Advertisement
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Magic Mirror

সকলকে নগ্ন দেখার ‘ম্যাজিক’ আয়না কিনতে গিয়ে সব খোয়ালেন প্রৌঢ়, অগ্রিম দেন ন’লক্ষ টাকা

ধৃতদের কাছ থেকে একটি গাড়ি এবং নগদ প্রায় ২৮ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। যে আয়নাটিকে ম্যাজিক আয়না বলে গছানোর চেষ্টা করা হয়েছিল, তা অবশ্য এখনও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

representational image

— প্রতীকী ছবি।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
নয়াদিল্লি শেষ আপডেট: ১৭ অগস্ট ২০২৩ ১৬:০৩
Share: Save:

জাদু আয়নায় তাকালেই সকলকে নগ্ন দেখা যায়! তেমনই একটি আয়না কিনতে গিয়ে ৯ লক্ষ টাকা খোয়ালেন উত্তরপ্রদেশের বাসিন্দা ৭২ বছরের এক প্রৌঢ়। পুলিশ অবশ্য তিন প্রতারককে গ্রেফতার করেছে। জানা গিয়েছে, ধৃতেরা সকলেই বাংলার বাসিন্দা।

নিজেদের সিঙ্গাপুরস্থিত একটি সংস্থার প্রতিনিধি পরিচয় দিয়ে পার্থ সিংহ রায়, মলয় সরকার এবং সুদীপ্ত সিংহ রায় নামে তিন ব্যক্তি যোগাযোগ করেন প্রৌঢ় অবিনাশকুমার শুক্লের সঙ্গে। অবিনাশকে ওই তিন জন বোঝান যে তাঁদের কাছ থেকে জাদু আয়না কিনলেই তাঁর সমস্ত ইচ্ছা পূরণ হবে। ওই আয়নায় যে কাউকে জামাকাপড় ছাড়া অবস্থায় দেখা যায়। পাশাপাশি, আয়না নাকি ভবিষ্যৎও বলে দিতে ওস্তাদ। এহ বাহ্য, প্রতারকেরা প্রৌঢ়কে বোঝান, এই আয়নাটি এর আগে নাসায় ব্যবহার করা হচ্ছিল। এ জন্য দাম চান ২ কোটি টাকা।

অনেক দরাদরির পর রাজি হয়ে যান অবিনাশ। কিন্তু প্রতারকরা তাঁকে আয়না নিতে ওড়িশার ভুবনেশ্বরে আসতে বলেন। তত দিনে অবশ্য ৯ লক্ষ টাকা দিয়ে ফেলেছেন অবিনাশ। অগত্যা তাঁদের কথামতো ভুবনেশ্বরে পৌঁছন অবিনাশ। তার পরেই বিভিন্ন কারণে সন্দেহের উদ্রেক হয় অবিনাশের মনে। তিনি টাকা ফেরত চান। কিন্তু তা দিতে রাজি হননি প্রতারকেরা। এর পর অবিনাশ ভুবনেশ্বরের পুলিশের দ্বারস্থ হন। পুলিশ তদন্তে নেমে ওড়িশারই নয়াপল্লি থানা এলাকায় থেকে তিন জনকে গ্রেফতার করে।

ধৃতদের কাছ থেকে একটি গাড়ি এবং নগদ প্রায় ২৮ হাজার টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। যে আয়নাটিকে ম্যাজিক আয়না বলে গছানোর চেষ্টা করা হয়েছিল, তা অবশ্য এখনও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE