• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ক্যানসার ও হৃদরোগ ঠেকাতে এই বিষয়েই ভরসা রাখার পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের

heart
হৃদয় ভাল রাখলেই শরীর থাকবে ফিট। ছবি: শাটারস্টক।

ছোটবেলায় কেনা সাইকেলটা এ বার ধুলো ঝেড়ে বার করুন!

ক্যানসার থেকে হার্টের অসুখ, মুশকিল আসান হবে এতেই! অন্তত এমনটাই মত গ্লাসগো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের। প্রতি দিন এক বা দু’ক্ষেপে ঘণ্টাখানেক সাইকেল চালানো কমিয়ে দিতে পারে ৪৫ শতাংশ ক্যানসারের ঝুঁকি। হৃদরোগের ঘরেও কমে যেতে পারে ৪৬ শতাংশ ভয়।

স্বাস্থ্য বিষয়ক জার্নাল দ্য বিএমজে-তে প্রকাশিত রিপোর্টে স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোর একদল গবেষক ২ লক্ষ ৬৪ হাজার জনের উপর পরীক্ষা করে এই তথ্য সামনে এনেছেন। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্ডিওভাস্কুলার ও মেডিক্যাল সায়েন্সের গবেষক জেসন গিলের মতে, কোনও রকম শারীরিক কসরত করার সময় না পেলেও অন্তত হাঁটাহাঁটি বা সাইকেল চালানোতেই অনেকটা কাজে হবে। কর্মক্ষেত্রের দূরত্ব খুব বেশি না হলে বাস, গাড়ি বা রিকশায় না চড়ে কেউ যদি তা সাইকেলে অতিক্রম করেন, তা হলেই অনেকটা কার্ডিওভাস্কুলার ব্যায়াম হয়।’’

আরও পড়ুন: ফ্যাটি লিভার খুব ভোগাচ্ছে? কী ভাবে জব্দ করবেন

গবেষকদের মতে, অন্তত একটা ঘণ্টা হাঁটতে পারলে তো উপকার মেলেই, তার উপর সাইকেল চড়লে সেই উপকারের মাত্রা বেড়ে যায় অনেকখানি। এতে হৃদপেশী সচল থাকে, কোলেস্টেরল জমতে পারে না। ফলে হৃদরোগের সম্ভাবনা কমে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসেব অনুযায়ী, ২০১৮-১৯-এও ক্যানসারে আক্রান্ত হয়ে যত জনের মৃত্যু হয়েছে, তাঁদের প্রায় ৩০-৪০ শতাংশই ক্যানসারের শিকার হয়েছিলেন ওবেসিটি ও মদ্যপানের কারণে। শরীরের ওজন কমাতে ও মেদ রুখতে সাইক্লিং খুব কাজে আসে।

আর এক গবেষক কার্লোস সেলিস-মোরালেসের মতে, হাঁটাহাঁটিতেও অনেকটা উপকার মেলে। একটানা হাঁটাতেই লুকিয়ে সুফল। টুকটাক খুচরো হাঁটায় শরীরের কলকব্জা ভাল থাকে ঠিকই, কিন্তু ওতে ওজনে হেরফের হয় না। তাই সপ্তাহে ৩০০ মিনিট হাঁটতেই হবে একটানা। গড় হিসাবে যা দাঁড়ায় প্রায় ৪৩ মিনিট করে। একান্ত না পারলে অন্তত আধ ঘণ্টা একটানা হাঁটুন রোজ। আর তার চেয়েও বেশি কাজ পেতে চাইলে সাইক্লিংয়ে অভ্যস্ত হয়ে উঠুন।

ফিটনেস বিশেষজ্ঞ চিন্ময় রায়ের মতে, সাইক্লিংয়ের মতো ভাল কার্ডিও এক্সারসাইজ খুব কম আছে। সাইকেল চালানোর অভ্যাস না থাকলে অন্তত জিমে গিয়ে ১৫-২০ মিনিট সাইক্লিং করতে পারলে ভাল। পায়ের পেশী, ফিমার হাড়, কোমরের পেশী যেমন এতে সচল হয় তেমনই এতে হৃদপেশীর জোর বাড়ে। হার্টের কার্য ক্ষমতাও বাড়ে অনেকটাই। দূরে সরানো যায় মেদও।’’

আরও পড়ুন: বিশেষজ্ঞের পরামর্শ ছাড়াই শুরু করেছেন ডায়েট! জানেন কি পরিণতি?

সাইক্লিং কি হার্টের অসুখও ঠেকাবে? গবে,ণার সঙ্গে সহমত পোষণ করছেন কলকাতার অধিকাংশ হৃদরোগ বিশেষজ্ঞই।  দেবব্রত রায়ের মতে, ‘‘যে কোনও কার্ডিওভাস্কুলার ব্যায়ামই হার্টের জন্য ভাল। আজ স্কটল্যান্ডের গবেষকরা যা বলছেন, তার মূল ভাবনা কিন্তু আদি শরীরচর্চার উপর ভর করেই। প্রায় ৫ বছর ধরে তাঁরা নানা মানুষের উপর গবেষণা চালিয়ে যে তথ্য তুলে ধরেছেন, তা অবশ্যই বিজ্ঞানসম্মত। হৃদপেশীকে শক্তিশালী করতে সাইক্লিং খুবই উপকারী।’’

আর ক্যানসার? গবেষণার সেই অংশটুকুর সঙ্গেও সহমত ক্যানসার বিশেষজ্ঞ সুকুমার সরকার। তাঁর মতে, ‘‘ওবেসিটি যে ক্যানসারের ঝুঁকি বাড়ায় তা আজকাল আমরা  অনেকেই জানি। মোটা হওয়ার জন্য, ভুল লাইফস্টাইলের জন্য চেপে ধরা অসুখকে নিয়ন্ত্রণ করতে শরীরচর্চা খুব জরুরি। আর এখানেই সাইক্লিংয়ের মতো কার্ডিও এক্সারসাইজগুলো ভরসা হয়ে ওঠে।’’

অতএব সাইকেলে সওয়ার হয়ে রোগ তাড়াতে তৈরি হয়ে যান আপনিও।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন