সাধারণত বাঙালি হেঁশেলে ডিমের ব্যবহার আকছার দেখা যায়। মুখরোচক স্নাক্স হোক বা ডিমের নানা পদের সঙ্গে রুটি বা ভাত— সস্তা অথচ পুষ্টিকর এমন উপাদানের চাহিদাও আকাশছোঁয়া। তবে খাওয়ার পাতে পুষ্টিগুণ বাড়ানোই ডিমের একমাত্র কাজ বলে ভাবেন? তা হলে ডিমের আরও কিছু গুরুত্বপূর্ণ ব্যবহার কিন্তু হাতছাড়া হয়ে যাচ্ছে আপনার।

চুলের নানাবিধ সমস্যায় যে ডিম অনেকটাই কার্যকর, সে বিষয়ে অনেকেই অবহিত। কিন্তু ডিম যে ত্বকেরও নানা সমস্যায় অবর্থ্য সমাধান হয়ে উঠতে পারে, সে কথা জানেন কি?

দৈনিক জীবনে ডিমকে কাজে লাগিয়ে সারিয়ে তুলতে পারেন শুষ্ক, অনুজ্জ্বল ত্বককে। এমনকি মুখের দীর্ঘ দিনের দাগকেও ধীরে ধীরে কমিয়ে ফেলতে পারে ডিম। কেমন হবে সে ব্যবহার জানেন?

আরও পড়ুন: ব্যায়াম বা জিমের সময় নেই? এ সব কৌশলে ঝরিয়ে ফেলুন সর্বাধিক ক্যালোরি

টাক থেকে রুক্ষতা, চুলের সব সমস্যার কাটাতে এই ভাবে ব্যবহার করুন ডিম

ডিম ও মধুতেই লুকিয়ে শুষ্ক ত্বকের সমাধান।

  • শুষ্ক ত্বকের সমস্যা দূর করতে ডিম অন্যতম হাতিয়ার হতে পারে। একটা ডিম ও তার সঙ্গে দু’ চামচ মধু মিশিয়ে ভাল করে ফেটিয়ে নিন। মধু প্রাকৃতিক ভাবেই ত্বকের আর্দ্রতা ফেরাবে। তার সঙ্গে ডিম যোগ হয়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়বে ও ত্বকের ক্রমাগত শুষ্ক হয়ে যাওয়াকে রুখে দেবে। সপ্তাহে বার তিনেক এমনটা করতে পারলে শুকনো ত্বক আর জ্বালাবে না। তবে যাঁদের তেলতেলে ত্বক, তাঁরা ডিমের সঙ্গে মধুর পরিবর্তে মুসুর ডাল বাটা বা বেসন ব্যবহার করুন।
  • পুরনো দাগ কিছুতেই দূর হচ্ছে না কিংবা ত্বর নির্জীব দেখাচ্ছে? এর দাওয়াইও লুকিয়ে ডিমে। একটি ডিমের সঙ্গে এক চামচ দই মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন কিছু ক্ষণ। মিনিট পনেরো পর শুকিয়ে এলে ভাল করে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে তিন দিন মেনে চলুন এই টিপ্‌স ও হাতেনাতে জেল্লা ফিরে পান ত্বকের।
  • অ্যালোভেরা জেল ও ডিমের কুসুম এই দু’টিকে একটি পাত্রে নিয়ে বাল করে ফেটিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন মিনিট দশেক। মৃতকোষ ঝরে ত্বকের জেল্লা বাড়বে সহজেই। যে কোনও মেক আপ নেওয়ার আগে এই মিশ্রণ ব্যবহার করলে মেক আপ বসবেও অনেক ক্ষণ।