• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

১৩০টি ফ্ল্যাটের বিল্ডিং কোয়রান্টিন সেন্টারের জন্য ছেড়ে দিলেন বিল্ডার

Building
করোনার কোয়রান্টিন সেন্টারের জন্য বহুতল দিয়ে দিলেন বিল্ডার মেহুল সাঙ্গভি (ইনসেটে)। ছবি: টুইটার থেকে নেওয়া।

প্রতিদিন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা। এই দৌড়ে এগিয়ে থাকা রাজ্যগুলির মধ্যে অন্যতম মহারাষ্ট্র। আর বাণিজ্যনগরী মুম্বই ও রাজধানী দিল্লি দিনের পর দিন আরও কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখীন হচ্ছে। করোনা আক্রান্তদের আলাদা করে রেখে চিকিৎসার জায়গার অভাব দেখা দিচ্ছে। এই পরিস্থিতি মোকাবিলায় সাধারণ মানুষও নিজেদের মতো করে এগিয়ে আসছেন। যেমন এগিয়ে এলেন মুম্বইয়ের এক বিল্ডার। নিজের ১৯ তলা একটি বিল্ডিং কোয়রান্টিন সেন্টার তৈরির জন্য গ্রেটার মুম্বই মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের হাতে তুলে দিলেন তিনি।

সংবাদ সংস্থা এএনআই এই খবরটি টুইট করে জানিয়েছে, ওই বিল্ডারের নাম মেহুল সাঙ্গভি। তাঁর নতুন তৈরি ১৯ তলা বিল্ডিংটির নির্মাণ কাজ সম্পূর্ণ হয়ে গিয়েছিল। ফ্ল্যাটগুলির ক্রেতারা বসবাসও শুরু করতে পারতেন। সম্ভবত সেই প্রক্রিয়া শুরুর আগেই করোনার প্রকোপ শুরু হয়ে যায়। ফলে বিল্ডিংটিতে কেউ বসবাস শুরু করেতে পারেননি। এবার সেই ১৯ তলার বিশাল বিল্ডিংটি করোনার কোয়রান্টিন সেন্টার হিসেবে ব্যবহার শুরু হয়েছে।

বিল্ডিংটিতে ১৩০টি স্বয়ংসম্পূর্ণ ফ্ল্যাট রয়েছে। একটি ফ্ল্যাটে ন্যূনতম চার জনকে রাখা যাবে। সেই সঙ্গে ফ্ল্যাটের মাঝের বারান্দাও কোয়রান্টিনের কাজে ব্যবহার করা সম্ভব। ইতিমধ্যেই বিল্ডিংয়টিতে ৩০০ জনকে রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন: বিমানের কয়েকশো টিকিট কেটে কোটিপতি হয়ে গেলেন মহিলা!

আরও পড়ুন: স্বজনপোষণ! নেটাগরিকদের আক্রমণের মুখে একের পর এক টুইটার ছাড়ছেন সোনাক্ষী, সাকিবরা

এএনআই বিল্ডিং ও বিল্ডিংয়ের মালিক মেহুল সাঙ্গভির ছবি টুইট করেছে। আর এমন একটি কাজের খবর সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়তে সময় নেয়নি।  টুইটটি কয়েক হাজার লাইক পেয়েছে। সেই সঙ্গে সমানে রিটুইট হয়ে চলেছে। নেটাগরিকরা মেহুলের এমন কাজের প্রশংসায় সরব।

দেখুন সেই পোস্ট:

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন