Advertisement
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
বেঙ্গালুরু হেনস্থা

মেয়েরা ছোট পোশাক পরলে এমন তো হবেই! বিতর্কে সপা নেতা

বর্ষবরণের রাতে বেঙ্গালুরুতে অবাধ যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছিলেন মহিলারা। প্রশ্নের মুখে পড়েছিল পুলিশি নিষ্ক্রিয়তা। সে প্রসঙ্গে সোমবারই রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জি পরমেশ্বরের প্রথম প্রতিক্রিয়া ছিল, ‘‘বড়দিন ও বর্ষবরণের রাতে এমন তো হয়েই থাকে।’’

বেঙ্গালুরুর রাস্তার শ্লীলতাহানির অভিযোগ মহিলাদের। ছবি: সংগৃহীত।

বেঙ্গালুরুর রাস্তার শ্লীলতাহানির অভিযোগ মহিলাদের। ছবি: সংগৃহীত।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ০৪ জানুয়ারি ২০১৭ ০২:৪৩
Share: Save:

বর্ষবরণের রাতে বেঙ্গালুরুতে অবাধ যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছিলেন মহিলারা। প্রশ্নের মুখে পড়েছিল পুলিশি নিষ্ক্রিয়তা। সে প্রসঙ্গে সোমবারই রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জি পরমেশ্বরের প্রথম প্রতিক্রিয়া ছিল, ‘‘বড়দিন ও বর্ষবরণের রাতে এমন তো হয়েই থাকে।’’ এই মন্তব্যের জেরে তাঁর পদত্যাগও দাবি করেছিল মহিলা কমিশন। কিন্তু আজ আরও এক ধাপ এগিয়ে সমাজবাদী পার্টির মুম্বই শাখার প্রধান আবু আজমি বলে বসলেন, ‘‘মেয়েরা ছোট পোশাক পরে বেশি রাতে বন্ধুদের সঙ্গে বেরোলে এমন তো হবেই।’’

পশ্চিমী ভাবধারা অনুকরণ করতে গিয়েই মেয়েদের এই পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছিলেন মন্ত্রী পরমেশ্বর। তাঁকে সমর্থন করে আজমি এ দিন বলেন, শুধু চিন্তাভাবনা নয়, পোশাকআশাকে পশ্চিমী ভাবধারার ছোঁয়া থাকলে এমন ঘটনা ঘটবেই। এক টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে পুরোদস্তুর নীতি-পুলিশের সুরে কথা বলেন শিবাজিনগরের বিধায়ক। বলেন, ‘‘ছোট পোশাক পরে বেশি রাতে পার্টি করা আমাদের সংস্কৃতি নয়। সম্ভ্রান্ত পরিবারের মহিলারা, সে মহারাষ্ট্র হোক, গুজরাত কি রাজস্থান বা উত্তরপ্রদেশ, ভদ্র পোশাকে পরিবারের সঙ্গেই বেরোন। যদি আমার মেয়ে বা বোন পরিবারের পুরুষদের ছাড়া
রাতে বেরোতেন, সেটা মোটেই ঠিক কাজ হতো না।’’

৩১ ডিসেম্বরের রাতে গোটা বেঙ্গালুরু শহর জুড়ে মোতায়েন ছিল প্রায় ১৫০০ পুলিশ। কিন্তু তাঁদের সামনেই মহিলাদের সঙ্গে অভব্যতা করা হয়। কয়েকটি ক্ষেত্রে পুলিশ হস্তক্ষেপ করলেও, লাগাতার হেনস্থা চলতেই থাকে। আজমি বলেন, ‘‘নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা পুলিশের কর্তব্য নিশ্চয়ই। তবে মহিলা ও তাঁর অভিভাবকদেরও আগাম সতর্কতা নেওয়া উচিত। মনে রাখা উচিত, নিরাপত্তা শুরু হয় বাড়ি থেকেই।’’

আজমির মন্তব্যে তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন মহিলা সমাজকর্মীরা। দিল্লির মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন স্বাতী মালিওয়াল সখেদে টুইট করে বলেছেন, ‘‘পুরুষ রাজনীতিকরা নারীবিদ্বেষী মন্তব্য করলে তাঁদের শায়েস্তা করার জন্য কোনও আইন নেই!’’ হেনস্থায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কী পদক্ষেপ করা হয়েছে তা নিয়ে জাতীয় মহিলা কমিশনের চেয়ারপার্সন ললিতা কুমারমঙ্গলম জবাব তলব করেছেন শহরের পুলিশ কমিশনার, ডিজিপি ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে। সার্বিক ভাবেও বেঙ্গালুরুর ঘটনা সাড়া ফেলেছে দেশ জুড়েই।

এ দিন প্রবীণ চিত্রনাট্যকার সালিম খান প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে টুইট করে বলেন, এ রকম লজ্জাজনক ঘটনা যাতে না ঘটে সরকার সেটা দেখুক। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহ অবশ্য মহিলাদের মান রক্ষা করার দায়িত্ব রাজ্য সরকারেরই বলে দায় সেরেছেন। আজমির মন্তব্যের প্রতিবাদে টুইট করেছেন ফারহান আখতারও।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE