Advertisement
২০ জুলাই ২০২৪
Online Shopping

ল্যাপটপের বদলে এল কাপড় কাচার সাবান, ই-কমার্স সাইটের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে নেটমাধ্যমে পোস্ট যুবকের  

যশস্বী শর্মা নামক এক ব্যক্তি অনলাইনে একটি ল্যাপটপ অর্ডার করেছিলেন। কিন্তু অর্ডারটি তার কাছে যখন এসে পৌঁছয় তখন দেখা যায়, পার্সেলের ভিতর রয়েছে বেশ কয়েকটি কাপড় কাচার সাবান!

যশস্বীর সেই নির্দিষ্ট সংস্থার ‘ওপেন বক্স’ ডেলিভারির বিষয়ে কোনও ধারণাই ছিল না।

যশস্বীর সেই নির্দিষ্ট সংস্থার ‘ওপেন বক্স’ ডেলিভারির বিষয়ে কোনও ধারণাই ছিল না। প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৯:৩৩
Share: Save:

অনলাইনে বরাত দিয়েছিলেন একটি দামি ল্যাপটপ অথচ বাড়িতে যখন পার্সেল এল, তাতে রয়েছে বেশ কয়েকটি কাপড় কাচার সাবান। ই-কমার্স সাইটগুলি গ্রাহকদের সব সময়েই সেরা পরিষেবা দেওয়ার দাবি করে। কিন্তু অনলাইনে ল্যাপটপ অর্ডার করে এক গ্রাহক যে বিরল অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হয়েছেন, তা জেনে রীতিমতো চমকে গিয়েছেন নেটিজেনরা।

‘মরসুমি সেল’ শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে এসেছে এমনই এক ঘটনা। যশস্বী শর্মা নামক এক ব্যক্তি অনলাইনে একটি ল্যাপটপ অর্ডার করেছিলেন। কিন্তু অর্ডারটি তার কাছে যখন এসে পৌঁছয়, তখন দেখা যায় পার্সেলের ভিতর রয়েছে বেশ কয়েকটি কাপড় কাচার সাবান। গ্রাহক এই ব্যাপারে অভিযোগ জানালে, ই-কমার্স সংস্থা তাদের ‘নো রিটার্ন পলিসি’র উল্লেখ করে।আইআইএম স্নাতক যশস্বী ঘটনাটি উল্লেখ করে সমাজমাধ্যমে একটি পোস্ট করেন। তিনি তাঁর পোস্টে দাবি করেন, বিশেষ মরসুমি সেল উপলক্ষে তাঁর বাবার জন্য একটি ল্যাপটপের বরাত দিয়েছিলেন। কিন্তু যখন তিনি পার্সেলটি হাতে পান, তখন দেখা যায় পার্সেলের মধ্যে রয়েছে বেশ কয়েকটি কাপড় কাচার সাবান। ল্যাপটপের পরিবর্তে, তাঁরা পার্সেলে সাবানের প্যাকেটগুলি দেখে অবাক হয়ে যান। সঙ্গে সঙ্গে সংস্থার ‘কাস্টমার কেয়ার সার্ভিস’-এ সমস্ত বিষয়টি জানান যশস্বী। সংস্থার তরফে জানানো হয়, তারা পণ্যটি পুনরায় ফেরত নিতে পারবে না। যশস্বী জানান, ল্যাপটপের বদলে সাবান ডেলিভারি করা হয়েছে সেই সিসিটিভি প্রমাণও রয়েছে তাঁর কাছে, কিন্তু তা সত্ত্বেও সংস্থার পক্ষ থেকে বিষয়টি অস্বীকার করা হচ্ছে! প্যাকেজটি খোলার সময় তিনি একটি ভিডিও-ও করেছিলেন, যাতে স্পষ্ট ভাবে দেখা যায় যে, বাক্সে কিছু সাবানের বার রয়েছে, ল্যাপটপ নয়। কিন্তু তা সত্ত্বেও, সংস্থার সিনিয়র কাস্টমার কেয়ার এগজিকিউটিভ তাঁকে জানান যে, এটি ফেরত হবে না। কারণ, তিনি নিজেই ওটিপি শেয়ার করেছেন ডেলিভার করতে আসা ব্যক্তির সঙ্গে।

যশস্বী আরও জানান, সেই নির্দিষ্ট সংস্থার ‘ওপেন বক্স’ ডেলিভারির বিষয়ে কোনও ধারণাই ছিল না তাঁর। আর তাতেই হয়েছে বিপত্তি! ‘ওপেন বক্স’ ডেলিভারি নিয়ম অনুযায়ী সংস্থার পার্সেল আসার পর সেটি ভাল করে যাচাই করে তবেই গ্রাহক ডেলিভারি করতে আসা ব্যক্তির সঙ্গে ওটিপি শেয়ার করবেন।

পরবর্তী কালে যদিও সংস্থার তরফে বিষয়টি খতিয়ে দেখার কথা হলা হয়। তবে এখনও ল্যাপটপ বা টাকা, কিছুই ফেরত পাননি যশস্বী। এর পরেও সংস্থার তরফে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া না হলে তিনি কনজ়িউমার ফোরামে যাবেন বলে জানান। হাজার হাজার মানুষ এই পোস্ট দেখেছেন। অনেকেই ই-কমার্স সংস্থার এ হেন আচরণে তাঁদের ক্ষোভ উগরে দেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Online Shopping
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE