Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

অনলাইনে আলাপের পর প্রথম ডেট? এগুলো না মানলে বিপদে পড়বেন কিন্তু!

আজকাল জীবনসঙ্গী বাছাইয়ের বিষয়ে অ্যাপ ও অনলাইনে ভরসা করছেন অনেকেই। ডেটিং সাইটে আলাপের পর ভাল লাগার মানুষটির সঙ্গে প্রথম মুখোমুখি সাক্ষাতে অবশ

নিজস্ব প্রতিবেদন
২৬ নভেম্বর ২০১৮ ১৩:৫৩
Save
Something isn't right! Please refresh.
প্রথম ডেটে কোনও ফাঁকা বা অচেনা জায়গায় নয়। ছবি: শাটারস্টক।

প্রথম ডেটে কোনও ফাঁকা বা অচেনা জায়গায় নয়। ছবি: শাটারস্টক।

Popup Close

বিশ্বায়নের ছোঁয়া লেগেছে আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাত্রার নানা ক্ষেত্রে। মানুষের ব্যক্তিগত সম্পর্ক, প্রেম, বোঝাপড়াও এর থেকে বাদ পড়েনি। আজকাল জীবনসঙ্গী বাছাইয়ের বিষয়ে অ্যাপ ও অনলাইনে ভরসা করছেন অনেকেই। কর্মব্যস্ত জীবনে আলাদা করে মনের মানুষ খুঁজে পাওয়ার সুযোগ অনেকেরই হয় না। এ দিকে একেবারে অচেনা কারও সঙ্গে জীবনের বাকি সময় কাটাতেও রাজি নয় আধুনিক প্রজন্ম। স্বাভাবিক ভাবেই জনপ্রিয়তা বাড়ছে অনলাইন ডেটিং অ্যাপগুলির। সোশ্যাল মিডিয়ার হাত ধরেও মনের মতো মানুষকে খুঁজে পান অনেকই।

শুধু জীবনসঙ্গীই নয়, একাকীত্ব ঘোচাতে বন্ধুদের খুঁজে পেতেও অনেকেই দ্বারস্থ এমন অ্যাপগুলির। এমন একতাকীত্বের নেপথ্যে মনোবিদরা আধুনিক জীবনযাত্রার জটিলতা ও সমাজতত্ত্বের নানা জটের কথা বললেও অনলাইন ডেটিং সাইটগুলোর জনপ্রিয়তা তাতে ক্ষুণ্ণ হয় না।

কিন্তু এই ধরনের ডেটিং সাইটে আলাপের পর ভাল লাগার মানুষটির সঙ্গে প্রথম মুখোমুখি সাক্ষাতে অবশ্যই কিছু নিয়ম মেনে চলুন। দীর্ঘমেয়াদী সম্পর্ক ও বন্ধুত্ব রাখার ক্ষেত্রে প্রথম দিনের এই ইমেজটি কার্যত অনেকটা কাজে আসে। তাই কেবল দেখা করাই নয়, সম্পর্ক টিকিয়ে রাখতে মেনে চলুন বিশেষ কিছু নিয়ম।

Advertisement



প্রথমেই এমন একটা জায়গা বাছুন, যা আপনার চেনা এলাকার মধ্যে পড়ে ও জনবহুল। খুব ফাঁকা এলাকা, হোটেলের ঘর, বা অচেনা জায়গা দেখা করার জন্য বাছবেন না। পারলে ওই এলাকায় বিপদে পড়লে আপদকালীন কিছু ফোন নম্বর ফোনে মজুত রাখুন। প্রথম থেকেই সৎ থাকুন। নিজের সম্পর্কে এমন কিছু বলবেন না যা বিশ্বাসযোগ্য নয়। অকারণ মিথ্যা বলে ইমপ্রেস করারও চেষ্টা করবেন না। আপনি যেমন ঠিক সে ভাবেই নিজেকে তুলে ধরুন সঙ্গীর সামনে। এতে ভবিষ্যতে এ সম্পর্ক এগোলে জটিলতা আসবে না। প্রথম দিনই কথাবার্তার মাঝে নিজের কিছু স্বভাবগত ভুলের কথা বলে রাখুন। এতে আপনাকে বুঝতে সুবিধা হবে তাঁর। প্রথমেই মনে রাখতে হবে, দীর্ঘ দিনের আলাপ বা বন্ধুত্ব থেকে হওয়া প্রেমের যে ধরন, তার চেয়ে এই ধরনের আলাপ প্রকৃতিগতভাবেই বেশ আলাদা। তাই যদি সত্যিই এই সাক্ষাৎ থেকে কোনও সম্পর্ক তৈরির কথা ভাবেন, তা হলে খুব ছোট ছোট কেজো আলাপের বদলে এমন কোনও বিষয় নিয়ে কথা বলুন, যাতে সেই মানুষটির জীবনের বিশ্বাস, আদর্শ, শখ এ সব সম্পর্কে জানতে পারেন। প্রথম থেকেই আলাপে জড়তা কাটিয়ে এমন ভাবে কথা বলুন যেখানে কেবল নিজেদের কথাই নয়, সমাজ, রাজনীতি, চার পাশের কোনও গুরুত্বপূর্ণ ঘটনাও উঠে আসবে আলাপে। এতে মানুষটি সম্পর্কে ধারণা আরও স্বচ্ছ হবে।

আরও পড়ুন: একা থাকলেও অক্ষম ! বন্ধ্যাত্বের সংজ্ঞা বদলাচ্ছে হু

অনেকেই আলাপের শুরুতেই এই সাক্ষাৎকার নিয়ে উল্টো দিকের মানুষটা কতটুকু ভাবছেন, আদৌ তাঁর সঙ্গে এই সম্পর্ক নিয়ে অপর জন কী ভাবছেন। এই কাঁচা কাজটা প্রথম দিনের সাক্ষাতে একেবারেই করবেন না। আজকাল প্রত্যেকেই সময় ও ধীরে এগনোয় বিশ্বাসী। প্রথম দিনের তাড়াহুড়ো উল্টো জনের ভাল না-ও লাগতে পারে। বরং নিজেই বলুন, সময় নিয়ে বিষয়টি নিয়ে খতিয়ে ভাবতে। বাড়ি, পরিবার নিয়ে খুব গভীর কথা আলোচনা না করলেও মূলত দরকারি বিষয়গুলো জানুন। বাড়িতে কে কে আছেন, কেমন ভাবে বেড়ে ওঠা, বাড়ির মানুষদের প্রতি তাঁর মনোভাব এগুলো জানুন। প্রথম দিনই কোনও ভুল বোঝাবুঝি বা তর্ক এড়িয়ে যান। যদি কথা বলতে বলতে বোঝেন, মানুষটি আদৌ আপনার মনের মতো নয়, তাতেও অভদ্রতা না করে বুদ্ধি খাটিয়ে আলাপ থামিয়ে উঠে আসুন। তবে আপনার অপছন্দের প্রকাশ ব্যবহারে না হওয়াই উচিত। যদি বোঝেন, মানুষটি মনের মতো, কিন্তু কিছু অমিল আছে, তাদের থাকতে দিন। দু’জন মানুষের সব মিলতেই হবে এমন ধারণা থেকে সরুন। জীবনে চলার পথে অনেক পছন্দ-অপছন্দই বদলায়। কিন্তু জীবনের মূল আদর্শগত দিকগুলির ভাবনায় আলাদা হলে সতর্ক হন। আরও এক বার বাবুন। আপনার পেশা ও আপনার বাড়ির মানুষ সম্পর্কে তিনি কী বাবছেন, আদৌ ভাবছেন কি না এগুলোও মাথায় রাখুন।

আরও পড়ুন: প্রতি বছর এই অসুখে মৃত্যু হয় লক্ষাধিক মানুষের, আপনিও অজান্তে এর শিকার নন তো!



গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ।

প্রথম দিনই খুব আবেগতাড়িত হয়ে বা উত্তেজনার বশে সব কথা উজাড় করবেন না। বিশ্বাস ও ভরসা তৈরি হওয়ার সময় দিন। প্রথম দিনই নিজের ও তাঁর খুব ব্যক্তিগত বিষয় নিয়ে কথা বলবেন না। অতীতের সম্পর্ক নিয়েও কথা সে দিন এড়িয়ে চলুন। বরং সময় দিন সম্পর্কটাকে। নিজের ব্যক্তিত্ব ও কথায় এমন কিছু রাখুন যাতে পরের দিন দেখা করতেও রাজি হন সঙ্গী। যদি দেখেন পাশের মানুষটি আপনি না চাইলেও ঘনিষ্ঠ হওয়ার চেষ্টা করছেন, তবে প্রতিবাদ করুন ও দরকারে সেই জায়গা ত্যাগ করুন। ডেটিংয়ে আসা মানেই কিন্তু ঘনিষ্ঠতা তৈরি হতে দেওয়ার লাইসেন্স দেওয়া নয়।

ইতিহাসের পাতায় আজকের তারিখ, দেখতে ক্লিক করুন — ফিরে দেখা এই দিন

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement