Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

হাঁসফাঁস ভুবনেশ্বর, গুয়াহাটিও

এক ঝলকে এটাই সোমবার বাগডোগরার ছবি। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের কথায়, নিজেদের বিমান তো আছেই। তার সঙ্গে কলকাতায় নামতে না পারা কিছু বিমানও আসে এখানে

নিজস্ব প্রতিবেদন
১০ অক্টোবর ২০১৭ ০২:০০
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

দোতলায় সিকিউরিটি এনক্লেভের ভিতরে চাদর বিছিয়ে মাটিতেই বসে পড়েছেন যাত্রীরা। একতলার লাউঞ্জে থিকথিক করছে ভিড়। তার উপরে বাতানুকূল যন্ত্রটি বিগড়েছে। ফলে হাঁসফাঁস অবস্থা যাত্রীদের।

এক ঝলকে এটাই সোমবার বাগডোগরার ছবি। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের কথায়, নিজেদের বিমান তো আছেই। তার সঙ্গে কলকাতায় নামতে না পারা কিছু বিমানও আসে এখানে। তাদের যাত্রীদের ঠাঁই দিতে গিয়ে অবস্থা আরও খারাপ হয়েছে।

এর আগে কখনও এত বিমান একসঙ্গে কলকাতা থেকে মুখ ঘুরিয়ে অন্যত্র গিয়েছে কি না সন্দেহ। এই বিমানগুলিকে সামাল দিতে এক সময়ে গুয়াহাটি, ভুবনেশ্বরের মতো বেশ কয়েকটি বিমানবন্দরে রানওয়েতে ঠাঁই নাই অবস্থা হয়ে যায়। ফলে তারা বিমান নামার অনুমতি দেওয়া বন্ধ করে দেয়। যেগুলি নামতে পেরেছে, তাদের বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই যাত্রীদের বিমানে বসিয়ে রাখা হয়েছে। তবে বাগডোগরার মতো কিছু ক্ষেত্রে তাঁদের লাউঞ্জে নিয়ে আসা হয়।

Advertisement

এ দিন সকালে দুর্যোগের ফলে কলকাতা থেকে ঘুরিয়ে দেওয়া ২৬টি বিমানের মধ্যে ৭টি বিমানকে ঠাঁই দেয় গুয়াহাটির লোকপ্রিয় গোপীনাথ বরদলৈ বিমানবন্দর। বিমানবন্দর অধিকর্তা বি কে তাইলং জানান, গুয়াহাটি বিমানবন্দরে ২১টি বিমানের জায়গা রয়েছে। এক সময়ে পার্কিং-এর জায়গার চেয়ে বিমানের সংখ্যা বেশি হয়ে যায়। তখন, একটি বিমান উড়ে যাওয়ার পরেই অন্য বিমানকে নামতে দেওয়া হয়।

দিল্লি থেকে কলকাতাগামী ইন্ডিগোর একটি বিমান এবং মুম্বই থেকে কলকাতামুখী স্পাইসজেটের একটি বিমান এ দিন সকালে গিয়ে নামে আগরতলা বিমানবন্দরে। সন্ধে পর্যন্ত সেখানেই আটকেছিল ওই দু’টি বিমান। আগরতলা থেকে কলকাতাগামী বিমানগুলিও নির্ধারিত সময়ে ছাড়তে পারেনি। কলকাতা থেকে ৬টি বিমান মুখ ঘুরিয়ে ভুবনেশ্বরে উড়ে যায়। ভুবনেশ্বরে ১৫টি বিমানের জায়গা রয়েছে। তার মধ্যে বড় বিমানের পার্কিং বে রয়েছে ৮টি । সেগুলিও ভর্তি হয়ে যায়।

বাগডোগরায় এ দিন ২০টি বিমান ওঠানামা করার কথা। তার মধ্যে আটটি বিমান সরাসরি কলকাতা থেকে যায়। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছেন, ওই আটটি বিমানের কয়েকটি অস্বাভাবিক দেরিতে চলেছে। কয়েকটি ২-৪ ঘণ্টা দেরি করে। এর জন্য ভুগতে হয়েছে উত্তরবঙ্গের যাত্রীদের। সেই তালিকায় আছেন রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেবও। তাঁর কলকাতা থেকে সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ বাগডোগরার বিমানে ওঠার কথা ছিল। কিন্তু অন্য শহর থেকে বিমানটি কলকাতা না এসে চলে যায় রাঁচী। দুপুরের পরে সেটি পৌঁছয় কলকাতায়।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement