সারা দেশ জুড়ে চলছে ‘বেটি বঁচাও বেটি পঢ়াও’ নিয়ে প্রচার। অন্য দিকে, নিজের ১০ বছরের মেয়েকে বিয়ের নামে বিক্রি করে দিচ্ছে বাবা! ৫০ হাজার টাকার বিনিময়ে মেয়েকে বিক্রি করে দেওয়ার অভিযোগটি ঘটেছে গুজরাতের বনাসকাঁঠা এলাকায়।  

মেয়েটিকে মঙ্গলবার কুবেরনগর এলাকায় এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে উদ্ধার করেছে ক্রাইম ব্রাঞ্চের মহিলা অফিসাররা। উদ্ধারের বিষয়টি সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন ক্রাইম ব্রাঞ্চের এসিপি কে এম জোসেফ। এর পর  হাদাদ পুলিশ স্টেশনে দায়ের করা হয়েছে এফআইআরও।

সেই এফআইআর থেকে জানা গিয়েছে, আসারওয়ার বাসিন্দা ৩৫ বছরের গোবিন্দ ঠাকোরের সঙ্গে গত অগস্টে নিজের মেয়ের বিয়ে দেন ওই ব্যক্তি। তার মাসখানেক আগে একটি মেলায় ঘুরতে গিয়েছিল বছর দশেকের ওই মেয়েটি। সেখানে জাগমাল গামার নামের এক দালাল মেয়েটিকে দেখায় ‌গোবিন্দকে। এর পর সামাজিক প্রথা মেনে বিয়ে দেওয়া হয় মেয়েটির। বিয়ের সময় মেয়েটির বাবার সঙ্গে চুক্তি হয়েছিল দেড় লক্ষ টাকা দেওয়ার। বিয়ের আগে ৫০ হাজার। বিয়ের পর বাকি এক লক্ষ।

কিন্তু বিয়ের পর বাবা মেয়েকে বাড়ি আনতে চাইলেও রাজি হয়নি  গোবিন্দ। দেয়নি বাকি এক লক্ষ টাকাও। এর পরই বিয়ের ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে দেয় ওই দালাল। সেই ভিডিয়ো ভাইরাল হতেই বিষয়টি নিয়ে নড়েচড়ে বসে প্রশাসন। মেয়েটির বাবা, তার স্বামী ও দালালের বিরুদ্ধে চাইল্ড ম্যারেজ প্রোহিবিশন অ্যাক্টে মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

আরও পড়ুন: অযোধ্যা: ৫০০ বছরের টানাপড়েন, ১৩৪ বছরের আইনি লড়াই, দেখে নিন এক ঝলকে

আরও পড়ুন: যা বলবেন মেনে নেব, ধরে নেবেন না, কাশ্মীরে ধরপাকড় নিয়ে কেন্দ্রকে ভর্ৎসনা সুপ্রিম কোর্টের