দল ছাড়ছেন না সাংমা। বৈঠকের বিষয় নিয়ে বাইরে খুব বেশি মুখ খোলেননি কেউ। পালা জানান, উপনির্বাচনের প্রার্থী চূড়ান্ত করা ও আসন্ন নির্বাচন নিয়েই কথা হয়েছে। সাংমা-পন্থী বিধায়কেরা জানান, মুকুল শিলংয়ে ফিরলে বৈঠক করে পরবর্তী পদক্ষেপ ঠিক করা হবে।
অন্তর্কলহে জর্জরিত মেঘালয় কংগ্রেস ইতিমধ্যেই উপনির্বাচনের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করেছে। মাওরিংকনেংয়ে হাইল্যান্ডার খারমালকি, মাওফলং থেকে কেনেডি সি খিরিয়েম প্রার্থী হচ্ছেন। রাজাবালার প্রয়াত বিধায়ক আজাদ জামানের স্ত্রী হাসিনা ইয়াসমিনকে প্রার্থী করছে কংগ্রেস। মাওফলংয়ে টিকিট না পেয়ে দল ছেড়ে এনপিপিতে যোগ দিয়েছেন লামফ্রাং ব্লা। মিজোরামের তুইরিয়ালে কংগ্রেসের প্রার্থী হলেন সি রালতে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.