ভাগ্যিস সেদিন ড্রোন নিয়ে সমুদ্রের ধারে গিয়েছিল ওয়াটসন পরিবার। না হলে কী বিপদ হতে পারত কে জানে! গত ২৩ জুন সপরিবারে ড্যানিয়েল ওয়াটসন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ফ্লোরিডার নিউ স্মুর্না সৈকতে গিয়েছিলেন। সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিলেন একটি ড্রোন। তাতে লাগানো ছিল ক্যামেরা।

সৈকতে পৌঁছে ড্যানিয়েল ভাবেন ড্রোন দিয়ে ওপর থেকে কিছু ছবি তুলবেন। সেই মতো ড্রোন উড়িয়ে দেন। সৈকতে দাঁড়িয়ে কয়েকটা ছবিও তোলেন। তখনই হঠাত্ চিত্কার করে স্ত্রী স্যালিকে বলেন, বাচ্চাদের জল থেকে উঠিয়ে আনতে। সেই মতো স্ত্রীও চিত্কার করে বাচ্চাদের দ্রুত জল থেকে উঠে আসতে বলেন। কী হয়েছে জানতে চাইলে স্যালির কাছে নিয়ে যান ড্রোনের মনিটর। দেখান, বাচ্চাদের থেকে কিছু দূরে জলের নীচে একটি ছায়া ঘুরে বেড়াচ্ছে। দেখেই বোঝা যাচ্ছে সেটি একটি হাঙর

ড্রোন ছিল বলেই ওপর থেকে দেখা সম্ভব হয়েছিল হাঙ্গরটিকে। না হলে কাছে না এলে হয়তো দেখাই যেত না হাঙ্গরটিকে। আর হয়তো তখন অনেক দেরি হয়ে যেত। পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় ড্যানিয়েল দু’টি ছবি পোস্ট করেছেন। সেখানে দেখা যাচ্ছে, শিশুরা জলে খেলা করছে আর একটি হাঙর এগিয়ে আসছে তাদের দিকে। পরের ছবিতে দেখা যাচ্ছে দৌড়ে জল থেকে ডাঙার দিকে উঠে আসছে শিশুগুলি। আর হাঙরটি চলে যাচ্ছে সমুদ্রের দিকে।

আরও পড়ুন : এসি গাড়ি চড়েন? ভুলেও এই কাজ করবেন না!

আরও পড়ুন : বৌ কাঁধে দৌড়, দ্বিতীয় বার সেরা লিথুয়ানিয়ার দম্পতি

ফ্রোরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসেব অনুযায়ী, ২০১৮ সালে এই মার্কিন প্রদেশে মোট ১৩০টি হাঙরের হামলার ঘটনা ঘটেছে। আর তার মধ্যে অন্তত পাঁচটি ক্ষেত্রে মৃত্যু হয়েছে।