Advertisement
২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩
Uttar Pradesh

পালিয়ে গিয়ে ‘বিয়ে’, তাই শাস্তি জুতোর মালা পরিয়ে

গোটা ঘটনার ভিডিয়ো সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পরে স্থানীয় পঞ্চায়েতের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় অবশেষে নড়েচড়ে বসেছে পুলিশ। যদিও রাত পর্যন্ত কাউকেই গ্রেফতার করেনি তারা।

representative image of marriage

কাউকেই এখনও পর্যন্ত গ্রেফতার করেনি পুলিশ। প্রতীকী ছবি।

সংবাদ সংস্থা
বদায়ূঁ শেষ আপডেট: ২৯ মে ২০২৩ ০৯:০৫
Share: Save:

রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছেন এক যুবক। তাঁর মুখে কালি, গলায় জুতোর মালা। ভিড়ের মধ্যে থেকে কেউ কেউ এসে ওই অবস্থাতেই চড়থাপ্পড় মেরে যাচ্ছেন। কেউ ছাড়াতে আসছেন না, উল্টে ঘটনার ভিডিয়ো করছেন। ঘটনাস্থল উত্তরপ্রদেশের বদায়ূঁর কুঁয়ারগাঁও। অভিযোগ, ওই যুবক বিয়ে করার জন্য গ্রামেরই একটি মেয়েকে নিয়ে চণ্ডীগড়ে পালিয়েছিলেন। গোটা ঘটনার ভিডিয়ো সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার পরে স্থানীয় পঞ্চায়েতের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠায় অবশেষে নড়েচড়ে বসেছে পুলিশ। যদিও রাত পর্যন্ত কাউকেই গ্রেফতার করেনি তারা।

পুলিশ ও গ্রামবাসীদের বক্তব্যে জানা গিয়েছে, গত ২১ মে কুঁয়ারগাঁওয়ের একটি মেয়েকে নিয়ে চণ্ডীগড় পালিয়ে যান ওই গ্রামেরই এক যুবক। তাঁরা বিয়ে করতে চান বলে জানতে পেরে মেয়েটির পরিবার জানায়, গ্রামে ফিরলে তাঁদের বিয়ে দেওয়া হবে। সেই মতো গ্রামে ফেরার ফেরেন তাঁরা। কিন্তু তার পরেই স্থানীয় পঞ্চায়েত বসে সিদ্ধান্ত নেয়, বিয়ে তো দূর, মেয়েটিকে নিয়ে পালানোর ‘অপরাধের’ শাস্তি হিসেবে যুবককে জুতোর মালা পরিয়ে গ্রামে ঘোরানো হবে। তাঁর মুখে কালিও দেওয়া হয়। সেই অবস্থাতেই ওই যুবককে গোটা গ্রামে হাঁটান গ্রামবাসীরা। মেয়েটি সে সময় ঘটনাস্থলে থাকতে না চাইলেও তাঁকে জোর করে সেখানে উপস্থিত করা হয় বলে জানা গিয়েছে। পুরো ঘটনার ভিডিয়ো করে সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া হয়।

এই ভিডিয়ো নিয়ে শোরগোল পড়তেই আসরে নামে পুলিশ। বদায়ূঁর ডেপুটি পুলিশ সুপার অলোক মিশ্র জানিয়েছেন, গ্রামে পুলিশের একটি দল পৌঁছে যুবকের অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা রুজু করেছে। যদিও রাত পর্যন্ত কাউকেই পুলিশ গ্রেফতার করেনি। যুবকের পরিচয় প্রকাশ করেনি

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE