ইংল্যান্ডের এসেক্সের এক প্রজনন কেন্দ্র থেকে জুলাই-এর শেষের দিকে একটি ল্যাব্রাডর কেনেন লরেন সলমন নামের এক যুবক। প্রিয় পোষ্যের নাম রাখেন রু। তার পর থেকেই নেটিজেনদের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রু। তার কারণ অবশ্যই রু-এর বিশেষ শারীরিক গঠন। বাকি কুকুরদের মতো চার নয়, ছ’টি পা নিয়ে জন্মেছিল রু।

ছয়টি পা থাকায় চলা ফেরা করতে বেশ অসুবিধা হয় রু-এর। কিছুটা ক্যাঙারুর মতো লাফিয়ে লাফিয়ে চলাফেরা করে সে। তার এই কষ্ট দূর করতে এগিয়ে এলেন লন্ডনেরই এক মহিলা। রু যাতে স্বাভাবিক ভাবে চলাফেরা করতে পারে, সে জন্য অজ্ঞাতপরিচয় ওই মহিলা রু-কে দিয়েছেন ৪০০ ইউরো মূল্যের একটি হুইলচেয়ার।

রু-এর পালক লরেন থাকেন লন্ডনের অরফিংটনে। রু-কে হুইলচেয়ার দেওয়ার ঘটনায় তিনি বলেছেন, ‘‘কিছু দিন আগে ওই মহিলার পোষ্য কুকুর মারা গিয়েছে। রু-এর ছবি দেখার পরই ওর জন্য কিছু করার সিদ্ধান্ত নেন তিনি। সে জন্যই রু-কে হুইলচেয়ার দিয়েছেন তিনি।’’ ইন্টারনেটে রু-এর ছবি আপলোড করার পর তার জন্য সবাই যে রকম সহানুভূতি দেখিয়েছেন, তাতে তিনি মুগ্ধ বলেও জানান লরেন। 

আরও পড়ুন: তিন বোতল মধু নিয়ে আমেরিকায় ঢুকে গিয়ে তিন মাস জেলে!

আরও পড়ুন: স্বামীর ‘ভালবাসায় অতিষ্ট’, বিচ্ছেদ চাইলেন মহিলা