• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

হোমওয়ার্ক না করার ‘শাস্তি’! তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে ৪৫০ বার ওঠবস করালেন গৃহশিক্ষিকা

Student
গ্রাফিক: শৌভিক দেবনাথ

হোমওয়ার্ক করে নিয়ে যায়নি ছাত্রীটি। তাই তৃতীয় শ্রেণির ওই ছাত্রীকে ৪৫০ বার ওঠবস করিয়ে ‘উচিত শিক্ষা’ দিলেন গৃহশিক্ষিকা।ওই নিষ্ঠুরতার জেরে পা ফুলে যাওয়ায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়। এই নির্মম ঘটনা ঘটেছে মহারাষ্ট্রের ঠাণেতে। পুলিশ ওই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করেছে।

বৃহস্পতিবার পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই পড়ুয়া ঠাণের শান্তিনগর এলাকার বাসিন্দা। লতা নামে শিক্ষিকার কাছে পড়ত সে। গত শুক্রবার তাঁর কাছে পড়তে গিয়েই শাস্তির মুখে পড়ে আট বছরের ওই শিশুটি। অভিযোগ, হোমওয়ার্ক না করে নিয়ে যাওয়ায় ওই শিশুকে ৪৫০ বার ওঠবস করান লতা নামে ওই গৃহশিক্ষিকা। পরিস্থিতি এমন হয় যে, টিউশন থেকে ফিরে ভাল করে হাঁটতে পারছিল না শিশুটি। তার পা ফুলে যায়। তাকে হাসপাতালে ভর্তি করতে হয়।

শিশুর মায়ের কথায়, বিষয়টি নিয়ে বলতে গেলে নির্বিকার ভাব দেখান ওই শিক্ষিকা। এর পর, শনিবার ওই শিক্ষিকার বিরুদ্ধে নয়ানগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন তিনি। পুলিশ ওই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করেছে। তাঁর বিরুদ্ধে জুভেনাইল অ্যাক্ট-সহ নানা ধারায় মামলা করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

আরও পড়ুন: ‘বিক্ষোভকারীদের ওষুধ জানা আছে’, জেএনইউ, জামিয়ার পড়ুয়াদের হুমকি কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর

আরও পড়ুন: এবার সব ক্যানসার সারবে একই উপায়ে? যুগান্তকারী আবিষ্কার

অবশ্য এই প্রথম নয়, আগেও গৃহশিক্ষিকা লতার বিরুদ্ধে পড়ুয়া নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছিল। গত মাসেই এক পড়ুয়াকে নগ্ন করে বেত দিয়ে পেটানোর অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন