Advertisement
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
Farmers Protest

৪০ লক্ষ ট্র্যাক্টরের মিছিল হবে, আন্দোলন হবে দেশের বাকি অংশেও, হুঁশিয়ারি টিকায়েতের

‘আন্দোলনজীবী’ শব্দ প্রসঙ্গে নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করে টিকায়েত বলেন, “আন্দোলনজীবীদের সম্পর্কে উনি কী বুঝবেন?”

কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত। ছবি: পিটিআই।

কৃষক নেতা রাকেশ টিকায়েত। ছবি: পিটিআই।

সংবাদ সংস্থা
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১২:৪১
Share: Save:

চার লক্ষ নয়, এ বার ৪০ লক্ষ ট্র্যাক্টর নিয়ে রাস্তায় নামবেন তাঁরা। মঙ্গলবার এক সংবাদ সংস্থাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এমনই হুঁশিয়ারি দিলেন ভারতীয় কিসান ইউনিয়ন (বিকেইউ)-এর নেতা রাকেশ টিকায়েত।

ওই দিন হরিয়ানার কুরুক্ষেত্র জেলার পেহোয়ায় এক সভা করেন টিকায়েত। ‘কিসান মহাপঞ্চায়েত’ নামে ওই সভা থেকে বৃহত্তর আন্দোলনের ডাক দিয়েছেন তিনি। আন্দোলনকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি দেশের বাকি অংশেও সেই আন্দোলনকে ছড়িয়ে দেওয়ার বার্তা দিয়েছেন টিকায়েত।

‘আন্দোলনজীবী’ শব্দ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মন্তব্য নিয়েও তাঁকে কটাক্ষ করেছেন টিকায়েত। তিনি বলেন, “আন্দোলনজীবীদের সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী কী বুঝবেন? উনি কোনও আন্দোলনেই কোনও দিন অংশ নেননি। বরং দেশকে ভাঙার কাজ করে গিয়েছেন।” ভগৎ সিংহ, এমনকি লালকৃষ্ণ আডবাণী বিভিন্ন আন্দোলনে অংশ নিয়েছেন বলেও মন্তব্য করেন টিকায়েত।

প্রসঙ্গত, রাজ্যসভায় দু’দিন আগেই কৃষক আন্দোলন নিয়ে বলতে গিয়ে মোদী ‘আন্দোলনজীবী’ শব্দটি ব্যবহার করেন। শুধু তাই নয়, কটাক্ষ করে বলেছিলেন, শ্রমজীবী কথাটা শুনেছি, কিন্তু নতুন একটা প্রবণতা এসেছে, সেটা হল আন্দোলনজীবী। আর এই আন্দোলনজীবীরাই দেশের ‘পরজীবী’। এঁদের থেকে দূরে থাকার পরামর্শও দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। মোদীর এই ‘আন্দোলনজীবী’ এবং ‘পরজীবী’ শব্দের কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে বিরোধী দলগুলো এবং কৃষক সংগঠনগুলো।

টিকায়েত ওই সাক্ষাৎকারে আরও জানিয়েছেন, আগামী ২ অক্টোবর পর্যন্ত এই আন্দোলন জারি থাকবে। তবে তার পরেও যে আন্দোলন থামবে না সেই হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন তিনি। টিকায়েত বলেন, “২ অক্টোবরের পরেও আন্দোলন চলবে। আন্দোলনস্থলে পালা করে কৃষকরা আসবেন।”

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.