পাকিস্তানের জলসীমায় ঢোকার চেষ্টা করেছিল একটি ভারতীয় সাবমেরিন— পাকিস্তানের এই দাবিকে উড়িয়ে দিল ভারত। মঙ্গলবার সকালে পাকিস্তান একটি ভিডিয়ো প্রকাশ করে এই দাবি করার পর এ দিনই বিবৃতি দিয়ে এই দাবি নস্যাৎ করে দিল নয়াদিল্লি। ওই বিবৃতিতে বলা হয়েছে পুরোটাই পাকিস্তানের ‘সাজানো’ পরিকল্পনার অঙ্গ। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের একটি সূত্রে এও দাবি করা হয়েছে, ওই ভিডিয়োটি ২০১৬ সালের। 

মঙ্গলবার পাক তথ্য মন্ত্রকের টুইটার হ্যান্ডলে দাবি করা হয়, পাক জলসীমায় একটি সাবমেরিন ঢুকে পড়ার চেষ্টা করে এবং পাক নৌসেনা তা রুখে দিয়েছে। পাক সরকারের প্রকাশ করা একটি ভিডিয়ো পাকিস্তানের বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে দেখানোও হয়। তাতে একটি সাবমেরিনের উপরের অংশ দেখা যায়। 

এর পরই বিকেলের দিকে একটি বিবৃতি জারি করে ভারতের প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো (পিআইবি)-র প্রতিরক্ষা বিভাগ। ওই বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ‘‘গত কয়েক দিন ধরেই পাকিস্তান নিজেদের স্বার্থসিদ্ধি করতে ভুল এবং মিথ্যে তথ্য ছড়াচ্ছে। ভারত এই ধরনের কোনও কার্যকলাপ স্বীকার করে না। আমাদের নৌসেনা মোতায়েন অপরিবর্তিত রয়েছে।’’ 

ভারত-পাক দ্বন্দ্ব কতবার, কীভাবে? ঝালিয়ে নিন আরও একবার 

আরও পড়ুন: পুলওয়ামার ত্রালে জঙ্গিদের ডেরা ভাঙতে সেনা অভিযান, নিকেশ দুই সন্ত্রাসবাদী

আরও পড়ুন: সুখোইয়ের ক্ষেপণাস্ত্রে ধ্বংস পাক ড্রোন, অভিযান চলবে বলে জানালেন বায়ুসেনা-প্রধান

মঙ্গলবারই অন্য প্রসঙ্গে ভারতীয় নৌসেনা প্রধান অ্যাডমিরাল সুনিল লাংবা বলেন, ‘‘জলপথে হামলার ছক কষছে জঙ্গিরা। এই সংক্রান্ত গোয়েন্দা রিপোর্ট রয়েছে।’’

পুলওয়ামা হামলা এবং তার পরবর্তী পরিস্থিতিতে ভারত-পাক সম্পর্কের পারদ চরমে উঠেছিল। পাক সেনার হাতে আটক ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান ফেরার পর অবশ্য সেই আবহ কিছুটা স্তিমিত হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ফের পাকিস্তানের এই দাবি ঘিরে নতুন করে জল্পনা শুরু হয়েছে কূটনৈতিক মহলে।