Advertisement
০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় জামিন সনিয়া-রাহুলের

জামিন পেয়ে গেলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গাঁধী এবং সহ-সভাপতি রাহুল গাঁধী। জামিন হল ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলার আরও তিন অভিযুক্তেরও। সনিয়া-রাহুল আদালতে হাজির হওয়ার অল্পক্ষণের মধ্যেই পাটিয়ালা হাউজ কোর্ট তাঁদের জামিন মঞ্জুর করে।

সংবাদ সংস্থা
শেষ আপডেট: ১৯ ডিসেম্বর ২০১৫ ১৫:২১
Share: Save:

জামিন পেয়ে গেলেন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গাঁধী এবং সহ-সভাপতি রাহুল গাঁধী। জামিন হল ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলার আরও তিন অভিযুক্তের। সনিয়া-রাহুল আদালতে হাজির হওয়ার অল্পক্ষণের মধ্যেই পাটিয়ালা হাউজ কোর্ট তাঁদের জামিন মঞ্জুর করে। ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে তাঁদের জামিন দেওয়া হয়েছে। বিজেপি নেতা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী অবশ্য জামিনের তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন।

Advertisement

সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর দায়ের করা মামলাতেই সনিয়া গাঁধী ও রাহুল গাঁধীকে সমন পাঠিয়েছিল পাটিয়ালা হাউজ কোর্ট। স্বামী নিজেই আদালতে শনিবার সওয়াল করেন। কংগ্রেস সভানেত্রী ও সহ-সভাপতিকে গ্রেফতার করার দাবি তুলে স্বামী বলেন, ‘‘দেশ ছেড়ে পালাতে পারেন সনিয়া ও রাহুল।’’ তাঁদের গ্রেফতারির দাবি তোলেন তিনি। তবে আদালত সে কথায় কর্ণপাত করেনি। শুধু সনিয়া-রাহুল নন, এই মামলায় আদালত শনিবার জামিন দিয়েছে আরও তিন অভিযুক্তকে।

আরও পড়ুন:

প্রতিহিংসার পিছনে মোদীর দফতর: রাহুল

Advertisement

ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলাটি কী? জেনে নিন সংক্ষেপে

ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় এ দিন দিল্লির পাটিয়ালা হাউজ কোর্টে হাজিরা দিতে বেলা পৌনে তিনটের মধ্যে পৌঁছন কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গাঁধী ও সহ-সভাপতি রাহুল গাঁধী। হাই প্রোফাইল শুনানিকে কেন্দ্র করে পাটিয়ালা হাউজ কোর্টে শনিবার সকাল থেকেই চূড়ান্ত তৎপরতা ছিল। সনিয়া-রাহুল জামিন চাইবেন বলে কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সিংহ সুরজেওয়ালা আগেই জানিয়েছিলেন। দেশের প্রধান বিরোধী দলের দুই শীর্ষ পদাধিকারীর হাজিরাকে ঘিরে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয় আদালতে। ৭০০ নিরাপত্তা রক্ষী মোতায়েন করা হয় শুধু আদালত চত্বরকে ঘিরে। সুরক্ষা বলয়ে সমন্বয়ের জন্য আদালতে খোলা হয় কন্ট্রোল রুম। সনিয়া-রাহুল আদালতে পৌঁছনোর সঙ্গে সঙ্গে পাটিয়ালা হাউজ কোর্টের একটি গেট বাদে বাকি সবক’টি বন্ধ করে দেওয়া হয়। শুধু সনিয়া-রাহুল নন, আদালতে তাঁদের হাজিরাকে কেন্দ্র করে কংগ্রেসের গোটা নেতৃত্বই এ দিন হাজির হয়ে গিয়েছিল আদালতে।

ন্যাশনাল হেরাল্ড সংবাদপত্রের জমি বেআইনিভাবে কব্জা করে তাতে প্রোমোটিং করার অভিযোগ তুলে সনিয়া গাঁধী, রাহুল গাঁধী-সহ মোট ছ’জনের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন সুব্রহ্মণ্যম স্বামী। সেই মামলাতেই সনিয়া-রাহুলকে সমন পাঠায় আদালত। কংগ্রেস সভানেত্রী এবং সহ-সভাপতির হয়ে আদালতে এ দিন সওয়াল করেন দলেরই আইনজীবী নেতা অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি। সঙ্গে ছিলেন আর এক কংগ্রেস নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কপিল সিব্বল এবং মুকুল ওয়াসনিক। আদালত থেকে বেরিয়ে প্রথমেই সনিয়া-রাহুল ২৪ আকবর রোডে দলীয় সদর দফতরের দিকে রওনা দেন। কংগ্রেসের তরফে প্রথম থেকেই দাবি করা হচ্ছে, রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করতেই তাঁদের এই মামলায় জড়ানো হচ্ছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.